সংবাদ শিরোনাম
ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক-কর্মচারীদের এমপিওভুক্তির সুযোগে হাইকোর্টের রুল  » «   মাধ্যমিকে ভর্তি আবেদনের সময় বাড়ল  » «   একজন মানুষ তাঁর কর্মের মাধ্যমে সবার কাছে প্রিয় বা অপ্রিয় হন: চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাউছার আহমদ  » «   পদত্যাগ করলেন মুরাদ হাসান  » «   সংবাদ সম্মেলনে প্রবাসীর অভিযোগ:‘অন্যায়ভাবে আমাদের বাসাবাড়ি ভেঙে দিয়েছেন মেয়র আরিফ’  » «   সুনামগঞ্জের সদরগড়ে দুইপক্ষের ঝগড়া থামাতে গিয়ে এক সালিশকে পিঠিয়ে হত্যা  » «   জৈন্তাপুরে সিজদারত অবস্থায় এক ইমামের মৃত্যু  » «   সিলেটে আসছে শীত বদলে যাচ্ছে তাপমাত্রা-কাপড়ের দোকানে ক্রেতাদের ভিড়  » «   কুলাউড়ায় নবনির্বাচিত হাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যানের ইন্ধনে সীমানা প্রাচীর ভাংচুর  » «   সুনামগঞ্জে ছাত্রদলের মিছিলে পুলিশের বাঁধা  » «   ইংল্যান্ডে প্রতি ৬০ জনে একজন কোভিড আক্রান্ত  » «   ছাতকের তেরা মিয়া হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন ও ৯ জনকে কারাদন্ড  » «   দোয়ারাবাজারে কাজ করতে দেরি হওয়ায় দোকান ভাঙচুর, মারধর   » «   সিলেটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বরণ করা হয়েছে বিজয়ের মাস ডিসেম্বরকে  » «   কানাইঘাটের আনন্দ কমিউনিটি সেন্টারে শোকের ছায়া-নারী বাবুর্চি সহ দু-জনের লাশ উদ্ধার  » «  

সিলেটে বাস্তব ‘আয়নাবাজী’র তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন জমা

4সিলেটপোস্ট রিপোর্ট::সিলেটে যাবজ্জীবন সাজার আসামীর বদলে প্রক্সিতে জেল খাটা রিপন আহমদ ভুট্টোর মুক্তির বিষয়ে ঘটিত বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সিলেটের জেলা ও দায়রা জজ মনির উদ্দিন পাটোয়ারির কাছে এ তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন কমিটির সদস্যরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেটের সিনিয়র জেল সুপার ছগির মিয়া। তিনি এও জানান, জেলা ও দায়রা জজ আগামী শনিবার জেল ভিজিটে আসবেন। তখন তিনি ভুট্টোর সাথে কথা বলবেন।

প্রসঙ্গত; বাস্তব ‘আয়নাবাজী’র নায়ক রিপন আহমদ ভুট্টো ২০১৫ সালের ১১ নভেম্বর হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী ইকবাল হোসেন বকুল হয়ে আদালতে হাজিরা দিলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায়। এরপর থেকেই তিনি কারান্তরিণ রয়েছে। এক বছর ২ মাস পার হওয়ার পর তিনি কারাকর্তৃপক্ষকে আসল সত্যটা জানান। তিনি আসল বকুল নয়; তার নাম রিপন আহমদ ভুট্টো।

সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিষয়টি প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। তার মুক্তির বিষয়ে সিলেটের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান ও যুগ্ম জেলা জজ মো. রেজাউল করিমের সমন্বয়ে গত ৭ জানুয়ারি দুই সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়।

পরদিন ওই কমিটি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়ে ভুট্টোর জবানবন্দী নেওয়া হয়। তাছাড়া সিলেটের সিনিয়র জেল সুপারসহ ৬ জনের জবানবন্দীও গ্রহণ করা হয়। পর্যায়ক্রমে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, সংবাদ কর্মী, পুলিশ এবং আইনজীবীদেরও বক্তব্য গ্রহণ করে তদন্ত কমিটি।

সর্বশেষ রবিবার ফের তদন্ত কমিটির সম্মুখে আসেন ভুট্টো। দুপুর ১টার দিকে তাকে নিয়ে আসা হয়। এসময় বেশ কিছুক্ষণ সময় বসে থেকে তদন্ত কমিটির কাছে জবানবন্দি দেন তিনি।

আসামিপক্ষের যোগসাজশে ঘটনাটি ঘটলেও তিনি এখন মুক্তির জন্য ব্যাকুল। একই সঙ্গে যারা তাকে ফুঁসলিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে, তাদেরও বিচার চান তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.