সংবাদ শিরোনাম
জগন্নাথপুরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা জরিমানা আদায়  » «   গোয়াইনঘাটে এসএসসিতে পাশের হার ৭৯.২৭ জিপিএ ৪৫ জন  » «   দিরাইয়ে ৩শ মসজিদের ইমাম-মুয়াজ্জিনদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ প্রণোদনা প্রদান  » «   আজ থেকে সিলেটে বাসসহ গণপরিবহন চলাচল শুরু  » «   সিলেটে এবার ঘরে উল্লাস কৃতী শিক্ষার্থীদের:পাসের হার ৭৮.৭৯ জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪২৬৩ জন  » «   স্বাস্থ্যবিধি মেনে সিলেটে শুরু হয়েছে ট্রেন চলাচল  » «   গোয়াইনঘাটে আরও এক করোনা রোগী শনাক্ত:মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪  » «   বাঁচা মরা তো আল্লাহর হাতে:আমার স্ত্রীর অবস্থা খুবই খারাপ-মানবতার ফেরিওয়ালা মাকসুদুল  » «   এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল আজ  » «   কোমা থেকে জাগলেন করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ পাইলট  » «   করোনা প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের আরও সম্পৃক্তির আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর  » «   লিবিয়ায় নিহতদের মরদেহ বাংলাদেশে আনা যাবে না  » «   জগন্নাথপুরে জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল  » «   সুনামগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের হামলা আহত ২-থানায় অভিযোগ  » «   জগন্নাথপুরে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এক নারী চিকিৎসক  » «  

সরকারি সহায়তার জন্য ২০০ ফুটবলারের তালিকা!

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::করোনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ ক্রীড়াবিদদের সহায়তার জন্য জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) যে ১ কোটি টাকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানে সবচেয়ে বেশি থাকবে ফুটবলারদের নাম। এনএসসি চেয়ারম্যান যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল জানান, ২৭ ক্রীড়া ডিসিপ্লিনের মধ্যে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) থেকেই চাওয়া হয়েছে বড় তালিকা।

এনএসসি’র চিঠি পাওয়ার পরই সব ফেডারেশন দুস্থ খেলোয়াড়দের তালিকা তৈরির কাজ শুরু করে দেয়। বাফুফেও ইতোমধ্যে তালিকা তৈরির কাজ প্রায় শেষ করেছে। তারা ২০০ ফুটবলারের নাম জমা দিচ্ছে এনএসসি’তে।

সোমবার বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ বলেন, ‘আমরা প্রথমে প্রতিটি জেলা থেকে ৩ জন করে খেলোয়াড়ের নাম এনেছিলাম ডিএফএ’র মাধ্যমে। আর আমাদের নারী ফুটবলের কোচদের মাধ্যমে সারা দেশ থেকে আনা হয়েছিল অসহায় নারী ফুটবলারদের নাম। সব মিলিয়ে আড়াই’শ ফুটবলার হয়েছিলো। এখন সেখান থেকে বাছাই করে ২০০ জনের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে।’

সরকারি অর্থ সহায়তার জন্য বাফুফে যে ২০০ জনের তালিকা পাঠাচ্ছে এনএসসিতে, সেই তালিকায় নারী ফুটবলার রয়েছেন ২৫ জন। বাকি ১৭৫ জন পুরুষ ফুটবলার। নারী ও পুরুষ উভয় ক্ষেত্রেই বাফুফের অধীনে খেলা কোনো ক্লাবে নিবন্ধিত ফুটবলার রাখা হয়নি। এ প্রসঙ্গে সোহাগ বলেন,‘যে সব অসহায় ফুটবলার কোনো জায়গা থেকে টাকা-পয়সা পাচ্ছেন না, তাদের আমরা বিবেচনায় আনছি। কারণ, যারা ক্লাবে খেলেন তারা কিছু না কিছু পেয়েছেন, পাবেন। তালিকা তৈরিতে আমরা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি অসহায়দেরই। আমরা প্রতিটি জেলা থেকেই ফুটবলার রাখার চেষ্টা করেছি তালিকায়। এমন হতে পারে কোনো জেলার একজন, কোনো জেলার ২/৩ জন।’

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.