সংবাদ শিরোনাম
শাওন হত্যার প্রতিবাদে সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ  » «   পার্কিং ট্রাকের পিছনে প্রাইভেট কারের ধাক্কা সুনামগঞ্জ -সিলেট মহাসড়কে নিহত ১ আহত ২  » «   জামালগঞ্জে নৌ দুর্ঘটনায় নিখোঁজের ২২ ঘন্টা পর ২ জনের মরদেহ উদ্বার  » «   জালিম সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরে যাব না : কাইয়ুম চৌধুরী  » «   মুন্সীগঞ্জে শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হামলায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   দোয়ারাবাজারে হাওর থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধার  » «   ৪ মেয়ে জন্ম দেওয়ায় স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনায় স্বামী কারাগারে  » «   আওয়ামীলীগ সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না : কাইয়ুম চৌধুরী  » «   নবীগঞ্জে নিখোঁজের ২দিন পর বিবিয়ানা নদী থেকে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার  » «   শাল্লায় মেম্বার ও চেয়ারম্যান কর্তৃক শালিশের নামে কিশোরীকে ধর্ষণ  » «   গ্রাহকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে উল্টো মামলায় গ্রেফতার করে হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন  » «   জৈন্তাপুরে বালু ভর্তি ট্রাক আটক:১ মাসের ব্যাবধানে ২ ট্রাক ভারতীয় কসমেটিকস জব্দ-আটক-১  » «   নবীগঞ্জে কবরস্থান ও সরকারি রাস্তা জোর পূর্বক দখল: হত্যার হুমকি, অভিযোগ দায়ের  » «   দোয়ারাবাজারে ১১ বছরের শিশু ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতার  » «   নবীগঞ্জ সরকারী হাসপাতালের গাছ বিক্রি’র নিলামে অনিয়ম! ১৫ লাখ টাকার গাছ ২ লাখ টাকায় বিক্রি!  » «  

ট্রাম্প ক্ষমতায় আসায় উদ্বিগ্ন ফিলিস্তিন, বাংলাদেশ পাশে থাকায় সন্তুষ্ট

1সিলেটপোস্ট রিপোর্ট::ফিলিস্তিনী জনগণের অধিকার রক্ষায় তাদের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছে বাংলাদেশ। এছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকার ক্ষমতায় আসার পরে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ফিলিস্তিন। তবে ফিলিস্তিন ইস্যুতে বাংলাদেশের অবস্থানে সন্তোষ প্রকাশ করেছে দেশটি। ফিলিস্তিন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের ঢাকা সফরকালে এসব বিষয়ে আলোচনা হয়।

তিন দিনের সফর শেষে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস শুক্রবার বেলা পৌনে দিনটায় ঢাকা ত্যাগ করেছেন। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে একটি বিশেষ বিমানে ঢাকা ছাড়েন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমানবন্দরে তাকে বিদায় জানান। বিদায়ের আগে প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্টের একটি বিশেষ দল মাহমুদ আব্বাসকে গার্ড অব অনার দেয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম উপস্থিত ছিলেন। ঢাকা সফরকালে মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট মোঃ আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর বৈঠক হয়েছে। এসব বৈঠকে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সমস্যা সমাধানে ‘দুই জাতি দুই রাষ্ট্র’ নীতি বাস্তবায়নের প্রক্রিয়াকে পুনর্ব্যক্ত করেছে বাংলাদেশ।

প্রেসিডেন্ট মোঃ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে ফিলিস্তিনী প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস দেশটির বর্তমান সমস্যা তুলে ধরেন। এ সময় ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে বসতি স্থাপনের উদ্যোগে নিন্দা জানান তারা। অতীতে বাংলাদেশ যেভাবে ফিলিস্তিন সরকারের পাশে ছিল, এখনও সেভাবেই বাংলাদেশ তাদের পাশে থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী।

মাহমুদ আব্বাসের ঢাকা সফরকালে বাংলাদেশ ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সহযোগিতা বাড়াতে একটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে যৌথ কমিশন গঠনে সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। এই সমঝোতা স্মারক সইয়ের ফলে দু’পক্ষের পররাষ্ট্র দফতরের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক ও সহযোগিতার নতুন সুযোগ তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ফিলিস্তিনের সরকার ও জনগণ এখন দুশ্চিন্তায় রয়েছে। বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন ইসরাইলকে জোরালো সমর্থনের ঘোষণা দিয়েছে। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসনও অবশ্য বরাবরের মতো ইসরাইলকে সমর্থন দিয়েছিল। তবে ওবামা সরকার শেষ সময়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ফিলিস্তিনে ইসরাইলের অবৈধ বসতি স্থাপনের নিন্দা প্রস্তাবে ভেটো দেয়নি। এখন ইসরাইলের তেলআবিবে থাকা মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে জেরুজালেমে নেয়ার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অঙ্গীকারের বিষয়ে আলোচনা মাত্র শুরু হয়েছে। সে কারণে বাংলাদেশ সফরের সময় ফিলিস্তিনের পক্ষ থেকে এই বিষয়টি তুলে ধরা হয়।

বাংলাদেশ সরকার সবসময়ই স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র ও তার জনগণের অধিকারের পক্ষে অবস্থান নিয়ে এসেছে। ইসরাইলের আগ্রাসনের নিন্দা জানানোর পাশাপাশি জাতিসংঘে ফিলিস্তিনের পূর্ণ সদস্যপদের পক্ষেও কথা বলে আসছে বাংলাদেশ। ফিলিস্তিনের মানুষের প্রতি দিন দিন বিশ্বের সমর্থন বাড়ায় সে দেশের মানুষের জীবনেও পরিবর্তন আসছে। ২০১৫ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর প্রথমবারের মতো জাতিসংঘে ফিলিস্তিনের পতাকা তোলা হয়। তবে ঢাকা সফরের সময় ফিলিস্তিনের বিষয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের নতুন পদক্ষেপের বিষয়ে বাংলাদেশের সমর্থন ও সহায়তা চেয়েছেন মাহমুদ আব্বাস।

পাকিস্তান হয়ে ঢাকা সফরে আসেন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। পাকিস্তানেও তিনি তিন দিন সফর করেছেন। ইসলামাবাদে ফিলিস্তন দূতাবাসের নতুন একটি ভবন উদ্বোধন করেন তিনি। এছাড়া পাকিস্তান সরকারের কাছে ফিলিস্তিনের বর্তমান সমস্যা তুলে ধরেছেন মাহমুদ আব্বাস। যদিও ভারতের একাধিক গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে যে, ইসলামাবাদ সফরকালে মাহমুদ আব্বাসের নিকট কাশ্মীর ইস্যু তুলে ধরেছে পাকিস্তান।

ঢাকা ছাড়ার আগে শুক্রবার সকালে জাতীয় সংসদের বিরোধী দলনেতা বেগম রওশন এরশাদের সঙ্গে সৌজন্য বৈঠক করেন মাহমুদ আব্বাস। তিন দিনের সরকারী সফর শেষে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট শুক্রবার বেলা পৌনে তিনটায় ঢাকা ত্যাগ করেন। ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ঢাকা থেকে জর্ডান হয়ে প্যারিসে একটি কনফারেন্সে যোগ দেবেন।

উল্লেখ্য, বুধবার বিকেলে ঢাকায় আসেন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। প্রেসিডেন্ট মোঃ আবদুল হামিদের আমন্ত্রণে তিনি ঢাকায় আসেন। ফিলিস্তিনী প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. রিয়াদ আল মালকী, প্রধান বিচারপতি মাহমুদ আলহাব্বাশ, রাষ্ট্রপতির মুখপাত্র নাবিল আবুরুদাইনাহ, কূটনীতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মাজদি খালদিসহ উর্ধতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা ছিলেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.