সংবাদ শিরোনাম
ভক্তদের সারপ্রাইজ দিলেন মুশফিক  » «   করোনাকালে হাসপাতালেই হলো ডাক্তার আর নার্সের বিয়ে  » «   স্টেশনেই মরে পড়ে আছে মা, জাগাতে চেষ্টা করছে শিশু!  » «   করোনা মোকাবিলায় সফল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে নিউজিল্যান্ড  » «   করোনা: দেশে একদিনে মৃত্যু ২২, নতুন শনাক্ত ১৫৪১  » «   স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলাচল করতে পারবে  » «   ঈদের ছুটি নিলেন না আনোয়ারা খান হাসপাতালের ডাক্তার ও নার্সরা  » «   বাড়ছে না সাধারণ ছুটি, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে অফিস  » «   খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন মান্না  » «   ‘বিএনপি রাজনৈতিক আইসোলেশনে রয়েছে’  » «   রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ড:করোনাভাইরাস আক্রান্ত পাঁচ রোগীর মৃত্যু  » «   সিলেটে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা:এক দিনে ৪২ জন শনাক্ত  » «   জাফলংয়ে বাড়ছে পানি, বাঁধ রক্ষার আকুতি  » «   জগন্নাথপুরে নারায়নগঞ্জ ফেরত ৭ জন কোয়ারেন্টাইনে  » «   জগন্নাথপুরে মাছ শিকার উৎসব  » «  

দুই দিনের মধ্যে আরো ২৩২৯ কারাবন্দিকে মুক্তি দেবে সরকার

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::করোনা পরিস্থিতির কারণে দেশের কারাগারগুলোতে কয়েদি সংখ্যা কমাতে সাধারণ ক্ষমায় আরও ২ হাজার ৮৮৪ জনকে বন্দিকে মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর মধ্যে গত ২ মে প্রথম ধাপে ১৭০ জন ও ৩ মে দ্বিতীয় ধাপে মুক্তি পেয়েছিল ৩৮৫ জন কারাবন্দি। বাকি ২ হাজার ৩২৯ জনকে মুক্তি দেয়ার ব্যাপারে জেলারদের কাছে গতকাল শুক্রবার চিঠি পাঠানো হয়েছে।

শনিবার (৯ মে) গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কারা অধিদফতরের এআইজি মুহাম্মদ মঞ্জুর হোসেন।

এ ২ হাজার ৩২৯ কারাবন্দির মধ্যে ঢাকা বিভাগের ৯৫৩ জন, ময়মনসিংহ বিভাগের ৭৭, চট্টগ্রাম বিভাগের ৩৫৪, সিলেট বিভাগের ৬৯, খুলনা বিভাগের ১৫৮, বরিশাল বিভাগের ৯৭, রাজশাহী বিভাগের ৪২৩ ও রংপুর বিভাগের ১৯৮ জন রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘প্রথম দুই দফায় ৫৫৫ কারাবন্দিকে মুক্তি দিয়েছি। চূড়ান্ত ধাপে অর্থাৎ আগামী সোমবারের মধ্যে আরও ২ হাজার ৩২৯ জন কারাবন্দিকে মুক্তি দেয়া হবে। এ সংক্রান্ত প্রক্রিয়া শেষ পর্যায়ে। কারা অধিদফতরের ডিআইজি অফিসের মাধ্যমে মুক্তি দেয়া হবে এমন কারাবন্দিদের তালিকা দেশের ১৩টি সেন্ট্রাল জেল ও ৫৫টি জেলা কারাগারের জেলারদের কাছে গতকালই পৌঁছে দেয়া হয়েছে।’

এআইজি বলেন, ‘এখন জেলাররা কয়েদিদের মুক্তির কাজও এগিয়ে নিচ্ছেন। এ ২ হাজার ৩২৯ জন কয়েদির মধ্যে কিছু কয়েদিকে এরইমধ্যে মুক্তি দেয়া হয়েছে। অন্যরা আগামী দুদিনের মধ্যে মুক্তি পেয়ে যাবেন। যাদের জরিমানার টাকা বাকি তাদের মুক্তি দিতে একটু দেরি হতে পারে। জরিমানার টাকা পরিশোধ করলেও তারাও দুদিনের মধ্যেই মুক্তি পাবে।’

এরইমধ্যে কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজনস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম মোস্তফা কামাল পাশা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘যাদের মুক্তি দেয়া হচ্ছে তারা সর্বোচ্চ এক বছর কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। এর মধ্যে অনেকেরই সাজা প্রায় শেষ দিকে। কারও কারও সাজা অর্ধেক হয়েছে। আমরা এই করোনা সংক্রমণের সময়ে কারাগার যতটা সম্ভব ফাঁকা করতে চাচ্ছি। এখন কারাগার যত ফাঁকা হবে তত ভালো।’

কারাগার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, করোনার প্রাদুর্ভাবে কারাগারে চাপ কমানোর জন্যই এ সিদ্ধান্ত নেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এর আগে তাদের নামের তালিকা বিশেষ করে যাদের সাজার মেয়াদ প্রায় শেষ, বয়সে বৃদ্ধ, দীর্ঘদিন কারাগারে আছেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের সাজা হয়েছে তাদের তালিকা করা হয়। কারাবিধির (৪০১) ১ ধারার  ক্ষমতাবলে তাদের মুক্তি দেয়া হচ্ছে।

করোনা ভাইরাসের বিস্তার প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্র, ইরানসহ বিশ্বের দেশে দেশে বিপুল সংখ্যক কারাবন্দিকে সাময়িক মুক্তি দিচ্ছে ওইসব দেশের সরকার।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.