সংবাদ শিরোনাম
যুক্তরাজ্যে তিন দিনে ৩ বাংলাদেশি খুন  » «   লন্ডনে বিয়ানীবাজারের এক যুবক ও জগন্নাথপুর দাওরাই গ্রামের সাবিনা নিহত  » «   সুনামগঞ্জের ছাতকের ব্যবসায়ী আখলাদ হত্যাকান্ডের ঘটনায় ২ জন গ্রেপ্তার  » «   ওসমানীনগরে ব্যাংকের বুথ ভেঙে টাকা লুট: ৪ ডাকাতের ৫ দিনের রিমান্ড  » «   মাধবপুরে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু  » «   নগরীর মজুমদারী এলাকায় বাসার ছাদের পিলারে দুই বোনের ঝুলন্ত লাশ  » «   সিলেটে সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো রবিবার থেকে চার ঘন্টা করে বন্ধ  » «   দোয়ারাবাজারে কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে  » «   সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, দাদা-নাতি নিহত, আহত ৪  » «   জগন্নাথপুরে ত্রান সামগ্রী বিতরন করল অনুসন্ধান কল্যান সোসাইটি সিলেট  » «   সিলেট সিটির ৮৩৯ কোটি ২০ লাখ ৭৬ হাজার টাকার বাজেট ঘোষণা মেয়র আরিফের  » «   সোবহানীঘাট মা ও শিশু হাসপতালে ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু  » «   জগন্নাথপুরে পৃথক দু’টি লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আসপিয়া আর নেই,বিভিন্নজনের শোক প্রকাশ  » «   ১১বছর পর জানাগেল অপহরণ নয়; আত্মগোপনে ছিলেন ওই নারী  » «  

আমার স্ত্রী-সন্তান হারিয়ে যায়নি নিয়েছে শাহাবউদ্দিন বাবুর্চি:দাবী আহত শফিকুলের

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::গোপালগঞ্জের কুটলিপাড়া থানার মাজবাড়ী গ্রামের মোঃ লায়েক শেখ এর ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম (২৮)।

বর্তমান শিবগঞ্জ খরাদীপাড়া ২০নং রোডের ৭৯নম্বর বাসার ভাড়াটিয়া।পেশায় তিনি বাবুর্চি ।

২০১১সালে ভালবেসে বিয়ে করেন মোছাঃ রুমী বেগমকে।এরপর তাদের সংসার ভাল চলছিল।এরই মধ্যে তার ঘরে আসে ফুটফুটে কন্যা সন্তান ।তার নাম রাখা হয় জাহানারা ।বর্তমানে মেয়েটির বয়স ৪ বৎসর। মেয়েকে নিয়ে খুব আনন্দে চলছিল শফিকুলের সংসার।

কিন্তু হঠাৎ নেমে আসে দুঃখের আগুন।শফিকুল যার সাথে বাবুর্চির কাজ করত অর্থাৎ তার বস বড় বাবুর্চি মোঃ শাহাব উদ্দিন ।শাহাব উদ্দিনের কু-নজর পরে যায় শফিকুল ইসলামের স্ত্রী উপর ।এমন কি দু একদিন কু-প্রস্তাব দেন শফিকুলের স্ত্রী রুমীকে।এসব কথা শফিকুল ইসলামকে বলেন তার স্ত্রী রুমী।প্রথমে তার বিশ্বাস আসেনা ,পরে তিনি নিজে ঘটনার সত্যতা বুঝতে পারলেন।এরপর শফিকুল ইসলাম বাবুর্চি মোঃ শাহাব উদ্দিনের সাথে কাজ ছেড়ে দেন।

তারপর শুরু হয় বাবুর্চি মোঃ শাহাব উদ্দিনের প্রতিশোধ এর পালা। এভাবে কিছু দিনের মধ্যে  শফিকুল এর স্ত্রীর সাথে শাহাব উদ্দিনের পরকিয়া প্রেম শুরু হয়,চলতে থাকে রসলিলা।এসব কথা সিলেটপোস্টকে দুঃখভরা মনে জানালেন শফিকুল।

এরপর গত আগষ্ট মাসের ২০ তারিখ শুক্রবার জুম-আ পরে বাসায় এসে দেখেন তার স্ত্রী ও মেয়ে বাসায় নেই।পরে অনেক খোজাখুজি করে শফিকুল ইসলাম পরের দিন ২১ আগষ্ট হযরত শাহপরাণ থানায় গিয়ে একটি জিডি করেন।তাতে কোন ভাল সংবাদ পাননি তিনি।এই হতাশায় ভূগছিলেন শফিকুল কিন্তু গত ৬ সেপ্টেম্বর শাহাবউদ্দিন বাবুর্চির বন্ধু কামাল ফোন দিয়ে শফিকুল-কে জানান তার স্ত্রী রুমী বেগম আছেন শাহাবউদ্দিন বাবুর্চির মেজরটিলার বাসায়।শফিকুল এই সংবাদ পেয়ে পাগলের মত ছুটে যান শাহাব উদ্দিনের বাসায়।সেখানে যাওয়ার পর তার স্ত্রীর কোথায় জানতে চাইলে শাহাব উদ্দিন অতর্কিত হামলা চালায় শফিকুল এর উপর ।

এরপর দু-তলা থেকে ধাক্কা মেরে নিচে ফেলে দেন শফিকুল-কে।এরপর শফিকুল এর অবস্থা খুব আশঙ্কাজনক হলে তাকে এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয় লোকজন।হাসপাতালে তাকে ভর্তি করে চলে আসেন তারা।বর্তমানে এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে মৃত্যু যন্ত্রনায় ভূগছেন শফিকুল।

এ সংবাদ পেয়ে শফিকুল এর পিতা গোপালগঞ্জ থেকে গতকাল সিলেটে এসেছেন।তিনি বলেন, আমার ছেলের বউ-কে ও নাতিন-কে নিয়েও ওরা আমার ছেলেকে শান্তিতে থাকতে দিলনা।এখন আমার ছেলেকে মেরে ফেলতে চাইছে।

গতকাল এসে এই হাসপাতালেও হুমকি দিয়ে গেছে শাহাবউদ্দিন বাবুর্চি।আমি আগামীকাল এ ব্যাপারে থানায় গিয়ে অভিযোগ দিব।

শফিকুল সিলেটপোস্টকে আরো জানান,আমি আগে ভেবেছিলাম আমার স্ত্রী হয়তো সন্তানকে নিয়ে হারিয়ে গেছে এবং এ ব্যাপারে থানায় হারিয়ে যাওয়ার জিডিও করেছিলাম।কিন্তু শাহাব উদ্দিন আমাকে বার বার বলে আমার স্ত্রী আছে, এমনিতে আসবে এবং বিভিন্ন পথ দেখিয়ে দেয়। তার এই আচরন দেখে আর আমার স্ত্রীর আগে যে কু-প্রস্তাবের কথা আমাকে জানিয়েছিল এসব মিলিয়ে আমি শাহাবউদ্দিকে সন্ধেহ করতে থাকি এবং আমি মনে করি শাহাবউদ্দিনকে পুলিশ আটক করলে আমার স্ত্রী বের হয়ে আসবে।আমি আমার স্ত্রী সন্তান চাই।আমি আমার স্ত্রী সন্তান চাই বলে পাগলের মত কান্না শুরু করলেন শফিকুল।দেখুন ভিডিওতে শফিকুল কি বলেন….

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.