সংবাদ শিরোনাম
প্রথমে ভুয়া সেনাবাহিনীর লোক পরিচয়ে জেল:এবার ইনাতগঞ্জে সিআইডি পরিচয়ে আটক  » «   গোলাপগঞ্জে ঘরের মধ্যে একটি বিষধর সাপের কামড়ে শিশুর মৃত্যু  » «   সৎ ও সুন্দর ভাবে ব্যবসা করলে জীবনে প্রতিষ্ঠাপাওয়া সম্ভব-মেয়র আরিফ   » «   জঙ্গিদের টার্গেট ছিল হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার  » «   সিলেটে জঙ্গিদের ট্রেনিং সেন্টার সহ দুটি বাসায় অভিযান, বোমা তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার  » «   নগরীর মদিনা মার্কেট এলাকা থেকে ৪ অপহরণ ও চাঁদাবাজকারী আটক  » «   সুনামগঞ্জের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আলাদা একটা দৃষ্টি আছে -পানি মন্ত্রনালয়ের সচিব   » «   জগন্নাথপুরে পুলিশ সদস্য সহ আরোও তিনজন করোনায় আক্রান্ত: মোট আক্রান্ত ১১৯  » «   জগন্নাথপুরে দুর্ধর্ষ চুরি নগদ ৬লক্ষ টাকা সহ ৪ভরি সোনা নিয়ে গেছে চোরেরা  » «   জগন্নাথপুরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাপড়ের দোকানে ঢুকে পড়ল ট্রলি  » «   গোলাপগঞ্জে গাঁজাসহ এক তরুণীকে আটক  » «   নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিন আজ শেষ দিন:আগামী কাল থেকে বন্ধ  » «   এক অপরাধীর পরিবর্তে টাকার বিনিময়ে কারাগারে আরেক আসামী  » «   জগন্নাথপুরে সাজাপ্রাপ্ত আসামীসহ গ্রেফতার-৬  » «   ওসমানীনগরের বেগমপুর-জগন্নাথপুর সড়ক মরণ ফাঁদ:জনদুর্ভোগ চরমে  » «  

এবারো কোনো ব্যতিক্রম হলো না চামড়ার ব্যাবসায়ীদের গালে হাত আর হতাশ..

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::গত কয়েক বছরে এটা নিয়মিত দৃশ্যপট। এবারো কোনো ব্যতিক্রম হলো না। যদিও দাম নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছিল। ঘোষণা দেয়া হয়েছিল রপ্তানির। কিন্তু আদতে এর কোনো প্রভাবই পড়েনি। গরুর চামড়া ১৫০ থেকে ৬০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ছাগলের চামড়া বিক্রি হয়েছে ১০ টাকায়। বহু জায়গায় আবার কোনো ক্রেতাই পাওয়া যায়নি।

বিক্রি করতে না পেরে অনেকে চামড়া মাটিতে পুতে ফেলেন। কোথাও অবিক্রিত চামড়া পড়ে থাকতে দেখা গেছে।
গতবারের চেয়ে এবার চামড়ার দাম অনেক কম ধরা হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে বিক্রি হয়েছে তার চেয়েও অনেক কম দামে।

সিলেটের বিভিন্ন জায়গায় সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে অনেক কমে কোরবানির পশুর চামড়া বিক্রি হতে দেখা গেছে।
একজন ক্রেতা বলেন, বড় গরুর চামড়া ২০০-৩০০ ও মাঝারি গরুর চামড়া ১০০-১৫০ টাকায় কিনেছেন। আর ৪ পিছ ছাগলের চামড়া কিনেছেন ১০ টাকায়।
সিলেটে আজ সকালেও রাস্তার ধারে অবিক্রিত চামড়া পড়ে থাকতে দেখা গেছে। আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে এসব চামড়া নিয়ে আসা হয়েছিল। কিন্তু সেগুলো এখনো বিক্রি হয়নি।
এবার লবণযুক্ত গরুর চামড়া প্রতি বর্গফুট ৩৫ থেকে ৪০ টাকা নির্ধারণ করে দিয়েছিল সরকার, যা গত বছর ৪৫ টাকা থেকে ৫০ টাকার মধ্যে ছিল। ছাগলের চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয় প্রতি বর্গফুট ১৩ টাকা। কিন্তু বাস্তবে চামড়ার দাম ছিল আরো অনেক কম।
অনেকেই পশুর চামড়া মাদরাসায় দান করে থাকেন। এবছর মাদরাসাগুলো চামড়া পাচ্ছে কম। যা পেয়েছে তাও খুব দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।সিলেটের সিদ্দিকীয় হাফিজিয়া মাদ্রসার হিসাব রক্ষক আতিকুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, গত বছর ঈদের দিন দুপুর ৫০০ টাকা করে ২০০টি চামড়া বিক্রি করেছিলেন তারা। তবে সব বিক্রি করতে পারেননি। এবারের পরিস্থিতি বলতে গেলে তার চেয়েও খারাপ। এবার ২১০টা চামড়া হাতে এসেছে। কিন্তু কোনো ফড়িয়া পাওয়া যায়নি। ফলে পানির দামে চামড়া বিক্রি করতে হয়েছে। একজন ২১০ টাকা করে চামড়াগুলো নিয়ে গেছেন। তিনি ফড়িয়া নন, হয়ত কারও মাধ্যমে বিক্রি করবেন।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.