সংবাদ শিরোনাম
ছাতকে রাস্তার ঢালাই কাজে নিম্নমানের কংক্রিট ও বালু ব্যবহারে অনিয়মের অভিযোগ  » «   সুদখোর ও জুয়াড়ী গুলজার বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ নবীগঞ্জের তিমিরপুর গ্রামবাসী  » «   লিবিয়ার থেকে মাফিয়া দালারের খপ্পরে পড়ে লাশ হয়ে ফিরতে হলো জগন্নাথপুরের এখওয়ান  » «   দোয়ারাবাজারে অনলাইনে  কোটি টাকা প্রতারণা আটক স্কুল শিক্ষক  » «   সুনামগঞ্জ কোটি টাকা আত্মসাৎ চেয়ারম্যান শেরিনকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি  » «   নবীগঞ্জে মসজিদের জুতার বক্সের ভিতরে থেকে ৩ মাসে একটি শিশু ছেলেকে পুলিশ উদ্ধার করেছে  » «   রেমিট্যান্স কেনার ডলার রেট কমল, কার্যকর ১ অক্টোবর  » «   দেয়ারাবাজারে রাতে ঘর থেকে মুখ চাপা দিয়ে এক সংখ্যালঘু স্কুল ছাত্রীকে অপরহণ   » «   শাওন হত্যার প্রতিবাদে সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ  » «   পার্কিং ট্রাকের পিছনে প্রাইভেট কারের ধাক্কা সুনামগঞ্জ -সিলেট মহাসড়কে নিহত ১ আহত ২  » «   জামালগঞ্জে নৌ দুর্ঘটনায় নিখোঁজের ২২ ঘন্টা পর ২ জনের মরদেহ উদ্বার  » «   জালিম সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরে যাব না : কাইয়ুম চৌধুরী  » «   মুন্সীগঞ্জে শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হামলায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   দোয়ারাবাজারে হাওর থেকে বৃদ্ধের মৃতদেহ উদ্ধার  » «   ৪ মেয়ে জন্ম দেওয়ায় স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনায় স্বামী কারাগারে  » «  

সরকারী জায়গা জবরদখল অনুমোদন ছাড়াই দড়ারপাড় গাংপাড়েরবাজার

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::সুনামগঞ্জের ছাতকের দক্ষিন খুরমা ইউনিয়নের দড়ারপাড় গ্রামের গোপাট ও পানিররাস্তার উপর এবং নোয়ানদীর পাড়ে বিভিন্ন দোকানকোঠা নিমার্নসহ সরকারী জায়গা অবৈধ ভাবে জবরদখলসহ বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গত ২৯ আগস্ট সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবর ছেড়াপাড়া গ্রামবাসীর পক্ষে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মৃত জমসি আলির ছেলে আব্দুল কিয়াস।

এতে দড়ারপাড় গ্রামের মৃত মফিজ আলির ছেলে আব্দুল আলি (মাস্টার), একই গ্রামের মৃত. জুনাব আলির ছেলে আব্দুল মছব্বির, মৃত. হারুন রশীদের ছেলে ইসবর আলি,মৃত আব্দুর রজাকের ছেলে জহির আহমদ,মৃত. তৈয়ব আলির ছেলে আশিদ
আহমদকে অভিযুক্ত করা হয়।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, আব্দুল আলি (মাস্টার) দড়ারপাড় গ্রামের গোপাট ওলপানির রাস্তার উপর এবং নোয়ানদীর পাড়ে বিভিন্ন দোকানকোঠা নিমার্নসহ সরকারী জায়গা অবৈধ ভাবে জবরদখল ও বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।
গোপাটের উপর অবৈধভাবে দোকা কোটা নিমার্ন করে পানি নিস্কাসন ও স্থানীয় কৃষকদের যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে আসছেন।

আব্দুল মছব্বির এবং ইসবর আলীর যোগসাজেসে দড়ারপাড় গাংপাড়েরবাজার নাম দিয়ে কোন প্রকার সরকারী অনুমোদন ছাড়াই ৩০টি থেকে ৩৫টি দোকান কোঠা নিমার্ন করে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধ ভাবে ভোগদখল করে আসছেন। জহির আহমদ জল্লার খাড়া ও গোপাটের উপর বসতবাড়ি নিমার্ন করে কৃষকদের পানি চলাচল ও যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে আসছেন।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, গোপাট ও নদীর তীরে অবৈধভাবে স্থাপনা নিমার্নের ফলে স্থানীয় কৃষকরা কৃষি সরঞ্জাম নিয়ে যাতায়াতে মারাত্বক
সমস্যায় পড়েছেন। এতে হতদরিদ্র কৃষকরা নিরুপায় হয়ে পড়েছেন। কৃষিনির্ভর মানুষজন ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে চরম হতাশায় ভোগছেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

এ বিষয়ে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, যাচাই বাচাই ক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.