সংবাদ শিরোনাম
শাবিপ্রবি-তে গভীর রাতে ড.জাফর ইকবাল :অনশন ভাঙলেও আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা  » «   আমরণ অনশন ভাঙতে রাজী হন নি শাবিপ্রবির শিক্ষার্থী-আন্দোলন অব্যাহত  » «   বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নের পর এবার শাবিপ্রবির ভিসির বাসভবনে খাবার ও ঔষধ পাঠাতে দিচ্ছে না আন্দোলনকারীরা  » «   হবিগঞ্জ আদালতের ২৮ জন বিচারকের মধ্যে ১০জনই করোনা আক্রান্ত!  » «   একদফা দাবিতে অনড় শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা-ভিসি’র বাসভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ  » «   শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মৃত্যুর পথে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী”রা  » «   ছাতকে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত-২, গ্রেফতার-১  » «    যারা সন্ত্রাসকে পছন্দ করে তারাই র‌্যাবের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে.সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   ১৫০ পরিবারের মধ্যে চাউল বিতরণ করল অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি  » «   অবৈধ বালু উত্তোলনের দায়ে দোয়ারাবাজারে,৭ শ্রমিককে কারাদণ্ড  » «   সিলেটের পথ শিশুরা ড্যান্ডিতে আশক্ত  » «   আমরণ অনশনে শাবি শিক্ষার্থীরা:সরকারি সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় ভিসি  » «   ভিসি’র পদত্যাগ না হলে আন্দোলন চলবে:শাবিপ্রবির আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা  » «   ওসমানীনগরে সংঘর্ষে আহত ১২,পাল্টাপাল্টি মামলা  » «   আখালিয়ায় ফার্মেসীতে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ১, লুট  » «  

মধুলিকা রাওয়াতের মৃত্যুতে আবার অনাথ হলো আড়াইশো শিশু

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::স্বামী বিপিন রাওয়াতের সঙ্গে চপার দুর্ঘটনায় মধুলিকা রাওয়াতের মৃত্যুর ঘটনায় দ্বিতীয়বারের জন্য অনাথ হলো আড়াইশো শিশু। ডিফেন্স ওয়াইভস অ্যাসোসিয়েশন-এর সভানেত্রী ছিলেন মধুলিকা। তিনি ও বিপিন রাওয়াত আড়াইশো অনাথ শিশুর একটি আশ্রম চালাতেন। বুধবার সন্ধ্যায় রাওয়াত দম্পতির নিহত হওয়ার খবর আসার সঙ্গে সঙ্গে শ্মশানের নিস্তব্ধতা নেমে আসে রাজেন্দ্রনগরের এই আশ্রমে।  মধুলিকা শুধু যে এই আশ্রম চালাতেন তা নয়, তিনি দুঃস্থ মেয়েদের সেলাই মেশিন, নিরাশ্রয় যুবকদের রিকশা কিনে দিয়েছিলেন। সাতবন্ত সিং নামের এক রিকশাচালক বুধবার সন্ধ্যায় বলেছেন – দ্বিতীয়বার যেন মা-বাবাকে হারিয়ে অনাথ হলাম। বিপিন রাওয়াতের বাবাও সেনা অফিসার ছিলেন।  উত্তরাখণ্ডের গেরওয়াল এর বাসিন্দা বিপিন মেধাবী ছাত্র ছিলেন।

ইন্ডিয়ান মিলিটারি একাডেমি থেকে ডিগ্রি নেন। আমেরিকা থেকে নেন উচ্চপাঠ। বাবার বাহিনীতেই প্রথম কমিশনড অফিসার হন তিনি।  সেখান থেকে ধাপে ধাপে সেনা সর্বাধিনায়ক। আপোষহীন, অনমনীয় কিন্তু সহৃদয় – সহকর্মীদের কাছে এভাবেই পরিচিত ছিলেন তিনি। তার দগ্ধ, বিকৃত দেহটি যখন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তখন উদ্ধারকারীদের তিনি  অস্ফুটস্বরে বলেছিলেন – জলদি কর, মুঝে জিন্দেগী চাহিয়ে…
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.