সংবাদ শিরোনাম
ওসমানীনগর উপজেলা প্রশাসনের মসজিদ ঘিরে ধ্রুমজাল!  » «   ঢাকা- সিলেট মহা সড়কের দক্ষিণ কুর্শা এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, পরিবারে চলছে শোকের মাতম  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক, আহত ৫  » «   মদিনা মার্কেটস্থ কালিবাড়ি রোডে ট্রাকচাপায় ব্যবসায়ী ফয়জুর নিহত  » «   খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করছে-সিলেটে খাদ্যমন্ত্রী  » «   আশারকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ূব খান কর্তৃক উপকারভোগীদের ২শতাধিক ড্রামের টাকা আত্মসাত,বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের  » «   গোয়াইনঘাটে পাহাড়ী ঢল ও ভারী বর্ষণে নিম্মাঞ্চল প্লাবিত  » «   সুনামগঞ্জ সদর ও বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় পাহাড়ি ঢলের পানিতে ১৬ শত একর পাকা ধান ও বাড়ি-ঘর ভেসে গেছে  » «   সাংবা‌দিক বাবরের পিতার মৃত্যুতে অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি সিলেট এর শোক প্রকাশ  » «   জৈন্তাপুরে নৌকা ডুবিতে একি পরিবারের ৫ জন উদ্ধার ১ জন নিখোঁজ  » «   সুনামগঞ্জের মধ্যনগর উপজেলা সীমান্ত এখন গরু চোরাচালানের স্বর্গরাজ্য  » «   নবীগঞ্জে নিহত জাহান খুনের ৮ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে ধরতে পড়েনি পুলিশ!  » «   পুলিশি নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদ হত্যা মামলার সাক্ষী দিলেন তার স্ত্রী তান্নী  » «   নবীগঞ্জে ধর্ষককারীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন হবিগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন আদালত  » «   জগন্নাথপুরে ধান সংগ্রহ শুরু  » «  

কাকলির বিরুদ্ধে ৬২লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত, দাবী তদন্ত কমিটির

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::সুনামগঞ্জ ছাতক পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলার তাসলিমা জান্নাত কাকলির
বিরুদ্ধে ক্ষমতাবলে এলাকায় চাদাঁবাজীর মাধ্যমে ড্রাইবার শ্রমিকদের সংগঠনের কাছ থেকে ৬২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ সাজাঁনো ও মিথ্যা বলে দাবী করেছেন তদন্তে যাওয়া সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

গত ১১সেপ্টেম্বর শনিবার সুনামগঞ্জ জেলা শাখার শ্রমিক সংগঠনের ৫ সদস্য গঠিত একটি তদন্ত কমিটির সদস্যরা সরেজমিনে ছাতক তদন্ত করে সংবাদকমর্ীদের জানান ছাতক পৌরসভার
৪,৫,ও ৬নং ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলার তাসলিমা জান্নাত কাকলীর উপর আনিত অভিযোগ মিথ্যা ও ষড়যন্ত মূলক বলে দাবী করেন তারা ।

সুত্রে যানাযায় গত ৪ সেপ্টেম্বর সুনামগঞ্জ জেলা সিএনজি চালিত হিউম্যান- হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি নং-১৯২৬ এর সভাপতি ও সাধারণ
সম্পাদক বরাবরে ছাতক শিববাড়ী সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিকদের নাম ব্যাবহার করে একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়। এবং ৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ১টি পত্রিকায় ও অনলাইনে (ছাতকের নারী কাউন্সিলর কাকলির ক্ষমতার
অপব্যবহার-চাঁদাবাজী ৬২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ) শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়।

সংবাদটি জেলা শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের নজরে আসলে জেলা সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন,রেজি নং-
১৯২৬ এর পক্ষ থেকে সরে জমিনে ৫সদস্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে অভিযোগের সত্যতা যাচাই করার জন্য ছাতকের শিববাড়ী শ্রমিকবৃন্দের কার্যালয়ে সরেজমিনে গিয়ে প্রকাশ্যে সকল ড্রাইভার শ্রমিকদের উপস্থিতিতে যাচাই বাচাই করেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা।

এসময় অভিযোগকারী ড্রাইভার্স রাসেল তাদের আসার খবর পেয়ে লুকিয়ে পড়েন এবং নারী কাউন্সিলর কাকলী সরেজমিনে তদন্ত কমিটির সামনে উপস্থিত হন ।

ছাতক শিববাড়ী সিএনজি চালিত অটোরিক্সা ,মিশুক ও টেক্সিকার ড্রাইভার সংগঠনের
অফিস কার্যালয়ে সকল সদস্যদের উপস্থিতে কাকলী কর্তৃক ৬২লাখ টাকা আত্নসাধ এর অভিযোগ তদন্ত করেন জেলা তদন্ত কমিটি। দীর্ঘ কয়েক ঘন্টা তদন্ত করে এবং যাচাই বাচাই করে প্রমাণীত হয় নারী কাউন্সিলার কাকলীর উপর আনিত সকল অভিযোগ সাজাঁনো ও মিথ্যা, বানোয়াট এবং ষড়যন্ত্রমূলক। সমাজে তাকে
হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এবং নারী কাউন্সিলর কাকলীর জনপ্রিয়তা নষ্ট করত্যে তার মানহানি ঘটানোর জন্যই একটি কুচক্রী মহলের সাজঁানো বানোয়াট মিথ্যা অভিযোগ দেওয়া হয়েছে এমনটি প্রমাণিত হয় তদন্ত কমিটির কাছে।এসময় কমিটির সদস্যরা কাকলীর উপর মিথ্যা অভিযোগ ও সংবাদ প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

তদন্ত কমিটির ৫সদস্যরা হলেন সুনামগঞ্জ জেলা
সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন,রেজি নং-১৯২৬ এর”জেলা শাখার সহ-সভাপতি বাহার মিয়া, কোষাধক্য মো: আল আমিন, সদস্য মো: আপেল মাহমুদ, চান মিয়া, জামাল মিয়া।
তদন্তকালে উপস্থিত ছিলেন সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন,রেজি নং-১৯২৬(১) এর” ছাতক শিববাড়ী সংগঠনের সকল ড্রাইভার ও শ্রমিকবৃন্দ। এছাড়াও ভবিষৎতে শ্রমিকদের নিয়ে কোন কাল্পনিক এবং মিথ্যা ষড়যন্ত
মুলক কার্যক্রমে না জরানোর জন্য সকল ড্রাইভার্স শ্রমিকদের প্রতি অনুরোধ জানান জেলা সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ জেলা সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন,রেজি নং-১৯২৬ এর”জেলা শাখার সহ-সভাপতি বাহার মিয়া, কোষাধক্য মো: আল আমিন, সদস্য মো: আপেল মাহমুদ, চান মিয়া, জামাল মিয়া
জানান আমরা ছাতক পৌরসভার এই মহিলা কাকলীর বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে
এর কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি। তার জনপ্রিয়তায় ঈশ্বানিত হয়ে তার বিরুদ্ধে মান সম্মান নষ্ট করার জন্য এমন একটি মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছিল।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.