সংবাদ শিরোনাম
গোয়াইনঘাটে পুলিশের অভিযানে ভারতীয় ফেনসিডিল উদ্ধার  » «   কাউন্সিলর সেলিমসহ ৫জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল মামলা  » «   মোবাইল চুরির অপবাদে শিশু ছেলেকে নির্যাতন, জরিমানা  » «   জগন্নাথপুরে প্রথমবারের মত ভোট হবে ইভিএমে  » «   মাছ লুটের ঘটনার প্রতিবাদে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে মানববন্ধন:হামলা  » «   স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় প্রধান আসামি সাইফুরসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে পৃথক ধারায় ২টি চার্জশিট  » «   জগন্নাথপুরে স্থানীয় পর্যায়ে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট বাস্তবায়ন কর্মশালা অনুষ্ঠিত  » «   সাংবাদিক বাবরকে হাত পা কেটে সুরমা নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার হুমকি:থানায় জিডি  » «   এবার প্রবেশ করলো ‘বডি ওর্ন ক্যামেরা’ ট্রাফিক পুলিশের  » «   সুনামগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবকদলের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধাঁ  » «   বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে সুনামগঞ্জে স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মবিরতি পালন  » «   ৮ঘন্টায় এলব্রুস জয় করে রেকর্ড গড়লেন জগন্নাথপুরের ছেলে “আকি”  » «   জগন্নাথপুরে প্রায় ৫০ বছরের মুক্তিযোদ্ধে শহিদ হওয়া পরিবার সাহায্য থেকে বঞ্চিত  » «   কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটিকে সমন জারী  » «   বিএনপি থেকে আবারও বহিস্কার হলেন আব্দাল  » «  

মায়ের দুধে করোনা সংক্রমণ হয় না

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::যথাযথভাবে মায়েরা শিশুকে দুধ খাওয়ালে করোনাভাইরাস সংক্রমণ হয় না। গতকাল বুধবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস বিষয়ে নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘যে মায়েরা সন্তানকে দুগ্ধদান করে থাকেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে যে, দুগ্ধদানের মাধ্যমে কোন ভাইরাস ট্রান্সমিট বা ভাইরাসের সংক্রমণ হয় না। কাজেই আপনারা যথাযথ ব্যবস্থা নিয়ে মায়েরা মুখে মাস্ক পরে বুকের দুধ দিতে পারেন। দেয়ার আগে স্তন ভালোভাবে ধুয়ে পরিষ্কার করে নেবেন। হাত ভালোভাবে ২০ সেকেন্ড ধরে সাবান পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নেবেন। হাত ও স্তন পরিষ্কারের পরই বাচ্চাকে দুগ্ধ দান করতে পারেন।’

নাসিমা সুলতানা আরও বলেন, ‘আপনারা সবাই স্বাস্থ্য নিয়মগুলো মেনে চলুন। যারা বয়োজ্যেষ্ঠ আছেন, যাদের অন্যান্য অসুখ আছে যেমন উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, হার্টের, ফুসফুসের, কিডনির অসুখ বা অন্যান্য দীর্ঘমেয়াদি অসুখে যারা ভুগছেন, তারা অত্যন্ত সাবধানে থাকবেন। পরিবারের সদস্যরাও যাদের এই সমস্যাগুলো আছে, তাদের দিকে খেয়াল রাখবেন।’

সবাইকে মানসিকভাবে উজ্জীবিত থাকার পরামর্শ দিয়ে নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘শিশুরাও যেন এ নিয়মগুলো মেনে চলতে অভ্যস্ত হয়, সে ব্যাপারে খেয়াল রাখবেন। সবক্ষেত্রেই মানসিকভাবে উজ্জীবিত থাকলে, আক্রান্ত ব্যক্তি নিজের মনোবল দৃঢ় রাখলে, যিনি আক্রান্ত হননি, তিনিও মানসিকভাবে উজ্জীবিত থাকবেন। মানসিক মনোবল দৃঢ় রাখা ও মানসিকভাবে উজ্জীবিত থাকা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে দেয়ার একটি মাপকাঠি।’


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.