সংবাদ শিরোনাম
জঙ্গিদের টার্গেট ছিল হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার  » «   সিলেটে জঙ্গিদের ট্রেনিং সেন্টার সহ দুটি বাসায় অভিযান, বোমা তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার  » «   নগরীর মদিনা মার্কেট এলাকা থেকে ৪ অপহরণ ও চাঁদাবাজকারী আটক  » «   সুনামগঞ্জের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আলাদা একটা দৃষ্টি আছে -পানি মন্ত্রনালয়ের সচিব   » «   জগন্নাথপুরে পুলিশ সদস্য সহ আরোও তিনজন করোনায় আক্রান্ত: মোট আক্রান্ত ১১৯  » «   জগন্নাথপুরে দুর্ধর্ষ চুরি নগদ ৬লক্ষ টাকা সহ ৪ভরি সোনা নিয়ে গেছে চোরেরা  » «   জগন্নাথপুরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাপড়ের দোকানে ঢুকে পড়ল ট্রলি  » «   গোলাপগঞ্জে গাঁজাসহ এক তরুণীকে আটক  » «   নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিন আজ শেষ দিন:আগামী কাল থেকে বন্ধ  » «   এক অপরাধীর পরিবর্তে টাকার বিনিময়ে কারাগারে আরেক আসামী  » «   জগন্নাথপুরে সাজাপ্রাপ্ত আসামীসহ গ্রেফতার-৬  » «   ওসমানীনগরের বেগমপুর-জগন্নাথপুর সড়ক মরণ ফাঁদ:জনদুর্ভোগ চরমে  » «   কাতারে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত কুলাউড়ার যুবকের মৃত্যু  » «   দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আবারও সিলেট-লন্ডন রুটে সরাসরি বিমান চালু  » «   সিলেটে এমসি কলেজের ছাত্রীর আত্মহত্যা  » «  

ওসমানীনগর থানার ওসি তদন্ত মাঈন উদ্দিনও বদলি

ওসমানীনগর প্রতিনিধি::নানা বির্তকিত কর্মকান্ড সৃষ্টির ঘটনায় সমালোচিত সিলেটের ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ রাশেদ মোবারককে বদলির এক দিনের মধ্যে বদলি হলেন থানার ওসি তদন্ত এসএম মাঈন উদ্দিন। পুলিশ বিভাগের সাধারণ বদলির প্রক্রিয়ায় মঙ্গলবার তাকে সুনামগঞ্জ জেলায় বদলি করা হয়েছে বলে সিলেট জেলা পুলিশের দ্বায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে। এস এম মাঈন উদ্দিন ২০১৮ সালের ৭ ফেব্রুয়ারী ওসমানীনগর থানায় অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) হিসাবে যোগদান করে দীর্ঘ দুই বছরের অধিক সময় একই থানায় কর্মরত ছিলেন। এর পূর্বে ১৩ জুলাই সোমবার উপজেলা আওয়ামীলীগ ও বিএনপির সিনিয়র নেতাসহ সালিশ ব্যাক্তিত্বদের রশি দিয়ে বেঁধে থানায় নেয়ার হুমকির ঘটনায় সমালোচিত থানার ওসি রাশেদ মোবারককে ঢাকা পুলিশের এসবি শাখায় বদলি করা হয়। তবে ওসমানীনগর থানায় নতুন করে কাউকে ওসি ও ওসি (তদন্ত) দায়িত্ব এখনও দেওয়া হয়নি বলে নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়।

সিলেট জেলা পুলিশের দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছেন সাধারণ বদলির প্রক্রিয়ায় ওসমানীনগরের ওসি রাশেদ মোবারককে অন্যত্র বদলি করা হয়।

তবে ওসমানীনগরের সচেতন মহল দাবি করছেন, থানায় যোগদানের পর থেকে তিনি বাহিরে সাধু মনোভাব দেখালেও নানা বিতর্কিত ঘটনা সৃষ্টি করে সমালোচিত হওয়ায় কম সময়ের মধ্যেই তাকে অন্যত্র বদলি করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, ওসি রাশেদ মোবারক সমানীনগর থানায় যোগদানের পর নানা বিতর্কিত কর্মকান্ডের জন্ম দেন। অনিয়ম, দুর্নীতি, লুটপাট ও ঘুস বাণিজ্য করে হাতিয়ে নেন বড় অঙ্কের টাকা। মানুষকে হুমকি দিয়ে টাকা আদায় করাই ছিল তার নেশা। উপজেলার উমরপুর ইউনিয়ন আওয়ালীগের সভাপতি শহিদ পরিবারের সদস্য দবির মিয়া, উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইকবাল আহমদ, উমরপুর ইউনিয়নের সালিশ ব্যক্তিত্ব সাবেক ইউপি সদস্য তখলিছ আলী, উপজেলা বিএনপির সাবেক আহবায়ক উমরপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান চেরাগ আলী কোনো কারণ ছাড়াই তাদের ব্যক্তিগত মোবাইলে কল দিয়ে রশি দিয়ে থানায় বেধে আনার হুমকি দেন। এনিয়ে সর্বস্থরের মানুষ এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল সমালোচনা সৃষ্টি হলে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়।

ওসির এসব বিতর্কিত ঘটনা উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দসহ ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে পুলিশ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মৌখিকভাবে অবিহিত করা হয়। উপজেলা মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় একাধিক জনপ্রতিনিধিসহ উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতারা নিন্দা প্রস্তাব উত্তাপন করেন।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, যোগদানের শুরুতেই তিনি অপরাধীদের ধরপাকড়, মাদক, জুয়াসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সহিত জড়িতদের ধাওয়া দিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে টাকা আদায়ের কৌশল করতেন। থানায় কর্মরত তার অনুসারী কথিপয় এস আইদের দিয়ে অপরাধিদের সাথে সখ্যতা গড়ে তুলে নিরবে আর্থিক সুবিধা আদায়ে লিপ্ত ছিলেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।  সাধারণ মানুষ ও সেবা প্রার্থীরা ওসির সামনে এসে কথা বলার সুযোগ পেতনা তার বিকৃত মনোভাবের কারণে। করোনাকালে লকডাউন বাণিজ্য করে নানা কায়দায় সাধারণ মানুষদের হায়রানি করে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। কেউ প্রতিবাদ করলেই ডাইরেক্ট মামলা দিয়ে কোর্টে চালান করার হুমকি দিতেন হরহামেশা। ওসির এসব অনৈতিক আচরণে থানায় কর্মরত একাধিক পুলিশ অফিসার বিব্রতরোধ করতেন বলে নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়। এদিকে সোমবার ওসি রাশেদ মোবারকের বদলির বিষয়টি জানাজানি হলে উপজেলার সর্বস্থরের লোকজন স্বস্তিরোধ করছেন। অনেকেই ওসির বিতর্কিত কর্মকান্ড তুলে ধরে আলোচনা-সমালোচনা করছেন।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.