সংবাদ শিরোনাম
সংবাদ সম্মেলনে প্রবাসীর অভিযোগ:‘অন্যায়ভাবে আমাদের বাসাবাড়ি ভেঙে দিয়েছেন মেয়র আরিফ’  » «   সুনামগঞ্জের সদরগড়ে দুইপক্ষের ঝগড়া থামাতে গিয়ে এক সালিশকে পিঠিয়ে হত্যা  » «   জৈন্তাপুরে সিজদারত অবস্থায় এক ইমামের মৃত্যু  » «   সিলেটে আসছে শীত বদলে যাচ্ছে তাপমাত্রা-কাপড়ের দোকানে ক্রেতাদের ভিড়  » «   কুলাউড়ায় নবনির্বাচিত হাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যানের ইন্ধনে সীমানা প্রাচীর ভাংচুর  » «   সুনামগঞ্জে ছাত্রদলের মিছিলে পুলিশের বাঁধা  » «   ইংল্যান্ডে প্রতি ৬০ জনে একজন কোভিড আক্রান্ত  » «   ছাতকের তেরা মিয়া হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন ও ৯ জনকে কারাদন্ড  » «   দোয়ারাবাজারে কাজ করতে দেরি হওয়ায় দোকান ভাঙচুর, মারধর   » «   সিলেটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বরণ করা হয়েছে বিজয়ের মাস ডিসেম্বরকে  » «   কানাইঘাটের আনন্দ কমিউনিটি সেন্টারে শোকের ছায়া-নারী বাবুর্চি সহ দু-জনের লাশ উদ্ধার  » «   শান্তিগঞ্জে ইউপি নিবার্চনে নৌকায় ভোট দেয়ায় প্রাণনাশের হুমকি,থানায় অভিযোগ দায়ের  » «   নগরীর দারগাহ গেইট হোটেলে স্বামীর মরদেহ রেখে দেবরের সঙ্গে স্ত্রী লাপাত্তা  » «   হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব নুরুল ইসলামের মৃত্যু  » «   সিলেটে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত-বিজয়ী চেয়ারম্যান যারা  » «  

নূর হোসেন ও তারেকরা কনডেম সেলে

1সিলেটপোস্ট রিপোর্ট::নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রাপ্ত প্রধান আসামি নূর হোসেন, র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লে. ক. (বরখাস্ত) তারেক সাঈদসহ পাঁচজনকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের কনডেম সেলে নেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার সকালে রায়ের পর কারাগারে ফিরিয়ে বিকাল সোয়া ৫টার দিকে তাদের কনডেম সেলে নেওয়া হয়। কারাবিধি অনুযায়ী, ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের কনডেম সেলে রাখা হয়।

দণ্ডিত হওয়ায় তাদের ডিভিশন বা বিশেষ সুবিধা বাতিল করে পরানো হয়েছে কয়েদির সাদা-কালো পোশাক। এখন থেকে সাধারণ বন্দির মতোই খাবার জুটবে তাদের। এ ছাড়া মৃত্যুদণ্ড পাওয়া অন্য আসামিদেরও কনডেম সেলে রাখা হবে।

পাঁচজনের মধ্যে নূর হোসেন ও তারেক সাঈদ ছাড়া বাকিরা হলেন- র‌্যাব-১১ এর ক্যাম্প কমান্ডার (বরখাস্ত) মেজর আরিফ হোসেন, ক্যাম্প কমান্ডার (বরখাস্ত) লে.কমান্ডার মাসুদ রানা ও ল্যান্স নায়েক (বরখাস্ত) বেলাল হোসেন।

কারা অধিদপ্তরের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) তৌহিদুল ইসলাম বলেন, কারাবিধি অনুযায়ী দণ্ডিত হওয়ার পর ডিভিশন কার্যকর থাকে না। তাই তাদের এখন সাধারণ ফাঁসির আসামি হিসেবেই বিবেচনা করা হবে। চাঞ্চল্যকর মামলার আসামি হওয়ায় তাদের প্রতি বাড়তি নজরদারিও থাকবে।

এর আগে সোমবার সকাল ৭টার দিকে দুইটি প্রিজন ভ্যানে করে কড়া প্রহরায় তাদের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এবং কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়।

সকাল ১০টার দিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দ এনায়েত হোসেন ওই পাঁচজনসহ ২৬ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ৯ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডের রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় ওই পাঁচজনসহ ২৩ জন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এ মামলার ১২ আসামি পলাতক রয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ কারাগারে বাকি ১৮ আসামিকে নেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে ১২ জন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ও ছয়জন বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত। মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্তদের কারাগারে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের জন্য নির্ধারিত কনডেম সেলে রাখা হয়েছে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর সুপার সুব্রত কুমার বালা বলেন, বিকাল সোয়া ৫টার দিকে আসামি র‌্যাবের আরিফ হোসেন এবং মাসুদ রানাকে এ কারাগারে আনা হয়।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এর জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বনিক জানান, তার কারাগার থেকেও ওই মামলার তিন আসামি র‌্যাব-১১ এর সাবেক অধিনায়ক (বরখাস্ত) লে. ক. তারেক সাঈদ মোহাম্মদ, সিদ্দিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি ও সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূর হোসেন, ল্যান্স নায়েক বেলাল হোসেন আনা হয়। রাতেই তাদের ফাঁসির কনডেম সেলে পাঠানো হয়েছে। রাতেই তাদের ফাঁসির কনডেম সেলে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.