সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে মাদক সেবনের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৪ জনের সাজা  » «   বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন  » «   দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «  

হবিগঞ্জের ৫টি পৌরসভায় তিন মেয়রসহ ১৬ জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল- ৩ দিনের মধ্যে আপিল করতে পারবেন

99সিলেটপোস্ট রিপোর্ট :হবিগঞ্জের ৫টি পৌরসভা নির্বাচনে ৩ মেয়রসহ ১৬ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। গতকাল রবিবার মনোনয়ন পত্র বাচাই-বাছাইয়ের শেষ দিনে বাতিলকৃত প্রার্থীদের নির্বাচনী হলফ নামায় ভোটার তালিকার নাম্বার, নামের ভুল, ঋণ খিলাপী ও নির্বাচনী আয় ব্যায়সহ কাগজপত্রে ত্র“টি থাকায় তাদের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়। মেয়র পদে বাতিলকৃত প্রার্থীরা হলেন, চুনারুঘাট পৌর সভার স্বতন্ত্র পার্থী ইফতেখারুল গণি ও মীর সায়েব আলী। হবিগঞ্জ পৌর সভায় ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রার্থী আব্দুল কাদির। বাতিলকৃত কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে, হবিগঞ্জ পৌর সভায় ৫ জনের মনোনয়ন পত্র বাতিল করা  হয়। তারা হলেন, রেজিয়া সুলতানা, অর্পনা বালা পাল, সুহেল আহমেদ, শেখ আব্দুল হান্নান ও সিতেশ চন্দ্র দাস। শায়েস্তাগঞ্জ পৌর সভায় তুলনা আক্তার চৌধুরী। এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ জেলা রিটার্নিং অফিসার শফিউল আলম জানান, কাগজপত্রে প্রার্থীদের ত্র“টি থাকার কারণে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে। উল্লেখ্য, হবিগঞ্জের ৫টি পৌর সভায় মেয়র পদে ২৬ জন, কাউন্সিলর পদে ২১৩ জন ও মহিলা সংরক্ষিত পদে ৫৫ জন মানোনয়ন পত্র দাখিল করেন। আমাদের মাধবপুর প্রতিনিধি অলিদ মিয়া জানান, মাধবপুর পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাছাই বাছাইয়ে ২ জন কাউন্সিলর ও ১ জন সংরক্ষিত আসনের সদস্য (মহিলা কাউন্সিলরের) মনোনয়নপত্র বাতিল করেছে নির্বাচন কর্মকর্তা। গতকাল রোববার মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ে ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী বাবুল মিয়ার হলফনামাই স্বাক্ষর না থাকায় ও ৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী এমদাদুর রহমান ফেরদৌস ঋন খেলাপি হওয়ায় দুইজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। অপরদিকে ১,২,৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের সদস্য(মহিলা কাউন্সিলর) দেলোয়ার আক্তার হেনার ক্রটি থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান  জানান, ৩ জনের মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন আপিলের সুযোগ রয়েছে। তারা ৩ দিনের মধ্যে আপিল করতে পারবেন।আমাদের নবীগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, নবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৪ জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাচাই শেষে বাতিল করা হয়েছে। বিভিন্ন ব্যাংকে ঋন খেলাপির দায়ে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১ জন ও সাধারন কাউন্সিলর পদে ৩ জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। গতকাল রবিবার সকালে সকালে মেয়র, সংরক্ষিত কাউন্সিলর ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাচাই এর ফল ঘোষনা করেন হবিগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও নবীগঞ্জ রির্টানিং অফিসার মোঃ বেলায়েত হোসেন। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ ও নবীগঞ্জ নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ আবু সাঈম উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ ব্যাংকে ঋণ খেলাপি আছেন মর্মে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত পৃথক নোটিশের কারণে পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুস সালাম ও নুর মিয়ার মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষনা করেছেন নির্বাচন কমিশন। এ সময় ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী হাফিজ নিয়ামুল হকের নাম ঘোষনার সময় অগ্রণী ব্যাংকের  জনৈক কর্মকর্তা উপস্থিত হয়ে হাফিজ নিয়ামুল হক ঋনের জামিনদার আছেন মর্মে একটি লিখিত ডকুমেন্ট দেন পরে নির্বাচন কমিশন তার মনোনয়ন পত্র বাতিল করে দেয়। অপর দিকে একই সময় সংরক্ষিত ৪,৫ ও ৬ নং আসনের কাউন্সিলর প্রার্থী রুকেয়া বেগমের নাম ঘোষণা কালে অগ্রণী ব্যাংকের এক কর্মকর্তার আপত্তি জানান। তাদের ব্যাংকে রুকেয়া ২০১০ সালের একটি ঋণে খেলাপি হন মর্মে একটি লিখিত দেন যার কারণে নির্বাচন কমিশন তার মনোনয়ন বাতিল করেন।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.