সংবাদ শিরোনাম
জগন্নাথপুরের রানীগঞ্জ-হলিকোনা বাজারের রাস্তার বেহাল দশা দেখার কেউ নাই!!  » «   জগন্নাথপুরে আমজনতার উদাসীনতায় ক্রমে বাড়ছে করোনা পজেটিভ মোট আক্রান্ত ৯৩  » «   সীমান্ত এলাকায় অপরাধ রোধে জনসচেনতামূলক সভা  » «   ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল: ৩০০ কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে শাস্তির সুপারিশ  » «   জাপানে বন্যা:ভূমিধসে অন্তত ২০ জনের মৃত্যু  » «   ‘হেরে আমাদের কাছে মাফ চাইতো ভারতের ক্রিকেটাররা’  » «   মিশরের সেই যৌন নির্যাতনকারী গ্রেপ্তার  » «   পাকিস্তানে ট্রেন দূর্ঘটনায় নিহত ১৯  » «   প্রায় ৩৫ কোটি টাকার লটারি জিতলেন এক বাংলাদেশিসহ ২০ জন  » «   জগন্নাথপুরে গাঁজাসহ আটক ১  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে আরো ২জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত মোট আক্রান্ত ৯৩: সুস্থ ৬৫  » «   দোয়ারাবাজারে সুমা হত্যা না আত্মহত্যা সঠিক তদন্তের মধ্যেমে দোষীদের শাস্তির দাবী পিতার   » «   গত ২৪ ঘন্টায় সিলেট বিভাগে ৯৩ জন করোনা আক্রান্ত:মৃত্যু ৩  » «   জৈন্তাপুরে ইয়াবাসহ ১ নারী আটক তার সাথে থাকা আরো তিন ইয়াবা ব্যবসায়ী পলাতক  » «   সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার হাওর থেকে নিখোঁজ এক যুবকের লাশ উদ্ধার  » «  

আগামী বছরের শেষ দিকে তৈরি হবে ২০০ কোটি ভ্যাকসিন: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::করোনা ভাইরাসের মহামারিতে নাকাল বিশ্ববাসী। সারা বিশ্ব এখন তাকিয়ে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিনের দিকে। এমন সময় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, আগামী বছরের শেষের দিকেই প্রস্তুত হবে ২০০ কোটি ভ্যাকসিন।

শুক্রবার জেনেভা থেকে ওই বিজ্ঞানী বলেছেন, এই মুহূর্তে আমাদের কাছে প্রমাণিত কোনও প্রতিষেধক নেই। তবে আমাদের সৌভাগ্য যে আমরা এ বছরের শেষেই একজন বা দুইজনের করোনা প্রতিষেধক তৈরিতে সাফল্য পেতে দেখব।

তবে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, এখনও করোনা লড়াইয়ে কার্যকরী প্রতিষেধক পেতে ১২ থেকে ১৮ মাস সময় লাগবে। এদিকে গত মাসে গ্লোবাল ফার্মাসিটিক্যালসের ফিজার জানিয়েছেন, অক্টোবরের শেষেই করোনা প্রতিষেধক তৈরি হয়ে যাবে।

গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, এখন সারা বিশ্বে প্রায় ১০০ টি প্রতিষেধকের উপর বিভিন্ন স্তরে পরীক্ষা চলছে। কিন্তু পুরোদমে করোনার সঙ্গে লড়াই করবে এমন প্রতিষেধকের খোঁজ এখনও ধোঁয়াশা। যদিও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় নির্মিত প্রতিষেধক এখন পর্যন্ত আশার আলো দেখিয়েছে। কিন্তু কবে ওই প্রতিষেধক কোভিড-১৯ এর সঙ্গে লড়াই করে বিশ্ববাসীকে আতঙ্ক থেকে মুক্তি দেবে তা এখনও অনিশ্চিত। জিনিউজ।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.