সংবাদ শিরোনাম
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে হামলা ও লুটপাঠের ঘটনায় দাঙ্গাবাজ কনর মিয়া ও কবির মিয়ার ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড  » «   ওসমানীনগরে হামলা চালিয়ে প্রবাসীর বসতঘর দখলের অভিযোগ  » «   দোয়ারাবাজারে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষ, আহত ৬  » «   সিলেটের ওসমানীনগরে চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার, আটক ১  » «   দেশে আধুনিক ক্রীড়ার রূপকার ছিলেন শহীদ শেখ কামাল: প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   দক্ষিণ সুরমায় মেয়েকে ফিরে পেতে এক পিতার আকুতি  » «   বানারীপাড়ায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক দূর্দান্ত প্রতারক রঞ্জন গ্রেফতার  » «   দক্ষিন সুরমার সুলতানপুর-গহরপুর সড়কে দুর্ঘটনায় নিহত ৩  » «   সাংবাদিক অজয় পালের প্রতিকৃতিতে সিলেটের সর্বস্থরের নাগরিকদের শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’ শেরপুরে হাজারো মানুষের ঢল  » «   দক্ষিণ সুমরার বাইপাস এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত  » «   আমাদের দেশের শিক্ষার্থীরা আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন হয়ে গড়ে উঠছে: মন্ত্রী ইমরান  » «   আওয়ামীলীগের বিদায় নিশ্চিত করে দেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্টা করতে হবে :কাইয়ুম চৌধুরী  » «   অবকাঠামো উন্নয়ন এর মাধ্যমে দেশ গড়ার কাজ করতে হবে-প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ  » «   ছাতকে অধ্যক্ষ অপসারণের দাবীতে সড়ক অবরোধ করেছে ছাত্রলীগ  » «  

চামড়া কিনতে ৬০০ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে ব্যাংক

5সিলেটপোস্ট রিপোর্ট:আসন্ন কোরবানির ঈদে ব্যবসায়ীরা যাতে পশুর চামড়া নির্বিঘ্নে কিনতে পারেন সেজন্য ৬০০ কোটি টাকা ঋণ দেবে বিভিন্ন ব্যাংক। যার মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ব চার বাণিজ্যিক ব্যাংক দিচ্ছে ৫৮০ কোটি টাকা। এছাড়া বেসরকারি খাতের কয়েকটি ব্যাংক চামড়া কিনতে ২০ কোটি টাকা দিচ্ছে। চামড়া খাতে দেওয়া এবারের ঋণের সুদের হার নির্ধারণ করা হয়েছে ১১ থেকে ১২ শতাংশ। মঙ্গলবার থেকে চামড়া ক্রয়ে ঋণ দেওয়া শুরু করেছে ব্যাংকগুলো।
জানা গেছে, রাষ্ট্রীয় মালিকানার চার বাণিজ্যিক ব্যাংকের মধ্যে বরাবরের মত এবারও চামড়া কিনতে সবচেয়ে বেশি ঋণ দিচ্ছে জনতা ব্যাংক। ২০ ব্যবসায়ীকে ২৫০ কোটি টাকা ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যাংকটি। গত বছর এ ব্যাংক চামড়া কিনতে ২০০ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছিল। এরপর ১৭০ কোটি টাকা ঋণ চাহিদা রয়েছে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের গ্রাহকদের। গতবছর এ ব্যাংক চামড়া ক্রয় করার জন্য ১৫০ কোটি টাকার ঋণ দিয়েছিল।
এছাড়া অগ্রণী ব্যাংক গতবছর এ খাতে ১৩০ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ করলেও এবছর ১০০ কোটি টাকা ঋণ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে প্রয়োজনের তাগিদে তা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে। আর রূপালী ব্যাংক প্রাথমিকভাবে ১৬০ কোটি টাকা ঋণ চাহিদা রয়েছে। তবে এই দুই ব্যাংক নতুন করে ভালো কোনো প্রতিষ্ঠানের আবেদন পেলে ঋণ বাড়াবে বলে জানিয়েছে। এছাড়া বেসরকারি খাতের ন্যাশনাল, সিটিসহ কয়েকটি ব্যাংক মিলে চামড়া কিনতে এবারে ২০ কোটি টাকার মতো ঋণ দেবে বলে জানা গেছে।
সংশ্লিষ্টরা জানান, বাংলাদেশের চামড়ার গুণগত মান ভালো হওয়ায় বিশ্ব বাজারে চাহিদা রয়েছে। এ কারণে কোরবানি ঈদের আগে ট্যানারি মালিকদের কাছে প্রচুর পরিমাণে অগ্রিম ক্রয়াদেশ আসে। বছর জুড়ে দেশে যত চামড়া পাওয়া যায় তার ৬০ থেকে ৬৫ ভাগই চামড়া পাওয়া যায় কোরবানির সময়। এজন্য এ সময় চামড়া কিনতে প্রচুর টাকার প্রয়োজন হয়।
বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আগে ঋণ দিয়েছেন বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাদেরকেই আবার ঋণ দেয়া হয়। এক্ষেত্রে তিনি কোনো ব্যাংকের খেলাপি কিনা তা যাচাইর জন্য ঋণ তথ্য ব্যুরোর (সিআইবি) রিপোর্ট সংগ্রহের পাশাপাশি ইতিপূর্বে ঋণ পরিশোধের রেকর্ড ও ব্যবসায়িক সক্ষমতা যাচাই করা হয়। ব্যাংকগুলো পর্ষদের অনুমোদন নিয়ে এরই মধ্যে কাকে কতো টাকা ঋণ দেয়া হবে তা ঠিক করেছে। তবে নতুন করে ভালো কোনো প্রতিষ্ঠানের আবেদন আসলে শেষ সময়ে তাদের ঋণ দেয়া হতে পারে বলে জানা গেছে।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.