সংবাদ শিরোনাম
নবীগঞ্জের অকাল বন্যার পানির সাথে ভেসে এসেছে এক যুবকের লাশ! পুলিশ পড়েছে বিপাকে!  » «   গোয়াইনঘাটে পূর্ব শত্রুতার জেরে বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা: গ্রেপ্তার ১  » «   জগন্নাথপুরে ত্রাণের পিছে ছুটছে মানুষ  » «   ওসমানীনগরে প্রশাসনের তালিকায় অবশেষে বাড়লো বন্যাক্রান্তের সংখ্যা  » «   মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটির বানবাসী মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ  » «   বানবাসিদের তোপের মুখে এমপি মানিক: সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান চেয়ারম্যানের মধ্যে সংঘর্ষ   » «   চুনারুঘাটে কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় ছাত্রীর মামা কে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা  » «   জৈন্তাপুরে মা -ছেলের লাশ উদ্ধার  » «   তাহিরপুরে ত্রাণের জন্য বানভাসিদের হাহাকার পানি কমলেও বাড়ছে দুর্ভোগ  » «   বালাগঞ্জে কুশিয়ারা নদী বিপদসীমার ওপরে, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন  » «   সিলেটে বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  » «   হেলিকপ্টার থেকে ছুঁড়ে দেয়া ত্রাণ সামগ্রী নিতে গিয়ে আহত ৬  » «   জৈন্তাপুরে ২০ জনকে উদ্ধার করলো বিজিবি টহল দল ও বন্যার্থদের মাজে খাদ্য বিতরন  » «   জৈন্তাপুরে বন্যার্থদের পাশে জৈন্তাপুর মডেল থানা  » «   সিলেট বিভাগের ৮০ শতাংশ এলাকা এখন পানির নিচে  » «  

সাংবাদিক আহসান হাবীব যেন মানবতার ফেরিওয়ালা!

শিপন আহমদ ওসমানীনগর::করোনা ভাইরাসের মহামারি প্রতিরোধে মানবতার ফেরিওয়ালা হিসাবে অসহায় মানুষের  জন্য কাজ করে যাচ্ছেন দৈনিক ইত্তেফাকের সাংবাদিক আহসান হাবিব। করোনা ভাইরাসের কারণে অসহায় হয়ে পড়েছেন গৃহ বন্দি লোকজন আক্রান্ত হচ্ছে নানা রোগবালাইয়ে। গণপরিবহন বন্দ থাকার কারণে গ্রাম ও শহর এলকার রোগীরা হাসপাতাল কিংবা চিকিৎসা কেন্দ্রেও যেতে পারছেন না। এমতাবস্থায় এসব অসহায় রুগীকে নিজে গাড়ি দিয়ে হাসপাতালে পৌছে দেয়া থেকে শুরু করে সার্বিক বিষয়ে সহয়োগিতার হাত বারিয়ে দিয়ে মানবতার উজ্জল দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করে যাচ্ছেন। সিলেটের দক্ষিন সুরমা র্জার্নালিস্ট ক্লাবের সাধারন সম্পাদক আহসান হাবিব। গৃহবন্দি মানুষের কল্যানে তার এসব  কার্যক্রম ইতিম্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ব্যাপক প্রশংসা খঁুড়িয়েছেন। ভাইরাস প্রতিরোধে গনপরিবহন বন্ধ থাকার কারণে সিলেটের সড়ক পথে যানবাহন সংকট থাকার প্রতিদিন শত শত অসুস্থ লোককজনকে হাসপাতাল যেতে বিপাকে পড়তে হচ্ছে। করোনা আতঙ্কের কারণে সাধারণ রোগেও অসুস্থ ব্যক্তিদের বহনে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন স্থানীয় চালকরা। এমন পরিস্থিতিতে নিজের প্রাইভেট জীপ দিয়ে দিয়ে অসুস্থ ব্যক্তিদের পাশে দাঁড়িয়েছেন আহসান হাবিব। নিজের গাড়ি চালিয়ে গ্রাম অঞ্চল থেকে অসুস্থ গর্ববতর্ী মহিলাসহ অসুস্থ রোগীদের পৌছে দিচ্ছেন হাসপাতালে। করোনায় সিলেটে লক ডাউন ঘোষনার পর হইতে  সম্পূর্ণ বিনা খরচে সিলেট নগরী ও তার আশপাশ বিভিন্ন উপজেলা থেকে অসুস্থ রোগীদের হাসপাতালে পৌঁছে দিচ্ছেন আহসান। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত দিনের ২৪ ঘণ্টা তার ফোন নাম্বারে (০১৭১১-৩৭০৮৬৫) কল করে কেউ সাহায্য চাইলে তিনি গাড়ী নিয়ে হাজির হবেন, পৌঁছে দেবেন হাসপাতাল কিংবা চিকিৎসকের কাছে। এছাড়া রোগীদের হাসপাতালে পৌছে দেয়ার পাশাপাশি এমএ ই সার্ভিসেস ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও সাংবাদিক মো.আহসান হাবিব করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নানা জায়গায় গিয়ে সাধারণ মানুষদের সচেতনতা সৃষ্টির কাজও করে যাচ্ছেন।এসবে শেষ নয় ঘরে থাকা নিজ এলাকার গরীব আসহায় পরিবারের ঘরে ঘরে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীও পৌছে দিচ্ছেন । করোনা ভাইরাসে প্রাদুর্ভাবের পর থেকেই তার এসব কার্যক্রম মানবতার ফেরিওয়ালা হিসাবে সাধারণ মানুষের কাছে নতুন এক পরিচিতি লাভ করেছেন তিনি।  নিরাপদ দূরত্ব বাজায় রেখে নিজ ঘরে অবস্থান করার আহবান জানিয়ে দিনের পর দিন তিনি মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির কাজ করে যাচ্ছেন। এদিকে নিজের গাড়ি নিয়ে ২৪ ঘন্টা রোগীদের পৌছে দিচ্ছেন হ্াসপাতাল,ক্লিনিক ও চিকিৎসকের কাছে। চিকিৎসার পর সুস্ত্য রোগীদের নিজ খরছে পৌছে দিচ্ছেন বাড়িতে। সিলেট জেলার জকিগঞ্জ উপজেলার হাতিডহর (নগরকান্দি) গ্রামের বাসিন্দা বর্তমানে সিলেট শহরের উপশহর এলাকায় বসবাসরত আহসান হাবিবের এসব কাযক্রম ইতিমধ্যে সিলেটের সকল সাংবাদিক ও জনপ্রতিনিধিসহ সর্বস্তরের লোকজন বিভিন্ন মাধ্যমে সাধুবাদ জানিয়ে যেতে দেখা যাচ্ছে। আহসান হাবীব জানান, করোনা ভাইরাসের পাদুভার্বে লকডাউনের কারণে গনপরিবহন বন্ধ থাকায় মানুষের দূর্ভোগ দেখে নিজেকে আর ঘরে বন্দি রাখতে পারিনি। নিজেই চালক হয়ে গাড়ি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেওয়ার পর থেকে যারা সাহায্যের জন্য ফোন করেছেন আমি তাদের বাড়ি থেকে নিয়ে পৌছে দিচ্ছি। ইতিমধ্যে বিভিন্ন রোগে আক্রান্তদের   হাসপাতালে পৌছে দেয়াসহ একাধিক গরিব রোগীকে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করে যাচ্ছি। সম্পূর্ণ সুরক্ষা মেনে সাধারণ মানুষের সেবা দেয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.