সংবাদ শিরোনাম
এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম  » «   দক্ষিণ সুরমায় পলাতক ৪জন আসামীকে গ্রেফতার  » «   ঝড়ের কবলে পড়ে ঢাকা থেকে সিলেটমুখী একটি ফ্লাইট  » «   বিয়ানীবাজারে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ১২  » «   পাঁচ বছর ধরে জগন্নাথপুরে কৃষকের টাকায় পাকা হচ্ছে নলুয়ার হাওরের সড়ক  » «   সুনামগঞ্জে বিজিবি- চোরাকারবারী সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ১ আহত এক  » «   এবার কুটনৈতিক বিদ্রোহের সামনে পড়ল মিয়ানমারের সামরিক জান্তা  » «   শ্রীরামপুরে স্ত্রী লাকি হত্যাকারী পাষন্ড স্বামী শাহিদ গ্রেফতার  » «   নগরীতে থেকে চুরি হওয়া মোটরসাইকেল কোম্পানীগঞ্জ থেকে উদ্ধার  » «   মাধবপুরে ট্রাক ও পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষে এক ব্যক্তি নিহত  » «   সিলেটে নতুন করে আরও ১৭ জন করোনায় আক্রান্ত  » «   আজ বিদ্যুৎ থাকবে না যেসব এলাকায়  » «   বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ: এক কালজয়ী অধ্যায়  » «   জগন্নাথপুরে ধসে পড়া সেতুপরিদর্শন করলেন সচিব নজরুল ইসলাম  » «   সিলেট জেলা অনলাইন প্রেসক্লাব”এর কমিটি গঠন উপলক্ষে আলোচনা সভা  » «  

যুবলীগ সম্পাদকের উপর হামলার ঘটনায় উত্তপ্ত কুলাউড়া:থানায় মামলা

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

কুলাউড়া প্রতিনিধি::কুলাউড়া পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ১৭ জানুয়ারী রবিবার সকালে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত হন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মইনুল ইসলাম সবুজ (৪০)। অতর্কিত হামলার ঘটনায় ওই দিন রাতেই কেন্দ্রিয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিলের নির্দেশে মৌলভীবাজার জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বিকাশ ভৌমিক ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ রেজাউর রহমান সুমনের স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনের শৃঙ্খলাবিরোধী-সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে মর্মে এবং এ ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে কুলাউড়া উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক কামরুল হাসান বক্সকে যুবলীগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

মৌলভীবাজার জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ রেজাউর রহমান সুমন সোমবার সন্ধ্যায় মুঠোফোনে অব্যাহতির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

হামলা ও অব্যাহতির ঘটনায় (১৮ জানুয়ারী) সোমবার সারাদিন প্রতিবাদী মিছিলের মধ্য দিয়ে উত্তপ্ত ছিলো কুলাউড়া পৌর শহর। অব্যাহতি প্রাপ্ত কামরুল হাসানের নেতৃত্বে যুবলীগের সম্পাদক মইনুল ইসলাম সবুজের উপর হামলা হয়েছে দাবী করে উপজেলা যুবলীগের নেতৃত্বে শহরে একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্টিত হয়। এছাড়াও সবুজের নিজ ইউনিয়ন ভুকশিমইল বাসীর উদ্যোগে এবং কুলাউড়া ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে মিছিল ও মানবন্ধন করা হয়। অপরদিকে কামরুল হাসান সমর্থক গোষ্ঠি উল্লেখ করে একটি ব্যানারে উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয় সম্মুখে পাল্টা মানববন্ধন ও মিছিলের ডাক দিলে উত্তপ্ত হয়ে উঠে পুরো শহর। পরে পুলিশ পদক্ষেপ নিলে কামরুল হাসান সমর্থকরা তাদের মানবন্ধন করতে পারেনি।

স্থানীয়,পুলিশ ও মামলার এজহার সূত্র জানা যায়, ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত কুলাউড়া পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করা না করা নিয়ে সবুজ ও কামরুলের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এর জের ধরে রবিবার সকালের দিকে কুলাউড়া পৌর শহরের উছলাপাড়া এলাকায় কামরুলের নেতৃত্বে তঁার সহযোগীরা প্রথমে সবুজদের মালিকানাধীন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে হামলা চালান। এ সময় ওই প্রতিষ্ঠান থেকে তঁারা নগদ প্রায় ১৫ লাখ টাকা লুট করে নেন। বাধা দিলে তঁারা সবুজকে ধাওয়া করেন। আত্মরক্ষার্থে তিনি পাশের একটি দোকানে আশ্রয় নিলে সেখানে তঁার ওপর হামলা চালানো হয়। তঁার শরীরের আটটি স্থানে ধারালো অস্ত্রের কোপে অঘাতের চিহ্ন দেখা যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তঁাকে প্রথমে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে অবস্থা গুরুত হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এ ঘটনায় ময়নুল ইসলাম সবুজের বড় ভাই আমিনুল ইসলাম তৈমুজ বাদী হয়ে ১৭ জানুয়ারী রাত ০৯ টায় কামরুল হাসান সহ ছয় জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও পঁাচ থেকে ছয়জনকে আসামি করে কুলাউড়া থানায় মামলা(নং-১১) দায়ের করেন। এজাহারে বলা হয়, কামরুল হাসান বখস নির্বাচনে পরাজিত স্বতন্ত্র প্রার্থী শাজান মিয়ার পক্ষে ছিলেন। এ নিয়ে তঁার সঙ্গে সবুজের বিরোধ সৃষ্টি হয়।

অভিযোগ সম্পর্কে বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে কামরুল হাসান বখস বলেন, পৌরসভা নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে ছিলেন। সবুজ সহ তঁার পরিবারের সদস্যরা নির্বাচনের দুই দিন আগে থেকে দলের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী বর্তমান মেয়র শফি আলমের পক্ষে কাজ শুরু করেন। রবিবার সকালে তিনিসহ আরও কয়েকজন উছলাপাড়া এলাকায় সবুজদের দোকানের সামনে যান। এ সময় তঁাদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়া শুরু হয়। তঁারাও পাল্টা ইটপাটকেল ছোড়েন। এ সময় ইটের আঘাতে সবুজের মাথা ফেটে যায়। লুটপাটের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিনয় ভূষণ রায় সোমবার সন্ধ্যায় মুঠোফোনে বলেন, কামরুল হাসান সহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা হয়েছে। ঘটনার পর আসামিরা গা ঢাকা দিয়েছেন। তবে তঁাদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

 


  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.