সংবাদ শিরোনাম
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে হামলা ও লুটপাঠের ঘটনায় দাঙ্গাবাজ কনর মিয়া ও কবির মিয়ার ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড  » «   ওসমানীনগরে হামলা চালিয়ে প্রবাসীর বসতঘর দখলের অভিযোগ  » «   দোয়ারাবাজারে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষ, আহত ৬  » «   সিলেটের ওসমানীনগরে চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার, আটক ১  » «   দেশে আধুনিক ক্রীড়ার রূপকার ছিলেন শহীদ শেখ কামাল: প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   দক্ষিণ সুরমায় মেয়েকে ফিরে পেতে এক পিতার আকুতি  » «   বানারীপাড়ায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক দূর্দান্ত প্রতারক রঞ্জন গ্রেফতার  » «   দক্ষিন সুরমার সুলতানপুর-গহরপুর সড়কে দুর্ঘটনায় নিহত ৩  » «   সাংবাদিক অজয় পালের প্রতিকৃতিতে সিলেটের সর্বস্থরের নাগরিকদের শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’ শেরপুরে হাজারো মানুষের ঢল  » «   দক্ষিণ সুমরার বাইপাস এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত  » «   আমাদের দেশের শিক্ষার্থীরা আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন হয়ে গড়ে উঠছে: মন্ত্রী ইমরান  » «   আওয়ামীলীগের বিদায় নিশ্চিত করে দেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্টা করতে হবে :কাইয়ুম চৌধুরী  » «   অবকাঠামো উন্নয়ন এর মাধ্যমে দেশ গড়ার কাজ করতে হবে-প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ  » «   ছাতকে অধ্যক্ষ অপসারণের দাবীতে সড়ক অবরোধ করেছে ছাত্রলীগ  » «  

গরুর পাশাপাশি কসাইও পাওয়া যাচ্ছে অনলাইনে

6সিলেটপোস্ট রিপোর্ট:বর্তমানে অনেকেই ঝামেলা এড়িয়ে কোরবানীর পশু কিনতে চান। ঝামেলা পোহাতে চান না এমন ক্রেতাদের জন্য ভার্চুয়াল হাটে বসে পছন্দ ও বাজেট অনুযায়ী ঘরে বসেই কোরবানির পশু কেনার সুযোগ দিচ্ছে বিভিন্ন ই-কমার্স সাইট। হাট থেকে গরু কিনে আনা ও কয়েক দিন বাড়িতে লালন-পালন করার কোনো ঝামেলাই থাকছে না। অনলাইনে বুকিং দিয়ে কিছু অগ্রিম অর্থ পরিশোধ করলে নির্দিষ্ট সময়ে বাড়িতে গরু পৌঁছে দেবে অনলাইনে গরু বিক্রির প্রতিষ্ঠানগুলো। আমার দেশ ই-শপ নামের একটি প্রতিষ্ঠান অন্য সব পণ্যের পাশাপাশি ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির গরু বেচাকেনা করছে।
আমার দেশ ই-শপের প্রতিষ্ঠাতা আতাউর রহমান বলেন, আমাদের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন আকারের গরুর ছবিসহ দাম উল্লেখ করা রয়েছে। যে কেউ চাইলে এখান থেকে গরু কিনতে পারেন।’ তিনি জানান, গ্রাহকরা নরসিংদী, টাঙ্গাইল,গাইবান্ধার গরু বেশি পছন্দ করছে। তারা অনলাইনে ছবি দেখে অর্ডার করছে। গত বছর আমার দেশ ই-শপ ২৯টি গরু বিক্রি করেছে। এ বছর এর চাহিদা কয়েক গুণ বেড়ে গেছে। গ্রাহকরা ঈদের একদিন বা দুইদিন আগে গরুগুলো তাদের হাতে পেতে চায়।
আতাউর রহমান আরও বলেন, ‘আমরা গ্রাহকের চাহিদ অনুযায়ী তাদের বাড়িতে গরু পৌঁছে দিচ্ছি। আর এ জন্য আড়াই থেকে তিন হাজার টাকা সার্ভিস চার্জ নিচ্ছি। কোনো মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমে নয়, আমরা কৃষক বা গৃহস্থকে সরাসরি বাজার সুবিধা দিতে চাই। ক্রেতার সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করিয়ে দিতে চাই, যাতে তারা ন্যায্যমূল্য পান।’
অনেকেই অভিযোগ করেন যে অনলাইন শপগুলো যা দেখায় তা দেয় না। এ সম্পর্কে আতাউর রহমান বলেন, ‘আমরা যা বলি তা-ই গ্রাহককে  দেই। আজ পর্যন্ত কোনো গ্রাহক এ ধরনের অভিযোগ করেনি। তবে অনেক ক্রেতারা গরুর সাইজ দেখে ধারণা করতে পারে না এই গরুতে কতটুকু মাংস হতে পারে। সেক্ষেত্রে একটু ভুল ও দ্বিমত থাকতে পারে। আমাদের  দেশি গরু ইন্ডিয়ান গরুর তুলনায় মোটাতাজা নয়। আমাদের দেশের গরুগুলো একটু চাপা টাইপের হলেও মাংস অনেক বেশি হয়।’ কোন ধরনের গ্রাহকরা অনলাইন থেকে গরু কিনছেন এমন প্রশ্নের জবাবে আতাউর রহমান বলেন, ‘আমাদের এখানে বিভিন্ন ধরনের ক্রেতাই আছে তবে প্রবাসী ক্রেতা বেশি। তারা বিদেশ থেকে অনলাইনে গরুর ছবি দেখে অর্ডার করেন। তাদের চাহিদা মোতাবেক আমরা গরুগুলো তাদের গন্তব্যে পৌঁছে দেই।’
বিক্রয় ডটকমের মার্কেটিং ডিরেক্টর মিশা আলি জানান, অনলাইনে গরু বিক্রি বেশ জমে উঠেছে। ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী বিক্রেতার সাথে সরাসরি যোগাযোগের ব্যবস্থাও রয়েছে বিক্রয় ডটকমে। তিনি বলেন, ‘এ বছর থেকে আমরা কসাই সার্ভিস দিচ্ছি। অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে প্রতি হাজারে ১’শ পঞ্চাশ, ২’শ এবং আড়াই’শ টাকা হিসেবে কসাই সার্ভিস দিচ্ছি। বাজার থেকে ক্রেতাদের গরু বাসায় পৌঁছে দেওয়ার সার্ভিস আমাদের আগে থেকেই চালু ছিল। এ ক্ষেত্রে প্রতি হাজারে ২০০ টাকা হারে সার্ভিস চার্জ নিচ্ছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘এ বছর ৭০ শতাংশ মূল্যছাড়ে ৩টি গরু মধ্য আয়ের পরিবারকে উপহার দিচ্ছি যাতে তারা অন্তত অল্পদামে একটি ভালো একটি গরু পেতে পারে। আর মানুষের যাতে এই সাইটের প্রতি আকর্ষণ বাড়ে এবং ব্যবসায়িক চিন্তা ভাবনা থেকেই আমাদের এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া।’
ক্রেতাদের বিভিন্ন চাহিদা রয়েছে। তার মধ্যে একটি হলো গ্রাহক গরু ক্রয় করার পর জবাই করা থেকে শুরু করে মাংস কাটার ঝামেলা পোহাতে চান না। তারা গরুর সাথে কসাই সার্ভিসও পেতে চান। কয়েকটি অনলাইন শপ জানিয়েছে, গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী আগামী বছর থেকে কসাই সার্ভিস চালু করবে তারা।
ক্লিকবিডি ডটকমের সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং ডিরেক্টর মো. ইকরাম শিকদার বলেন, ‘আমরা একটু ভিন্ন সিস্টেমে মার্কেটিং করি। এতে আমরা কারো সাথেই সরাসরি যোগাযোগ করি না। যিনি গরু বিক্রি করতে চান তিনি তার গরুর ছবি, দাম ও বিভিন্ন তথ্যসহ আমাদের সাইটে বিজ্ঞাপন দেন। ক্রেতারা আমাদের সাইটটি ভিজিট করে সরাসরি বিক্রেতার সাথে যোগাযোগ করেন। ক্রেতা চাইলে কেনার আগে যাচাই করে কিনতে পারেন। এই সাইটে বিক্রেতার মোবাইল নম্বর ও ইমেইল ঠিকানা দেওয়া থাকে তাই ক্রেতারা তাদের ইচ্ছামতো কথা বলে বুঝেশুনে ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এখানে প্রতারিত হবার সুযোগ মোটেই নেই।’
মো. নুরুল হক নামের এক বিক্রেতা জানান,  বিক্রয় ডটকমের মাধ্যমে তিনি ২টি গরু বিক্রি করেছেন। একইসাথে ৪টি গরুর বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন তিনি। গরুর হাটের চেয়ে কম ঝামেলায় বাড়িতে বসে গরু বিক্রি করতে পেরে তিনি খুব আনন্দিত। এই আইডিয়াটা আগে পেলে অনেক ভালো হতো বলেও তিনি মনে করেন। নুরুল হক বলেন, ‘এখন থেকে আমি প্রতি বছর অনলাইনে গরু বিক্রি করবো। ঘরে বসে বিক্রি করছি আবার ঘরে বসেই টাকা হাতে পাচ্ছি। আমাকে বাড়তি কোনো ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে না। আমার মনেহয় আগামীতে অনলাইনে গরু কেনাবেচা আরও বেড়ে যাবে।’
জসিম উদ্দিন নামের এক ক্রেতা জানান, তিনি গত বছর অনলাইন থেকে গরু কিনেছেন। এবারও তিনি অনলাইন থেকেই গরু কিনতে চান। তিনি বলেন, ‘আমি গত বছর অনলাইন থেকে গরু কিনে খুব খুশি। আমাকে কোনো রকম ঝামেলা পোহাতে হয়নি। গরুর হাটে টাকা পয়সা নিয়ে যাওয়া, সারাদিন ঘুরে গরু বাছাই করা আমার কাছে খুবই বিরক্তিকর ব্যাপার। আমি এ বছরও সিদ্ধান্ত নিয়েছি অনলাইনের মাধ্যমেই গরু কিনব। তাদের সার্ভিস অনেক ভালো।’
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.