সংবাদ শিরোনাম
সিলেটে রাহাত খুনের ব্যবহৃত চাকুটি উদ্ধার করেছে সিআইডি  » «   চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ সুমন মিয়া’র মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত  » «   দক্ষিণ সুরমা কলেজছাত্র রাহাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাদি কুষ্টিয়া থেকে গ্রেফতার  » «   হবিগঞ্জের মাধবপুরে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত  » «   খালেদা জিয়া আইসিইউতে  » «   আজ খুলে দেওয়া হয়েছে সিলেটের “শাবিপ্রবির” সকল আবাসিক হল  » «   সিলেটে দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ:নিহত ১  » «   সিলেটে নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকে পরে নিহত ১ আহত আরেকজন  » «   সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট এবং দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতে আওয়ামীলীগ সরকারকে পদত্যাগ জরুরী-মির্জা ফখরুল  » «   আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে কোনো সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়-সিলেটে ফখরুল  » «   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের ছয় লেন কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   জগন্নাথপুরে বিষপানে মহিলার মৃত্যু  » «   ফেসবুকে ঈসলাম ও নবী মোহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য :দোয়ারাবাজারে হিন্দু যুবক আটক  » «   ঘোড়ায় চড়ে বর ও পালকিতে করে বউ ব্যতিক্রমী বিয়ের আয়োজন কুলাউড়ায়  » «   ভারতের কৈলাশহর কারাগারে মৌলভীবাজারের ২ সহোদর ফিরিয়ে আনতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা  » «  

স্বামীকে শিক্ষা দিতে অপহরণের নাটক স্ত্রীর!

14সিলেটপোস্ট রিপোর্ট:স্বামীকে উচিত শিক্ষা দিতে চেয়েছিলেন ভারতীয় তরুণী। এজন্য পুরো ছক সাজিয়ে ফেলেছিলেন টেলিভিশনের ক্রাইম সিরিজ দেখে। নিজেকে অপহরণ করে নিজের স্বামীর কাছেই চেয়েছিলেন ১০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। ধরা পড়ে গেলেন মুম্বাই পুলিশের হাতে৷

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২৯ বছরের ওই নারী স্বামীর সঙ্গে কোচিং সেন্টার চালাতেন। কয়েকদিন আগেই দুপুর একটার দিকে তিনি ঘর থেকে কোচিংয়ে ক্লাস করানোর উদ্দেশে বেরিয়েছিলেন। ঘণ্টাখানেক পর নারীর স্বামী একটি হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ পান। যাতে মুখ বাঁধা অবস্থার তার স্ত্রীর অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকার একটি ছবি ছিল। ঠিক ১৫ মিনিটের ব্যবধানে আরও একটি মেসেজে মুক্তিপণ হিসেবে ১০ লক্ষ টাকা দাবি করা হয়েছিল।

স্ত্রীর অপহরণের মেসেজ পেয়েই পুলিশের কাছে যান স্বামী। ঘটনার তদন্তে নেমে নারীর যাত্রাপথের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে পুলিশ। যাতে তাকে পার্শ্ববর্তী একটি রেলস্টেশনের কাছে একা ঘোরাফেরা করতে দেখতে পাওয়া যায়। এরপরই মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে রহস্যের সমাধান করে মুম্বাই পুলিশ। পুলিশের জেরার মুখে নিজের এই কীর্তির কথা স্বীকার করে নেন ওই নারী। তার অভিযোগ, যৌথভাবে কোচিং সেন্টার চালানোর পরও স্বামী ঠিকঠাক লভ্যাংশ দেন না। সেই জন্যই এই পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি। কোন পুলিশি অভিযোগ অবশ্য দায়ের করা হয়নি শেষ পর্যন্ত। তাই গ্রেফতার করা হয়নি তাকে।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.