সংবাদ শিরোনাম
জগন্নাথপুরে হাওর থেকে এক অঞ্জাতনামা ব্যক্তির অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ১ ব্যক্তি: মোট ১০, সুস্থ ৬, আইসোলেশনে ৪  » «   দোয়ারাবাজারে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ১০  » «   সিলেটে দক্ষিণ সুরমায় দু’দল বাস শ্রমিকের মধ্যে দেড় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষ  » «   করোন:এক দিনে ৯৩ জন আক্রান্ত সিলেট বিভাগে:মোট ১০৪০ জন  » «   ভূমধ্যসাগরে ট্রলার ডুবিতে নিহত ৩৬: এ মামলার প্রধান আসামি রফিকুল গ্রেফতার  » «   সিলেট থেকে বাস চলাচল শুরু  » «   ছাতকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক ঔষধ ব্যবসায়ীর মৃত্যু  » «   সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যানের অপসারনের দাবীতে অভিযোগ দায়ের  » «   সুনামগঞ্জে র‍্যাব ক্যাম্পের ১৬ জন সদস্যসহ মোট ২১ জন করোনায় আক্রান্ত  » «   জগন্নাথপুরে মানসিক রোগী দীর্ঘ এক বছর পর থানা পুলিশের সহযোগিতায় ফিরে পেল পরিবার  » «   রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের ১৯-২০ বছরের উন্মুক্ত বাজেট পেশ  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে আরেক জন  » «   জগন্নাথপুরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা জরিমানা আদায়  » «   গোয়াইনঘাটে এসএসসিতে পাশের হার ৭৯.২৭ জিপিএ ৪৫ জন  » «  

করোনা আক্রান্ত অথবা মৃত ব্যাক্তির দাফন-কাফনসহ স্বেচ্ছাসেবকের কাজে লাগতে চাই-সিলেটের তারা মিয়া

সিলেটপোস্ট ডেস্ক:: করোনা ভাইরাস আতঙ্ক এখন বিশ্বজুড়ে। করোনা মোকাবেলায় ইতোমধ্যে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অনেক অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিচ্ছে সরকার। এমন অবস্থায় করোনা

ভাইরাসের বিরুদ্ধে একজন স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে মানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চান ।তিনি হলেন সুনামগঞ্জ জেলার সুরমা ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বাঘমারা গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত দুদু মিয়ার ছেলে মোঃ তারা মিয়া।

বর্তমানে তিনি সিলেট শাহপরাণ থানার ৫নং টুলটিকর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের বালুচর এলাকার বাসিন্ধা।তার বয়স (৫৮) পেশায় একজন রিকশা ম্যাকানিক।তার পরিবারে ৯ সদস্য রয়েছে।তিন ছেলে ও চার মেয়ে এবং স্ত্রী-কে নিয়ে তার সংসার।

কোনু রকম চলছে তার জীবন। তবুও এ মহামারী করোনায় আক্রান্ত-দের পাশে থেকে নিজ-কে বিলিয়ে দিতে চান তারা।

তিনি সিলেটপোস্টের প্রতিবেদকের কাছে এসে নিজের মনের ভাব প্ররাশ করে বলেন,বর্তমান সময়ে এই (কুভিড-19)করোনা আক্রন্ত রোগীর সেবা করা, ও কোনু রোগী যদি মারা যায় তার দাফন করতেও আমি রাজি আছি।

আমি চাই আমার বাবা এ দেশের জন্য মুক্তি যুদ্ধ করেছেন।আমিও আমার বাবার দারে কাছে যদি না ও যেতে পারি, তবে কিছু টা না হয়  বাবার মতো করে যেতে চাই বলে এই ফরিয়াদ জানিয়েছেন তারা মিয়া।

তারা মিয়া সিলেটের সিভিল সার্জন,প্রশাসন ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডঃ এ কে আবদুল মোমেনসহ  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এ ফরিয়াদ জানিয়ে

অনুরুদ করে বলেন ,আমাকে আপনারা এই মহামারী করোনা আক্রান্ত রোগীর সেবা থেকে দরে দাফন কাপনসহ যে কোনু কাজে লাগালে আমি একদম ফ্রি সার্ভিস দিয়ে যাবো।

তাতে আমি আমার মনে শান্তনা পাব।

এসব কথা সিলেটপোস্ট-কে জানালেন তারা মিয়া।

সর্বশেষ তারা মিয়া আরো বলেন, আমি সজ্ঞানে শপথ করছি সিদ্ধান্তে অটল থাকবো। যেকোনো প্রকার অবস্থায় আমার পরিবারের যেকোনো অভিযোগ অগ্রাহ্য করার এখতিয়ার মেনে নিলাম। আমি করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্বতস্ফুর্তভাবে শরীক হওয়ার সুযোগ চাই।

যোগোযোগ:০১৯২১৪১৪৬৬৬

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.