সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে মাদক সেবনের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৪ জনের সাজা  » «   বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন  » «   দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «  

বিয়েতে টয়লেট যৌতুক !

0063সিলেটপোস্টরিপোর্ট:  হনাগাটির প্রতি মেয়েদের আকর্ষণ চিরকালীন৷‌ এক টুকরো সোনা দেখিয়ে নারীর মন জয় করেছে কত পুরুষ৷‌ সেই আকর্ষণকে তুরি মেরে উড়িয়ে দিল মহারাষ্ট্রের আকোলার চৈতালি ডি গোখলে৷‌ গহনাগাটি, টাকাকড়ি দিয়ে মেয়েকে বিদায় করে থাকে বাবা-মা৷‌ চৈতালি এসব চায়নি৷‌ তার একটাই দাবি, বরের বাড়িতে টয়লেট বানিয়ে দিতে হবে বাবা-মাকে৷‌ কেননা হবু পাত্রের বাড়িতে তখনও টয়লেট ছিল না৷‌ আকোলার এক কৃষক কন্যার দাবিতে সাড়া পড়ে যায়৷‌ অবশেষে তার জেদের কাছে আত্মসমর্পণ করে তার বাবা৷‌ বরের বাড়িতে ১২ হাজার টাকা খরচ করে বসানো হয় আধুনিক টয়লেট৷‌ সঙ্গে বেসিন এবং আয়না৷‌ তবে তাঁর দাবি মানাতে রীতিমত যুদ্ধ করতে হয়েছে চৈতালিকে৷‌ তার কথায়, ‘আমার টেলিভিশন, ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন বা গয়না গাটিতে কোনও আগ্রহ নেই৷‌ আমার একটি টয়লেট চাই৷‌ ওটাই আমার যৌতুক৷‌’ প্রথমে তার কথা হেসেই উড়িয়ে দিয়েছিল তার বাবা৷‌ তবে মেয়ের ‘সুখে’র কথা ভেবে হার মানতে হয়৷‌ এগিয়ে আসে স্হানীয় ইমারতি দ্রব্য বিক্রেতা৷‌ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ‘স্বচ্ছ ভারত অভিযান’ প্রকল্পে অনুপ্রাণিত বিক্রেতা লাভ না রেখে জিনিসপত্র সরবরাহ করেছেন৷‌ তাই খরচ কমে গিয়ে ১৮ হাজার থেকে ১২ হাজারে৷‌ বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির ছিল অনেক কিশোরীই৷‌ অনেকের সামনেই বিয়ে৷‌ চৈতালির প্রতিবাদ পথ দেখিয়েছে তাদের৷‌ তারাও এখন বিয়েতে টয়লেট দাবি করবে বলে জানিয়েছে৷‌

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.