সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «   তাহিরপুরে রাতের আঁধারে কৃষকের জমির ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লাঠিয়াল বাহিনী   » «   ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৭, আশংখাজনক ভাবে ৫জনকে সিলেট প্রেরন  » «  

ভারতের গয়ায় ৩২টি গাড়িতে আগুন মাওবাদীদের

32সিলেট পোস্ট রিপোর্ট:  সার দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা একের পর এক গাড়িতে জ্বলছে আগুন। জ্বলছে তেলের ট্যাঙ্কার, এমনকী এলপিজি সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাকও। আতঙ্কে এলাকা ছেড়ে পালাচ্ছে সবাই। মাওবাদীদের ডাকা দু’দিনের ভারতের বিহার-ঝাড়খণ্ড বন্ধের প্রথম দিন এমন ঘটনার সাক্ষী থাকল বিহারের গয়া।

সোমবার গয়ার কাছে বিষ্ণুপুর এবং তারাডিহি গ্রামের মাঝে জিটি রোডের উপর এই হামলা চালায় মাওবাদীরা। পটনা পুলিশের আইজি কুন্দন কৃষ্ণান জানান, ২ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর ৩২টি গাড়িতে প্রায় ৫০ জনের একটি মাওবাদী দল আগুন লাগিয়ে দেয়। এর মধ্যে এলপিজি সিলিন্ডার বোঝাই চারটি ট্রাক ছিল। ছিল একটি তেলের ট্যাঙ্কারও। তবে এই পাঁচটি গাড়ির চালকের কেবিনে আগুন লাগানো হয়। কোনো ভাবে তা পিছনের অংশে ছড়িয়ে পড়েনি বলে বড়সড় দুর্ঘটনা ঘটেনি বলে কৃষ্ণাণের দাবি। যাত্রিবাহী গাড়িগুলি থেকে প্রথমে তারা যাত্রীদের নামিয়ে দেয় বলেও কোনও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

গত ১৬ মে সিআরপিএফ-এর সঙ্গে সংঘর্ষে মাওবাদী নেত্রী সরিতা ওরফে ঊর্মিলা গাঞ্জু নিহত হন। তিনি মাওবাদীদের বিহার-ঝাড়খণ্ড-ছত্তীসগঢ় বিশেষ আঞ্চলিক কমিটির সদস্য ছিলেন। সেই ঘটনার প্রতিবাদে সোম এবং মঙ্গলবার দু’দিনের জন্য বিহার-ঝাড়খণ্ড বন্ধের ডাক দেয় তারা। কিন্তু বন্ধ শুরুর দিনই বড়সড় হামলা চালানোয় প্রশাসনের কপালে ভাঁজ দেখা দিয়েছে।

অন্য দিকে, বিহারের সারন জেলার পানাপুরে একটি মোবাইল টাওয়ার উড়িয়ে দিয়েছে সশস্ত্র মাওবাদীরা।– সংবাদসংস্থা

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.