Categories

Recent Posts

    ADVERTISEMENT

    Share the joy

    • 2
      Shares

    Archives

    সংবাদ শিরোনাম
    হাকালুকিতে নৌকা তৈরি ও মেরামতের হিড়িক  » «   সিলেট-৩ আসনে উপনির্বাচনে ভোটযুদ্ধে অংশ নিতে মনোনয়ন জমা দিলেন ৬ জন  » «   জামালগঞ্জে দম্পতিকে খুন করা সেই ঘাতক চাচাত দুইভাই গ্রেপ্তার  » «   ছাতকে স্কুল ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি  » «   জাল দলিলের কারিগর কুলাউড়ার রাহেল মেম্বার  » «   দোয়ারাবাজারের সীমান্তে  অভিযান চালিয়ে ২লক্ষ টাকায় পাথর নিলামে বিক্রি ১লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড  » «   পরীমণির মামলায় প্রধান আসামি নাসিরসহ গ্রেফতার ৫  » «   জগন্নাথপুরে মাসুম হত্যার ঘটনায় আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন  » «   সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে এক ঘন্টা অবরোধে সীমাহীন দূর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা  » «   সুনামগঞ্জে ডাঃ এনামুল হকের ভূল চিকিৎসায় এক নবজাতক শিশুর মৃত্যু  » «   দোয়ারাবাজারের চিলাই নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার  » «   সিলেট-৩ আসনে উপনির্বাচনে ২৫ নেতা-কে টপকিয়ে নৌকা প্রতীক পেলেন হাবিব  » «   তিন আসনে উপনির্বাচন: আওয়ামী লীগের টিকিট পাচ্ছেন কারা জানা যাবে আজ  » «   হঠাৎ জ্বর,গলা ব্যাথায় অসুস্থ হয়ে মৃত্যু:স্বামীর বাড়ি যাওয়া হলনা সুইটির  » «   জগন্নাথপুরে বালিশ চাপা দিয়ে ভাতিজিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা’র প্রধান আসামী গ্রেপ্তার  » «  

    সাজাপ্রাপ্ত আসামির বিদেশে যাওয়ার নজির আছে: ফখরুল

    • 2
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
      2
      Shares

    সিলেটপোস্ট ডেস্ক::সাজাপ্রাপ্ত আসামির বিদেশে যাওয়ার নজির আছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

    খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে অনুমতি না দেওয়ার প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, সরকার বলছেন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে বিদেশে যাওয়ার অনুমতির এমন নজির নেই। কিন্তু ১৯৭৯ সালে আমাদের প্রথম স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলনকারী আ স ম আব্দুর রব জেলে ছিলেন। তখন জিয়াউর রহমান দায়িত্বে ছিলেন। পরে তাকে মুক্তি দিয়ে চিকিৎসার জন্য জার্মানিতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল। চিকিৎসার পর তিনি সুস্থ হয়ে দেশে এসেছিলেন।

    তিনি আরও বলেন, ২০০৮ সালে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমকেও তত্ত্বাবধায়ক সরকার সাজা মাফ করে দিয়ে বিদেশে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। এমন আরও অনেক আছে, আমি নাম বলবো না। অত্যন্ত উচ্চপদস্থ প্রভাবশালী সরকারের কর্মকর্তাই বলব, তার দুই সহোদর ভাই আইনের এই ৪০১ ধারা অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। তাদেরকে মাফ করে দিয়ে দেশের বাইরে পাঠানো হয়েছে। কেনো খালেদা জিয়ার বিষয়ে খোঁড়া যুক্তি দিচ্ছেন। সোজা বলে দেন যে আমরা তাকে (বিদেশে যেতে) অনুমতি দেবো না।

    মঙ্গলবার (১১ মে) দুপুর ১২টায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

    তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ক্রিটিক্যাল থাকায় চিকিৎসকের পরামর্শে দেশের বাইরে নেওয়ার আবেদন করা হয়েছিল। বেগম জিয়াকে দেশের বাইরে চিকিৎসার সুযোগ না দিয়ে সরকার খারাপ দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে।

    তিনি বলেন, বেগম জিয়া দেশের বাইরে গিয়ে রাজনীতি করবেন, দেশে ফিরবেন না-এটা একটি ভ্রান্ত ধারণা।

    সমালোচনাকারীদের সংযত হয়ে কথা বলার পরামর্শ দিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, যারা বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে সমালোচনা করেন তারা বেগম জিয়ার পায়ের নখের যোগ্য নয়।

    তিনি বলেন, রোগীর ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রক্ষার জন্যই বেগম জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে শুরু থেকেই সংযতভাবে কথা বলা হয়েছে। কিডনি ও হার্টের সমস্যা নিয়ে ডাক্তাররা উদ্বিগ্ন। তবে তার অবস্থা এখনও ক্রিটিক্যাল। অক্সিজেন স্যাচুরেশন নরমালে নেমে আসছে।

    বিচার ব্যবস্থায় দ্বৈত নীতির কারণেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া জামিন পাননি জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, রাজনীতি থেকে দূরে রাখা এবং বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করায় সরকারের লক্ষ্য।


    • 2
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
      2
      Shares

    সর্বশেষ সংবাদ

    Developed by:

    .