সংবাদ শিরোনাম
ছাতকে রাস্তার ঢালাই কাজে নিম্নমানের কংক্রিট ও বালু ব্যবহারে অনিয়মের অভিযোগ  » «   সুদখোর ও জুয়াড়ী গুলজার বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ নবীগঞ্জের তিমিরপুর গ্রামবাসী  » «   লিবিয়ার থেকে মাফিয়া দালারের খপ্পরে পড়ে লাশ হয়ে ফিরতে হলো জগন্নাথপুরের এখওয়ান  » «   দোয়ারাবাজারে অনলাইনে  কোটি টাকা প্রতারণা আটক স্কুল শিক্ষক  » «   সুনামগঞ্জ কোটি টাকা আত্মসাৎ চেয়ারম্যান শেরিনকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি  » «   নবীগঞ্জে মসজিদের জুতার বক্সের ভিতরে থেকে ৩ মাসে একটি শিশু ছেলেকে পুলিশ উদ্ধার করেছে  » «   রেমিট্যান্স কেনার ডলার রেট কমল, কার্যকর ১ অক্টোবর  » «   দেয়ারাবাজারে রাতে ঘর থেকে মুখ চাপা দিয়ে এক সংখ্যালঘু স্কুল ছাত্রীকে অপরহণ   » «   শাওন হত্যার প্রতিবাদে সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ  » «   পার্কিং ট্রাকের পিছনে প্রাইভেট কারের ধাক্কা সুনামগঞ্জ -সিলেট মহাসড়কে নিহত ১ আহত ২  » «   জামালগঞ্জে নৌ দুর্ঘটনায় নিখোঁজের ২২ ঘন্টা পর ২ জনের মরদেহ উদ্বার  » «   জালিম সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরে যাব না : কাইয়ুম চৌধুরী  » «   মুন্সীগঞ্জে শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হামলায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   দোয়ারাবাজারে হাওর থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধার  » «   ৪ মেয়ে জন্ম দেওয়ায় স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনায় স্বামী কারাগারে  » «  

দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ছেন রাজস্ব কর্মকর্তারা-তিন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা চাকরিচ্যুত

1সিলেটপোস্ট রিপোর্ট::রাজস্ব আদায়ের সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তাদের একটি অংশের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ দীর্ঘদিনের। সমপ্রতি এমন বেশকিছু অভিযোগের প্রমাণ মিলতে শুরু করেছে। অবৈধ উপায়ে অর্থ আদায়সহ কিছু অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) শীর্ষ পর্যায় থেকে বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে নেয়া হয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ার পর তিন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।
এনবিআরের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, পাইপলাইনে আরো বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাও রয়েছেন। এর আগে একজন কমিশনার, অতিরিক্ত ও উপ-কমিশনারকে এ ধরনের অভিযোগে চাকরি হারাতে হয়েছিল। ব্যবসায়ী ও করদাতাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, হয়রানি করা কিংবা জিম্মি করে রাজস্ব বিভাগের কর্মকর্তাদের অর্থ আদায়ের ঘটনা অনেক বেশি। ফের হয়রানির ভয়ে এর খুব সামান্য অভিযোগই এনবিআরের কাছে আসে এবং শাস্তির আওতায় আসে।
এনবিআরের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, মজিবুর রহমান নামে এক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের গুদাম থেকে অবৈধভাবে স্বর্ণবার ও স্বর্ণালঙ্কার সরানোর অভিযোগ প্রমাণ হয়েছে। ২০১০ সালের ৮ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ দাখিল করা হয় এনবিআরে। এর পর দীর্ঘ তদন্ত, সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে তাকে বাধ্যতামূলক অবসর প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গতকাল এ বিষয়ে এনবিআরের আদেশে বলা হয়, অভিযুক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়।
এছাড়া অবৈধ লেনদেনের অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা জি এম শাহজাহান ও গোলামুর রহমানকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। জানা গেছে, ২০০৮ সালের নভেম্বরে ফেনী ভ্যাট অফিসে কর্মরত থাকাকালীন জি এম শাহজাহান ৬০ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণকালে দুর্নীতি দমন কমিশন কর্তৃপক্ষের কাছে হাতেনাতে ধরা পড়েন। দেহ তল্লাশি করে তার কাছে নগদ ৩১ হাজার টাকা পাওয়া যায়। জিজ্ঞাসাবাদে টাকার উত্স সম্পর্কে তিনি কোনো সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি। এর পর দীর্ঘ সময় ধরে তদন্ত ও শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ার পর বিদ্যমান চাকরি বিধি অনুযায়ী চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়।
একই অভিযোগে একই অফিসের আরেক কর্মকর্তা গোলামুর রহমানের বিরুদ্ধেও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়। তিনিও গতকাল চাকরি থেকে বরখাস্ত হয়েছেন।
এর আগেও ঘুষ গ্রহণ ও অনিয়মের অভিযোগে এনবিআরের এক কমিশনারসহ বেশ কয়েকজন চাকরি হারিয়েছেন। সমপ্রতি দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় এক কমিশনার, অতিরিক্ত কমিশনার ও উপ কর কমিশনারকে শাস্তি হিসেবে পদ অবনমন করা হয়েছে।
এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান  বলেন, দুর্নীতি বা অনিয়মের বিরুদ্ধে এনবিআরের জিরো টলারেন্স অব্যাহত থাকবে। ব্যবসায়ী কিংবা কর্মকর্তা-যিনিই অনিয়ম বা দুর্নীতি করবেন, তাকে শাস্তির আওতায় আসতে হবে।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.