সংবাদ শিরোনাম
ফেসবুকে প্রেম করে ছাত্র মামুনকে বিয়ে করে সুখের সংসার গড়া সেই শিক্ষিকার লাশ উদ্ধার  » «   আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নির্মাণে অনিয়ম: ঘটনা টের পেয়ে রাতের আধারেই ঘরগুলো ভাঙ্গলো প্রশাসন   » «   আউশকান্দিতে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে আগ্নেয়াস্ত্র সহ ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ  » «   আওয়ামীলীগের লুটপাটের কারনে দেশে দুর্ভিক্ষ চলছে-সিলেট মহানগর বিএনপি  » «   এডিশন্যাল ডি আই জি কে জেলা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের বিদায় সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট প্রদান  » «   আউশকান্দি কলেজিয়েট স্কুলে বখাটেদের উৎপাত বেড়ে গেছে!ছাত্রী ও অভিভাবকরা আতংকিত  » «   সুনামগঞ্জ জেলা ও দিরাই উপজেলা শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে দুদকে ঘুষ-দূর্নীতি ও অর্থ কেলেংকারীর অভিযোগ   » «   মাস খানেক পরই বিদ্যুৎ ঘাটতিসহ সবকিছুই ঠিক হয়ে যাবে-পরিকল্পনা মন্ত্রী মান্নান  » «   ওসমানীনগরে পরিমাপে পেট্রোল কম দেয়ায় সুপ্রীম ও আবীর ফিলিং স্টেশনকে জরিমানা  » «   জগন্নাথপুরে এক কৃষক হত্যা মামলায় ১ জনের আমৃত্যু ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড  » «   সিলেটের ওসমানীনগরে মা-মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ  » «   জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির অযৌক্তিক সিদ্বান্ত-বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল  » «   দেশের সংকট নিরসনের জন্য আওয়ামীলীগকে বিতাড়িত করার বিকল্প নেই :খন্দকার মুক্তাদির  » «   চুনারুঘাটে ছেলের হাতে মা খুন,ছেলে আটক  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২  » «  

সুরমা’র প্রাণ সংহারে সিসিক

1সিলেটপোস্ট রিপোর্ট :সুরমা নদীর তীরে, আমার ঠিকানারে…গণমানুষের কবি দিলওয়ারের এ গানটি কি বৃথা যেতে চলেছে। গণ মানুষের কবির ঠিকানার নিশানা সুরমা নদী বাঁচাতে একদিকে আন্দোলন চললেও প্রতিনিয়ত এর প্রাণ সংহারে সিলেট সিটি করপোরেশনের ময়লা ফেলার কারণে বিপন্ন হতে চলেছে এ নদীটির অস্তিত্ব। এমনিতেই খননেন অভাবে সুরম্য সুরমা নদী তার সৌন্দর্য্য হারিয়ে ফেলতে চলেছে, পাশাপাশি ‘মরার উপর খাড়ার ঘা’ হিসেবে সিসিক আবির্ভূত হয়েছে। সুরমা নদী সংলগ্ন নগরীর ছড়ারপারে গোয়ালী ছড়ায় সিসিকের বর্জ্য ফেলার কারণে তা সরাসরি গিয়ে মিশছে সুরমার স্বচ্ছ জলধারায়। ফলে নদীর পরিবেশ-প্রতিবেশ পড়ছে হুমকি মুখে। তবে সিটি করপোরেশন বলছে, গোয়ালী ছড়ায় আবর্জনা ফেলার বিষয়টি তাদের জানা নেই।

ছড়ারপারের স্থানীয়রা জানান, সিলেট সিটি করপোরেশনের বর্জ্যবাহী ভ্যানগুলো নগরীর বিভিন্ন ডাস্টবিন থেকে ময়লা সংগ্রহ করে ছড়ারপারে গোয়ালী ছড়ায় নিয়ে ফেলা হচ্ছে। গোয়ালী ছড়ায় ময়লা আবর্জনা ফেলার কারণে এখানকার পরিবেশ হুমকির মুখে পড়ছে। আবর্জনার দুর্গন্ধে আশপাশের বাসিন্দাদের বাসাবাড়িতে থাকা দায় হলেও এ ব্যাপারে সিসিক উদাসীন। নগরজুড়ে থাকা ময়লা আবর্জনা আবাসিক এলাকায় ফেলা কতোটা যুক্তিসংগত তারও প্রশ্ন তুলছেন এলাকাবাসী।
সরেজমিনে ছড়ারপারে গিয়ে দেখা যায়, ছড়ারপারে ইট-সিমেন্টের ঢালাই দেয়া অনেকটা ডাস্টবিন টাইপ জায়গায় সিসিকের বর্জ্যবাহী ভ্যান সংগৃহীত আবর্জনা ফেলছে। আর এ আবর্জনা সরাসরি চলে যাচ্ছে ছড়ায়। আবর্জনা ভাসছে ছড়ার পানি। আর এ ময়লা ছড়ায় ফেলে দেওয়ার কারণে সরাসরি চলে যাচ্ছে সুরমা নদীতে। এতে করে ছড়ার পরিবেশ-প্রতিবেশ ধ্বংসের পাশাপাশি সুরমা নদীতেও একই প্রভাব পড়ছে। এছাড়া ছড়ায় পলিথিনসহ অন্যান্য অপচনশীল বর্জ্য ফেলার কারণে ভরাট হয়ে গেছে ছড়াটি। ফলে অল্প বৃষ্টিতেই এ ছড়ার পানি দু’কূল উপচে ঢুকে পড়ছে পার্শ্ববর্তী বাসাবাড়িতে। আবর্জনাযুক্ত ছড়ার পানি বাসাবাড়িতে ঢুকে পড়ায় বিপাকে পড়ছেন স্থানীয় অধিবাসীরা।
এ ব্যাপারে স্থানীয় বাসিন্দা রাহাত জানান, ছড়ায় সিসিকের ময়লা ফেলার কারণে এলাকায় দুর্গন্ধে বসবাস করা দায় হয়ে পড়েছে। আমরা বার বার সিসিককে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানালেও তারা উদাসীন। ছড়ায় বর্জ্য ফেলায় তা সরাসরি সুরমা নদীতে গিয়ে পড়ছে। ফলে ছড়ার প্রায় আধা কিলোমিটার এলাকাসহ সুরমা নদীও হুমকির মুখে পড়েছে।
বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) সমন্বয়ক শাহ সাহেদা বলেন, প্রচলিত পরিবেশ আইনে জলাধার কিংবা নদী ভরাট দন্ডনীয় অপরাধ। জলাধার কিংবা নদীতে কোনো কিছু ফেলে ভরাট করলে সামগ্রীক পরিবেশ ও পানি দূষিত হয়। সুরমা নদী সিলেটের হৃদপিন্ডের স্পন্দন। ঐতিহ্যবাহী এ নদীর পরিবেশ প্রতিবেশ হুমকির মুখে পড়লে শুধু সিলেট নয়, সুনামগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জেলাও ক্ষতিগ্রস্থ হবে। গোয়ালিছড়ায় ময়লা আবর্জনা ফেলা বন্ধ না করলে পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হবে।
সিলেট সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীন বলেন, সিসিক কর্তৃপক্ষ ছড়া উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে। যাতে এর পরিবেশ সুন্দর ও জীববৈচিত্র্যের বাসোপযোগী হয়। আমরাও এ ব্যাপারে সর্ব্বোচ্চ চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। গোয়ালিছড়ায় আবর্জনা ফেলা বন্ধে উদ্যেগ নেওয়া হবে।
সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব বলেন, গোয়ালিছড়ায় ময়লা ফেলার বিষয়টি আমার জানা নেই। আমি এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেবো। কারণ আমরা নগরীর সকল ছড়ার প্রতিবন্ধকতা উচ্ছেদ করে ছড়াগুলোর প্রবাহ নিশ্চিত করার চেষ্ঠা করছি। সুরমা নদী বেঁচে থাকুক এটা আমরা সবাই চাই। এ নদীর ক্ষতি হয়, এমন কোনো কাজ কাউকে করতে দেওয়া হবে না।
পরে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে এ প্রতিবেদকের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেন সিলেট সিটি করপোরেশনের কনজারভেটিভ অফিসার হানিফুর রহমান। তিনি জানান, সিলেট সিটি করপোরেশনের নিজস্ব কোনো ভ্যান নেই। বিভিন্ন কাউন্সিলরদের ভ্যান রয়েছে। বর্জ্যবাহী এ সকল ভ্যানকে নির্দ্দিষ্ট সময়ে কয়েকটি স্থানে ট্রাকে বর্জ্য তুলে দেওয়ার নির্দেশনা রয়েছে। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে দায়িদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সৌজন্যে

সকালের খবর

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.