সংবাদ শিরোনাম
দক্ষিণ সুরমায় মেয়েকে ফিরে পেতে এক পিতার আকুতি  » «   বানারীপাড়ায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক দূর্দান্ত প্রতারক রঞ্জন গ্রেফতার  » «   দক্ষিন সুরমার সুলতানপুর-গহরপুর সড়কে দুর্ঘটনায় নিহত ৩  » «   সাংবাদিক অজয় পালের প্রতিকৃতিতে সিলেটের সর্বস্থরের নাগরিকদের শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’ শেরপুরে হাজারো মানুষের ঢল  » «   দক্ষিণ সুমরার বাইপাস এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত  » «   আমাদের দেশের শিক্ষার্থীরা আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন হয়ে গড়ে উঠছে: মন্ত্রী ইমরান  » «   আওয়ামীলীগের বিদায় নিশ্চিত করে দেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্টা করতে হবে :কাইয়ুম চৌধুরী  » «   অবকাঠামো উন্নয়ন এর মাধ্যমে দেশ গড়ার কাজ করতে হবে-প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ  » «   ছাতকে অধ্যক্ষ অপসারণের দাবীতে সড়ক অবরোধ করেছে ছাত্রলীগ  » «   দোয়ারাবাজারে বিজিবি’র অভিযানে চৌদ্দ লক্ষ টাকা উদ্ধার  » «   দোয়ারাবাজারে চিলাই নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন! ২টিড্রেজার মেশিনসহ বালু জব্দ  » «   কুলাউড়ায় ৩ কেজি গাঁজাসহ ১জনকে আটক করেছে পুলিশ  » «   প্রধানমন্ত্রীর নতুন স্বপ্ন স্মার্ট বাংলাদেশে কেউ পিছিয়ে থাকবেনা : জেলা প্রশাসক  » «   শীত বস্ত্র কম্বল বিতরণ করেছে মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি  » «  

এবার ১৪০০ অভিবাসী উদ্ধার, এর মধ্যে ৫৫৫ জন বাংলাদেশি

9সিলেটপোস্ট রিপোর্ট : পুলিশের ভাষ্য, মিয়ানমার ও বাংলাদেশের এক হাজারের বেশি অভিবাসী মালয়েশিয়ার উপকূলে আসেন। মানব পাচারকারীরা এই অভিবাসীদের পর্যটন দ্বীপ লাংকাবির উপকূলের অগভীর জলে ফেলে মালয়েশিয়ার পর্যটন দ্বীপ লাংকাবির একটি আশ্রয়কেন্দ্রে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের একাংশ -ইন্টারনেটইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার সমুদ্র উপকূলে চারটি নৌযান থেকে সোমবার প্রায় এক হাজার ৪০০ অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়েছে। কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে জানানো হয়, উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের মধ্যে ৫৫৫ জন বাংলাদেশি এবং বাকিরা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিম। রোববার ইন্দোনেশিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আচেহ প্রদেশের সমুদ্র উপকূলে এক নৌযান থেকে প্রায় ৬০০ বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়। এর পরদিনই বিপুলসংখ্যক অভিবাসী উদ্ধারের ঘটনা ঘটল। সোমবার যে চারটি নৌযান থেকে সহস্রাধিক অভিবাসী উদ্ধার হয়েছে, সেগুলো পরিত্যক্ত ছিল বলে কর্মকর্তাদের ভাষ্য। এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্র উপকূল থেকে গতকাল পৃথকভাবে এই এক হাজার ৪০০ অভিবাসী উদ্ধার হয়েছেন।মিয়ানমার ও বাংলাদেশের এক হাজারের বেশি অভিবাসী মালয়েশিয়ার উপকূলে আসেন। মানবপাচারকারীরা এই অভিবাসীদের পর্যটন দ্বীপ লাংকাবির উপকূলের অগভীর জলে ফেলে যান। লাংকাবির উপপুলিশ প্রধান জামিল আহমেদ বলেন, ‘আমাদের ধারণা, তিনটি নৌযানে এক হাজার ১৮ জন অভিবাসী ছিলেন।’ অভিবাসীদের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে উল্লেখ করেন লাংকাবি পুলিশের এই কর্মকর্তা। ইন্দোনেশিয়ায় উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের সম্পর্কে আচেহের প্রাদেশিক উদ্ধার ও অনুসন্ধান বিভাগের প্রধান বুদিওয়ান বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, সোমবার খুব ভোরে উত্তর আচেহের উপকূলে অভিবাসীবাহী একটি ভাসমান নৌযান আবিষ্কার করে ইন্দোনেশিয়ার অনুসন্ধান ও উদ্ধার দল। নৌযানটিতে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের নারী, পুরুষ ও শিশু মিলিয়ে ৪০০ জন অভিবাসী ছিলেন। উপকূলে আরো অভিবাসী আসতে পারেন বলে ধারণা কর্তৃপক্ষের। এ জন্য ইন্দোনেশিয়ার দূরবর্তী পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশের উপকূলে টহলে সহায়তার জন্য মৎস্যজীবীদের নিয়োগ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে আচেহের প্রাদেশিক উদ্ধার ও অনুসন্ধান বিভাগের প্রধান বুদিওয়ান বলেন, ‘সংকেত পাওয়ামাত্র তাদের (অভিবাসী) উদ্ধার করতে আমরা তৎপর ও প্রস্তুত রয়েছি।’ রোববার ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্র উপকূলে উদ্ধার হওয়া কয়েকশ অভিবাসী সম্পর্কে বলা হচ্ছে, মুক্তিপণ আদায় শেষে থাইল্যান্ডের গভীর জঙ্গলে পাচারকারীদের কবলে থাকা বন্দিশিবির থেকে তাদের ইন্দোনেশিয়ার দিকে পাঠিয়ে দেয়া হয়। একটি গণমাধ্যমে ওই অভিবাসীদের রোহিঙ্গা বলে উল্লেখ করা হয়। এদিকে মালয়েশিয়ার মালাক্কা প্রণালিতে সাত-আট হাজার বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা অভিবাসী আটকে রয়েছেন বলে জানিয়েছে একাধিক বার্তা সংস্থা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.