সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «   তাহিরপুরে রাতের আঁধারে কৃষকের জমির ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লাঠিয়াল বাহিনী   » «   ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৭, আশংখাজনক ভাবে ৫জনকে সিলেট প্রেরন  » «  

রায়ে সন্তুষ্ট রাজনের মা, পরিবারের নিরাপত্তার দাবি

25সিলেটপোস্ট রিপোর্ট :সিলেটে শিশু সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার বিচারিক আদালতের দেওয়া ফাঁসির রায় হাইকোর্টে বহাল থাকার প্রতিক্রিয়ায় নিহতের মা লুবনা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, এ রায়ে আমি সন্তুষ্ট। তবে আসামিরা প্রভাবশালী হওয়ার কারণে আমরা আতঙ্কিত রয়েছি। তিনি রায় বাস্তবায়নের আগ পর্যন্ত তাদের পরিবারের নিরাপত্তা জোরদারের দাবি জানিয়ে এ রায় দ্রুত বাস্তবায়নের আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট মেট্রোপলিটন এলাকার জালালাবাদ থানার বাদেয়ালি গ্রামে নিজ বাড়িতে এ দাবি জানান তিনি।

লুবনা বেগম আরো বলেন, ‘এই রায়ের পর আসামিরা ক্ষুব্ধ হয়ে আমাদের প্রতি প্রতিশোধপরায়ন হয়ে উঠতে পারে। আমাদের পরিবারের ক্ষতি করতে পারে। তাই রায় বাস্তবায়নের পূর্ব পর্যন্ত আমাদের পরিবারের নিরাপত্তা জোরদারের দাবি জানাচ্ছি।’

বাদেয়ালি গ্রামের আজিজুর রহমান ও লুবনা বেগম দম্পতির বড় ছেলে সামিউল আলম রাজনকে ২০১৫ সালের ৮ জুলাই কুমারগাঁও বাসস্ট্যান্ডসংলগ্ন এলাকায় ‘চোর’ অপবাদ দিয়ে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। ফেসবুকে প্রচারের উদ্দেশে রাজনকে নির্যাতনের ভিডিওচিত্র ধারণ করে নির্যাতনকারীরা। সেই ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে শুরু হয় তোলপাড়।

হত্যাকাণ্ডের মাত্র চার মাসের মাথায় ২০১৫ সালের ৮ নভেম্বর রাজন হত্যা মমালায় সৌদিআরব প্রবাসী কামরুলসহ চারজনকে ফাঁসির আদেশ দেন সিলেট মেট্রোপলিটন দায়রা জজ আদালত। যা মঙ্গলবার বহাল রাখে হাইকোর্ট।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.