সংবাদ শিরোনাম
মাধবপুরে বাসের সঙ্গে সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩ আহত ৫  » «   সিলেট-তামাবিল সড়কে পাথরবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ নিহত ১ আহত ৩  » «   ওসমানীনগরে এক ট্রাকের ধাক্কায় অপর দুই ট্রাকের চালক নিহত  » «   অ্যানড্রয়েড স্মার্টফোনগুলো আজ থেকে বন্ধ থাকবে  » «   ওসমানীনগরে দয়ামীর এলাকায় ট্রাকচাপায় ২ পথচারী নিহত  » «   গোলাপগঞ্জে.বসতঘর থেকে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   মৌলভীবাজারে ছোট ভাই এমদাদুলের হাতে বড় ভাই জিয়াউর রহমান খুন  » «   রানীগঞ্জ সেতুর জন্য অধিগ্রহণকৃত ভূমি মালিকরা ক্ষতিপূরণের টাকা প্রাপ্তিতে হয়রানির শিকার  » «   যুক্তরাজ্যে তিন দিনে ৩ বাংলাদেশি খুন  » «   লন্ডনে বিয়ানীবাজারের এক যুবক ও জগন্নাথপুর দাওরাই গ্রামের সাবিনা নিহত  » «   সুনামগঞ্জের ছাতকের ব্যবসায়ী আখলাদ হত্যাকান্ডের ঘটনায় ২ জন গ্রেপ্তার  » «   ওসমানীনগরে ব্যাংকের বুথ ভেঙে টাকা লুট: ৪ ডাকাতের ৫ দিনের রিমান্ড  » «   মাধবপুরে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু  » «   নগরীর মজুমদারী এলাকায় বাসার ছাদের পিলারে দুই বোনের ঝুলন্ত লাশ  » «   সিলেটে সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো রবিবার থেকে চার ঘন্টা করে বন্ধ  » «  

স্থায়ী আবাসের জন্য কতটা প্রস্তুত

মাহমুদ আহমদ::মাত্রই রমজান শেষ হল। রমজান শেষ হতে না হতেই আবার বিভিন্ন পাপ কাজে নিজেকে জড়িয়ে ফেলছি। বড় ছোট কোন পাপই যেন আর পাপ মনে হয় না। মনে করছি যুগ যুগ ধরে আমি জীবীত থাকব আর মৃত্যু আামাকে স্পর্শ করতে পারবে না। এমনটি যদি কেউ ভেবে থাকেন তাহলে তা হবে চরম বোকামী।

বিশ্বময় মহামারি করোনা আমাদেরকে চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে মৃত্যু যখন আসে তখন পাহাড়সম ধনসম্পত্তি কিছুই করতে পারে না। অথচ প্রতিনিয়ত কতইনা মন্দকর্ম আমরা করছি কিন্তু একবারের জন্যও মৃত্যুর কথা স্মরণ করছি না। মহান আল্লাহ ইরশাদ করেছেন, ‘তোমরা যেখানেই থাকো না কেন মৃত্যু তোমাদের স্পর্শ করবেই।’ (সুরা: আন নিসা, আয়াত: ৭৮)

কোথায় কোন অবস্থায় কার মৃত্যু হবে তা আমরা কেউ জানি না। মহান আল্লাহ ইরশাদ করেন: ‘কোন প্রাণীই জানে না যে, আগামীকাল সে কি উপার্জন করবে, না কেউ জানে তার মৃত্যু হবে কোন জমিনে।’ (সুরা লুকমান, আয়াত: ৩৪)

হজরত ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত রাসুলুল্লাহ (সা.)কে জিজ্ঞাসা করা হলো-হে আল্লাহর রাসুল! সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! সবচাইতে বুদ্ধিমান লোক কে? তিনি বললেন, যে ব্যক্তি অধিকহারে মৃত্যুকে স্মরণ করে এবং মৃত্যু পরবর্তী জীবনের প্রস্তুতি গ্রহণে ব্যস্ত থাকে।’ (ইবনে মাজাহ)

হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, হে মানব সম্প্রদায়! সুখ-শান্তি বিনাশকারী মৃত্যকে বেশি বেশি করে স্মরণ কর। (তিরমিজি, নাসাঈ, ইবনে মাজাহ) আসলে জীবনের মোহে পড়ে আমরা বেশিরভাগ সময়েই মৃত্যুর মতো অবধারিত সত্য ভুলে নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ি। আমরা যদি মৃত্যুকে বেশি বেশি স্মরণ করি তাহলে বিভিন্ন অপকর্ম থেকে রক্ষা পেতে পারি। যেভাবে মহানবী (সা.) বলেছেন, ‘জীবনের স্বাদ বিনষ্টকারী মৃত্যুকে অধিক পরিমাণে স্মরণ করো।’ (তিরমিজি)

আমরা যখন মৃত্যুকে স্মরণ করব তখন একদিকে ভালো কাজ করতে থাকব আর এর ফলে পরকালের ভাণ্ডার আমাদের জন্য ভারী হতে থাকবে। হাদিসে এসেছে, এক সাহাবি মহানবী (সা.)কে জিজ্ঞেস করেন, হে আল্লাহর রাসুল! দুনিয়াতে সবচেয়ে বুদ্ধিমান ব্যক্তি কারা? তিনি জবাব দিলেন, যারা মৃত্যুর কথা অধিক পরিমাণে স্মরণ করে এবং তার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করে। দুনিয়া-আখেরাতে তারাই সম্মান ও মর্যাদার মুকুট পরিহিত হবে। (মুজামুল কাবির)।

আসলে এই পৃথিবীতে আমরা দু’দিনের মুসাফিরমাত্র কিন্তু আমাদের আচার-আচরণে তা সব সময় যেন ভুলে যাই। সামান্য সামান্য কারণে একে অপরের প্রতি রাগান্বিত হই, ঝগড়াবিবাদে জড়িয়ে যাই।

হজরত ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন রাসুলুল্লাহ (সা.) আমার কাঁধ ধরে বললেন: দুনিয়াতে এভাবে কাটাও যেন তুমি একজন মুসাফির বা পথিক। হজরত ইবনে ওমর (রা.) বলতেন: তুমি সন্ধ্যায় উপনীত হয়ে সকাল বেলার অপেক্ষা কর না এবং সকালে উপনীত হয়ে সন্ধ্যা বেলার অপেক্ষা কর না। সুস্বাস্থ্যের দিনগুলোতে রোগব্যাধির দিনগুলোর জন্য প্রস্তুতি নাও এবং জীবদ্দশায় মৃত্যুর জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ কর।’ (বোখারি)

আমরা কিভাবে মুত্যুর প্রস্তুতি গ্রহণ করব, মৃত্যুর প্রধান প্রস্তুতি হল নিজেকে ভালো কাজে নিয়োজিত করা এবং মন্দ কাজ থেকে বিরত রাখা। আমার কথায় ও কাজে এমন কোন অন্যায় কাজ যেন সংঘটিত না হয় যার ফলে আল্লাহপাক আমার প্রতি অসুন্তুষ্ট হবেন।

যেভাবে মহানবী (সা.) বলেছেন, ‘তোমরা নেক আমলের দিকে দ্রুত অগ্রসর হও ঘুটঘুটে অন্ধকার রাতের অংশ সদৃশ ফেতনায় পতিত হওয়ার আগেই।’ (সহিহ মুসলিম)

তাই আমাদের উচিত হবে, অস্থায়ী এ দুনিয়ার মোহে আসক্ত না হয়ে স্থায়ী ঠিকানার জন্য পাথেয় সংগ্রহ করা। আল্লাহ যতদিন আমাদেরকে সুস্থ রাখেন সব পাপ কাজ পরিত্যাগ করে পুণ্য কাজে নিজেকে নিয়োজিত করতে হবে।

পবিত্র রমজানের দিনগুলোতে আমরা অনেক ভালো কাজ করেছি, অনেক বেশি ইবাদতে রত থেকে সময় অতিবাহিত করেছি। এই নেক আমলগুলো এখন আমাদের জীবনে স্থায়ীরূপ দিতে হবে। আমরা যদি এমনটি করতে পারি তাহলে আল্লাহ আমাদের প্রতি সন্তুষ্ট হবেন আর পরকালে আমাদের জন্য উত্তম আবাসের ব্যবস্থা করবেন।

আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের সবাইকে মৃত্যুকে স্মরণ করে পুণ্যকর্ম করার আর রমজানের নেক আমলগুলো বছর জুড়ে অব্যাহত রাখার তৌফিক দান করুন, আমিন।

লেখক: ইসলামী গবেষক ও কলামিস্ট, ই-মেইল- masumon83@yahoo.com

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.