সংবাদ শিরোনাম
শাওন হত্যার প্রতিবাদে সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ  » «   পার্কিং ট্রাকের পিছনে প্রাইভেট কারের ধাক্কা সুনামগঞ্জ -সিলেট মহাসড়কে নিহত ১ আহত ২  » «   জামালগঞ্জে নৌ দুর্ঘটনায় নিখোঁজের ২২ ঘন্টা পর ২ জনের মরদেহ উদ্বার  » «   জালিম সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরে যাব না : কাইয়ুম চৌধুরী  » «   মুন্সীগঞ্জে শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হামলায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   দোয়ারাবাজারে হাওর থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধার  » «   ৪ মেয়ে জন্ম দেওয়ায় স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনায় স্বামী কারাগারে  » «   আওয়ামীলীগ সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না : কাইয়ুম চৌধুরী  » «   নবীগঞ্জে নিখোঁজের ২দিন পর বিবিয়ানা নদী থেকে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার  » «   শাল্লায় মেম্বার ও চেয়ারম্যান কর্তৃক শালিশের নামে কিশোরীকে ধর্ষণ  » «   গ্রাহকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে উল্টো মামলায় গ্রেফতার করে হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন  » «   জৈন্তাপুরে বালু ভর্তি ট্রাক আটক:১ মাসের ব্যাবধানে ২ ট্রাক ভারতীয় কসমেটিকস জব্দ-আটক-১  » «   নবীগঞ্জে কবরস্থান ও সরকারি রাস্তা জোর পূর্বক দখল: হত্যার হুমকি, অভিযোগ দায়ের  » «   দোয়ারাবাজারে ১১ বছরের শিশু ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতার  » «   নবীগঞ্জ সরকারী হাসপাতালের গাছ বিক্রি’র নিলামে অনিয়ম! ১৫ লাখ টাকার গাছ ২ লাখ টাকায় বিক্রি!  » «  

হাল ফ্যাশনে গাউন

6সিলেটপোস্ট রিপোর্ট :মানুষ মাত্রই ভিন্নতা তাই বিভিন্ন উপলক্ষে নারীদের চাহিদা থাকে নির্দিষ্ট ডিজাইনার পোশাকের প্রতি। যেমন কিছুদিন আগেই নারীর এই পরতে পছন্দ করেছে আনারকলি ড্রেস যা এখন দখলে নিয়েছে গাউন। গাউনের জনপ্রিয়তা আর আকর্ষণ বেশিরভাগ অনুষ্ঠান যেমন বিয়েতে, পার্টি কিংবা বড় কোন গালা অনুষ্ঠানে। কেমন যেন একটা আভিজাত্যের ভাব। পাশ্চাত্য আর দেশী বৈচিত্র্য এ দুটির সংমিশ্রণে তৈরি হয়ে থাকে এই গাউন।

নগরীর চাঁদনী চক এবং গাউছিয়া ঘুরে দেখা যায় বৈচিত্র্য আর ভিন্নতা নিয়ে নতুন নতুন কিছু পোশাক এসেছে। নতুন ডিজাইনের এসব বিভিন্ন পোশাকের মধ্যে রয়েছে গাউন। গাউন এর কিছু ভাগ রয়েছে ফ্রগ স্টাইল, ওয়েস্টান এবং সেলোয়ার কামিজের স্টাইল। এক দোকানি জানায়, এখন মেয়েরা রঙের ওপর নির্ভর করে গাউন কিনে থাকে। লং গাউনের চল বেশ কিছুদিন ধরে বেশ চলছে। আগে শুধুই পার্টিতে গাউন পরা হতো। এখন তরুণীরা আরও অনেক ক্ষেত্রেই লং গাউন বেছে নিচ্ছেন। কারণ, স্বাচ্ছন্দ্য আর স্টাইল দুটোই খুঁজে পাবেন লং গাউনে। পার্টিওয়্যার বলি আর ক্যাজুয়াল সব লুকেই এই পোশাক বেশ মানানসই।

যেহেতু শীত শুরু হয়ে গেছে সেহেতু গরম কাপড়কেই আমরা বেশি প্রাধান্য দিচ্ছি। আর পোশাকটি যদি শীত উপযোগী হয় তাহলে তো কথাই নেই। আজকাল গেঞ্জি কাপড়ের গাউনও বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। এগুলো পরতে বেশ আরাম এবং শীতও নিবারণ হয়। আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী বেছে নিতে পারেন রঙিন এসব গাউন।

আজকাল সেলোয়ার কামিজে গাউনের ছোঁয়া। ঘের দেওয়া ড্রেসের ফ্লরটাচ ডিজাইনের সঙ্গে মিলে মানিয়ে নিচ্ছে নারীরা পাশ্চাত্য ঘরানার এসব পোশাক। এখন প্রাশ্চাত্যের সঙ্গে দেশীয় সংস্কৃতির মিশেলে আনা হচ্ছে ফিউশন। যেমন দেখা যায় নগরীর গাউছিয়া মার্কেটে সেলোয়ার কামিজের আদি ধরন পাল্টে নতুন ডিজাইন এর গাউন পাওয়া যায় যা ফ্রোর টাচ নামে পরিচিত, আর আছে মেচিং পাজামা ও ওরনা।

গাউন সালোয়ারের সঙ্গে মানানসই গয়না

সাজ কখনও সম্পূর্ণ হতে পারে না তার সঙ্গে মানানসই গয়না ছাড়া। গাউন-সালোয়ারের সঙ্গে কস্টিউম জুয়েলারি বা মাল্টিকালারের পাথরের গয়না ভাল মানাবে। তবে গাউন সালোয়ারে যেহেতু অনেক ভারি ডিজাইন করা থাকে তাই খুব ভাল হবে যদি শুধু কানে ভারি পাথরের গয়না পরা যায়। তাহলেই সাজটা সব থেকে বেশি ভাল লাগবে। যদি ফুল হাতা হয় গাউন-সালোয়ার তাহলে কোনকিছু না পরাই ভাল।

গড়ন উপযোগী গাউন

বাংলাদেশের মেয়েদের গড়ন একটু ভারি হওয়ায় কাটিংয়ে পরিবর্তন এনে গাউনের হচ্ছে নতুন এক ধরন। যেমন আগে গাউন এর ঘেরটা শুরু হতো কোমর থেকে। একটু মোটা বলে অনেকেই আগে এই জাতীয় পোশাক এড়িয়ে চলেছেন। তাদের কথা মাথায় রেখে বিশেষ নকশায় নতুন বৈচিত্র্যের গাউন তৈরি হচ্ছে যার ঘের বুকের নিচ থেকে হয়। অন্য দিকে গাউনের দুই দিক একটু ফিটেড দেখানোর জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে গাঢ় রঙের কাপড়। এছাড়া যে কোন গড়নের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য বাজারে এসেছে মারমেইড কিংবা ফিশ শেপের গাউন। এ ধরনের নকশায় হাঁটু থেকে পা পর্যন্ত থাকছে নেটের কুল। গতানুগতিক ধারা থেকে সরে এসে নতুনত্ব আনতে দেখা যায় সামনের দিকে ওড়নার স্টাইলের কুচি দিয়ে জুড়ে দেওয়া হচ্ছে কাপড়।

বাজারে এখন বিভিন্ন ধরনের গাউন পাওয়া যচ্ছে। কিন্তু অনেকে তার পছন্দমতো বানিয়ে নিচ্ছেন নিজস্ব ডিজাইনের গাউন। অন্যদিকে যারা একটু রং প্রিয় আর শৌখিন তারা ঝুঁকছেন গাঢ় লাল, গোলাপী কিংবা নীল কালারের ওপর। এসব গাউনের ওড়নায় আবার রয়েছে ভিন্নতা। বাহারী সাজের এসব গাউনের দামের মধ্যেও রয়েছে অনেক ভিন্নতা। নিউমার্কেটের চাঁদনীচকে খুব সহজে ফ্লরটাচ ডিজাইন সিঙ্গেল গাউন পাওয়া যাবে ২০০০ থেকে ২৫০০ টাকার মধ্যে। একটু বেশি দামের যদি কিনতে চান তাহলে নামী-দামী কিছু শোরুমে যেতে পারেন যেখানে ৩৫০০ থেকে ৩০,০০০ টাকার পর্যন্ত পাওয়া যায় এসব গাউন। আবার নিজে কাপড় কিনেও বানিয়ে নিতে পারেন মনের মতো ডিজাইন করে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.