সংবাদ শিরোনাম
ওসমানীনগর উপজেলা প্রশাসনের মসজিদ ঘিরে ধ্রুমজাল!  » «   ঢাকা- সিলেট মহা সড়কের দক্ষিণ কুর্শা এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, পরিবারে চলছে শোকের মাতম  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক, আহত ৫  » «   মদিনা মার্কেটস্থ কালিবাড়ি রোডে ট্রাকচাপায় ব্যবসায়ী ফয়জুর নিহত  » «   খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করছে-সিলেটে খাদ্যমন্ত্রী  » «   আশারকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ূব খান কর্তৃক উপকারভোগীদের ২শতাধিক ড্রামের টাকা আত্মসাত,বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের  » «   গোয়াইনঘাটে পাহাড়ী ঢল ও ভারী বর্ষণে নিম্মাঞ্চল প্লাবিত  » «   সুনামগঞ্জ সদর ও বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় পাহাড়ি ঢলের পানিতে ১৬ শত একর পাকা ধান ও বাড়ি-ঘর ভেসে গেছে  » «   সাংবা‌দিক বাবরের পিতার মৃত্যুতে অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি সিলেট এর শোক প্রকাশ  » «   জৈন্তাপুরে নৌকা ডুবিতে একি পরিবারের ৫ জন উদ্ধার ১ জন নিখোঁজ  » «   সুনামগঞ্জের মধ্যনগর উপজেলা সীমান্ত এখন গরু চোরাচালানের স্বর্গরাজ্য  » «   নবীগঞ্জে নিহত জাহান খুনের ৮ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে ধরতে পড়েনি পুলিশ!  » «   পুলিশি নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদ হত্যা মামলার সাক্ষী দিলেন তার স্ত্রী তান্নী  » «   নবীগঞ্জে ধর্ষককারীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন হবিগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন আদালত  » «   জগন্নাথপুরে ধান সংগ্রহ শুরু  » «  

ছিলেন নারী, হয়ে গেলেন পুরুষ!

3সিলেটপোস্ট রিপোর্ট::লিঙ্গ-পরিচয়ই কি মানুষের এক মাত্র পরিচয়? অন্য মানুষকে কি আমরা কেবল নারী কিংবা পুরুষ হিসেবে চিনি? প্রত্যেকের নিজস্ব নাম রয়েছে, পদবী রয়েছে, পদ রয়েছে। ট্রান্সজেন্ডারদেরও তেমনটা রয়েছে। তাদের সুখ-দুঃখ অনুভূতি আর পাঁচটা মানুষের থেকে আলাদা কিছু নয়। ট্রান্সজেন্ডারদের সম্মান করতে শেখো। এক দল স্কুল পড়ুয়ার সামনে দাঁড়িয়ে বলছিলেন ইন্দোরের ছেলে কবীর গাওয়ালনি।

জন্মগতভাবে নারী হলেও, অপারেশনের মাধ্যমে যিনি পুরোদস্তুর পুরুষে রূপান্তরিত হয়েছেন কয়েক মাস আগে।

কবীরের জীবন এক নিরন্তর লড়াইয়ের উপাখ্যান। স্কুল জীবনেই তিনি উপলব্দি করেন যে, দৈহিক বৈশিষ্ট্যে নারী হলেও নারী-পরিচিতি তার পছন্দ নয়। নিজের বাবা-মাকে তিনি বলেছিলেন তার এই উপলব্ধির কথা। কিন্তু তারা বিষয়টিকে গুরুত্ব দেননি। তাতে হাল ছাড়েননি কবীর। বহু কষ্টে নিজের সমস্যাটা বাবা-মাকে বোঝাতে তিনি সক্ষম হন।

কিন্তু পরিবারের বাইরেও এক বৃহত্তর সমাজ রয়েছে। সেই সমাজ এত সহজে সবটুকু বুঝতে চায় না। ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি লাভ করে কবীর যখন এক নামী মাল্টি ন্যাশনাল সফটওয়্যার কোম্পানিতে চাকরি পান, সেখানেও নিয়মিত সহকর্মীদের হাসিমস্করার সম্মুখীন হতে হয় তাকে। ‘ছেলেসুলভ’ মেয়েটির দিকে ভেসে আসত নানা কটূক্তি। সাধ্যমতো তার প্রতিবাদ করতেন কবীর। তাতে তার নৈমিত্তিক অপমানের তীব্রতা কম হলেও একেবারে বন্ধ হয়নি।

শেষমেশ মাস আটেক আগে মন শক্ত করে কঠিন সিদ্ধান্তটা নিয়েই ফেলেন কবীর। সিদ্ধান্ত নেন, মন থেকে তো ছিলেনই, শারীরিক পরিচিতিতেও এবার পুরুষ হয়ে উঠবেন তিনি। জেন্ডার চেঞ্জ অপারেশন করিয়ে তিনি হয়ে উঠলেন পুরোদস্তুর পুরুষ।

এখন কেমন কাটছে তার জীবন এমন প্রশ্নের জবাবে কবীর বলছেন, জীবনে পরিবর্তন এসেছে। এখন পুরুষ হিসেবেই তাকে চেনে মানুষজন। আগের চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন, চালাচ্ছেন নিজস্ব এনজিও। টুকটাক কটূক্তি এখনও ভেসে আসে তার দিকে, কিন্তু তার পরিমাণ কমে গিয়েছে। অনেক মেয়ের সঙ্গে এখন তার ঘনিষ্ঠ বন্ধুতা।

নিজের কাজ নিয়ে এখন মেতে রয়েছেন কবীর। পাশাপাশি স্কুল পড়ুয়াদের মধ্যে চালাচ্ছেন ট্রানসজেন্ডারদের সম্পর্কে প্রচার। তিনি নিজে যে অপমান সয়েছেন, তা যেন আর কাউকে সহ্য করতে না হয়— সেটাই নিশ্চিত করতে চান কবীর গাওয়ালনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.