সংবাদ শিরোনাম
সিলেটে রাহাত খুনের ব্যবহৃত চাকুটি উদ্ধার করেছে সিআইডি  » «   চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ সুমন মিয়া’র মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত  » «   দক্ষিণ সুরমা কলেজছাত্র রাহাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাদি কুষ্টিয়া থেকে গ্রেফতার  » «   হবিগঞ্জের মাধবপুরে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত  » «   খালেদা জিয়া আইসিইউতে  » «   আজ খুলে দেওয়া হয়েছে সিলেটের “শাবিপ্রবির” সকল আবাসিক হল  » «   সিলেটে দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ:নিহত ১  » «   সিলেটে নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকে পরে নিহত ১ আহত আরেকজন  » «   সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট এবং দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতে আওয়ামীলীগ সরকারকে পদত্যাগ জরুরী-মির্জা ফখরুল  » «   আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে কোনো সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়-সিলেটে ফখরুল  » «   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের ছয় লেন কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   জগন্নাথপুরে বিষপানে মহিলার মৃত্যু  » «   ফেসবুকে ঈসলাম ও নবী মোহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য :দোয়ারাবাজারে হিন্দু যুবক আটক  » «   ঘোড়ায় চড়ে বর ও পালকিতে করে বউ ব্যতিক্রমী বিয়ের আয়োজন কুলাউড়ায়  » «   ভারতের কৈলাশহর কারাগারে মৌলভীবাজারের ২ সহোদর ফিরিয়ে আনতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা  » «  

মরদেহের ছবি দেখে ফজলে রাব্বিকে চিনেছেন মা

3সিলেটপোস্ট রিপোর্ট:নারায়ণগঞ্জে পুলিশের অভিযানে নিহতদের একজনের মরদেহের ছবি দেখে যশোরের এক দম্পতি নিশ্চিত করেছেন, এটি তাদের ৫ মাস আগে নিখোঁজ হওয়া ছেলে ফজলে রাব্বি।

সে ছিল যশোরের মাইকেল মধুসূদন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের পদার্থ বিজ্ঞানের ছাত্র।

নারায়ণগঞ্জে গতকাল (শনিবার) পুলিশের অভিযানে নিহত তিন অভিযুক্ত জঙ্গির মধ্যে একজন গুলশান হামলার পরিকল্পনাকারী তামিম চৌধুরী বলে পুলিশ উল্লেখ করলেও বাকী দুজনের পরিচয় এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।4

নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মঈনুল হক দুপুরে বলেছেন, “তাদের পরিচয় অফিশিয়ালি আমরা জানিনি এখনো। এই মুহূর্তে তাদের পোস্ট মর্টেম (ময়না তদন্ত) চলছে”।

তবে যশোরের কোতওয়ালি থানার কিসমত নওয়াপাড়া এলাকার একটি পরিবার জানাচ্ছে, নিহত বাকি দুজনের একজন তাদের পরিবারেরই ছেলে ফজলে রাব্বি বলে নিশ্চিত হয়েছেন তারা।

বিবিসি
এই বাড়ীতে ভাড়া ছিলেন তারা

এই পরিবারের একজন আত্মীয় যিনি নিজেকে ফজলে রাব্বির মামা বলে পরিচয় দিচ্ছিলেন, তিনি বলেন, “পত্রিকায় ছবি দেখে আমি ভাল চিনতে পারলাম না। আমি যখন দেখিছি তখন হালকা দাড়ি ছিল, কিন্তু নাক-টাক দেখে ওর আম্মু বলতেছে এটা ফজলে রাব্বি”।

এই ব্যক্তিটি বলছিলেন, তিনি সবশেষ ফজলে রাব্বিকে দেখেছিলেন গত বছর কোরবানির ঈদে।

সে নিয়মিত নামা-রোজা করত এবং একবার তিনদিনের জন্য তাবলীগে গিয়েছিল। যশোর মাইকেল মধুসূদন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিল সে।

পাঁচ মাস আগে এক সন্ধ্যায় প্রাইভেট টিউটরের কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সে।

এসময় বাড়িতে শুধু তার ছোটবোন ছিল। তাকে কোন কিছু না বলেই চলে যায়।

এরপর তাকে বহু খোঁজাখুঁজি করা হয়েছে, জাতীয় পত্রিকায় নিখোঁজ বিজ্ঞাপন দেয়া হয়েছে, থানায় জিডি করা হয়েছে, বলছিলেন ফজলে রাব্বির মামা।

যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বিবিসিকে বলেছেন, প্রাথমিকভাবে তারা নিশ্চিত হয়েছেন যে ফজলে রাব্বিই নারায়ণগঞ্জে নিহত তিন অভিযুক্ত জঙ্গির একজন।

কিন্তু শতভাগ নিশ্চিত হওয়ার জন্য তারা আরো তথ্য সংগ্রহ করছেন বলে জানান।

দুই মাস আগে যশোর পুলিশ জঙ্গি সন্দেহে যে পাঁচ জনের ছবি প্রকাশ করে তার মধ্যে এই ফজলে রাব্বির ছবি ছিল বলে উল্লেখ করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

ফজলে রাব্বির বাবা কাজী হাবিবুল্লাহ যশোর উপশহর ডিগ্রি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ। এখন অবসর জীবন যাপন করছেন।

তার সঙ্গে টেলিফোনে খুব সামান্য কথা বলবার সুযোগ হয়। তিনি বলেন, তার ছেলে প্রকৌশলবিদ্যায় পড়তে চেয়েছিল, কিন্তু তিনি অর্থসংস্থান করতে না পেরে তাকে এমএম কলেজে ভর্তি করান।

এতে ছেলে তার উপর মন:ক্ষুণ্ণ ছিল। এই রাগ থেকেই ছেলে বাড়ি থেকে চলে গিয়েছিল বলে তার ধারণা ছিল এতদিন।

“সে ধর্মপ্রাণ ছিল। কিন্তু এমন কিছুর সাথে জড়িয়ে গেছে এটা কখনো বোঝা যায়নি”, বলছিলেন মি. হাবিবুল্লাহ।

এই পরিবারটি জানাচ্ছে, তার শেষকৃত্যের জন্য ছেলের মৃতদেহ ফিরিয়ে নিতে চান, কিন্তু এজন্য কি প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হবে তা তাদের জানা নেই।

তারা এজন্য কোন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেননি এবং পুলিশের তরফ থেকেও এ ব্যাপারে তাদের সাথে যোগাযোগ করা হয়নি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.