সংবাদ শিরোনাম
ওসমানীনগর উপজেলা প্রশাসনের মসজিদ ঘিরে ধ্রুমজাল!  » «   ঢাকা- সিলেট মহা সড়কের দক্ষিণ কুর্শা এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, পরিবারে চলছে শোকের মাতম  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক, আহত ৫  » «   মদিনা মার্কেটস্থ কালিবাড়ি রোডে ট্রাকচাপায় ব্যবসায়ী ফয়জুর নিহত  » «   খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করছে-সিলেটে খাদ্যমন্ত্রী  » «   আশারকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ূব খান কর্তৃক উপকারভোগীদের ২শতাধিক ড্রামের টাকা আত্মসাত,বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের  » «   গোয়াইনঘাটে পাহাড়ী ঢল ও ভারী বর্ষণে নিম্মাঞ্চল প্লাবিত  » «   সুনামগঞ্জ সদর ও বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় পাহাড়ি ঢলের পানিতে ১৬ শত একর পাকা ধান ও বাড়ি-ঘর ভেসে গেছে  » «   সাংবা‌দিক বাবরের পিতার মৃত্যুতে অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি সিলেট এর শোক প্রকাশ  » «   জৈন্তাপুরে নৌকা ডুবিতে একি পরিবারের ৫ জন উদ্ধার ১ জন নিখোঁজ  » «   সুনামগঞ্জের মধ্যনগর উপজেলা সীমান্ত এখন গরু চোরাচালানের স্বর্গরাজ্য  » «   নবীগঞ্জে নিহত জাহান খুনের ৮ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে ধরতে পড়েনি পুলিশ!  » «   পুলিশি নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদ হত্যা মামলার সাক্ষী দিলেন তার স্ত্রী তান্নী  » «   নবীগঞ্জে ধর্ষককারীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন হবিগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন আদালত  » «   জগন্নাথপুরে ধান সংগ্রহ শুরু  » «  

মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী মুকুটের সংবাদ সম্মেলন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::আগামী ডিসেম্বরে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে সভাপতি পদে এবং জানুয়ারীতে জেলা পরিষদ নিবার্চনে পূণরায় চেয়ারম্যান প্রাথর্ী হওয়ার বিষয়টি দলের গুটিকয়েকজন সুবিধাবাদিরা মেনে নিতে না পারায় নুরুল হুদা মুকুটের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব,সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসক বরাবরে মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের মল্লিকপুরস্থ জেলা পরিষদের হলরুমে সংবাদ সম্মেলন করেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হুদা মুকুট।

নুুরুল হুদা মুকুট দাবী করেন আগামী ডিসেম্বরে জেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে আমি সভাপতি পদে এবং জানুয়ারীতে জেলা পরিষদ নিবার্চনে চেয়ারম্যান পদে প্রাথর্ী হওয়ার সম্ভাবনা শুনে দলের গুটিকয়েক জন সুবিধাবাদিরা যারা বিভিন্ন সময়ে আমাদের স্থানীয় উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে নেত্রীর মনোনীত নৌকার প্রাথর্ীর বিরোধীতাকারীরা আমার জেলা পরিষদের বিগত ৫ বছরের উন্নয়ন কর্মকান্ডে ঈর্ষান্বিত হয়ে পরিষদের মোট ২১ জন সদস্যের মধ্যে ১০জনকে দিয়ে আমার মান সম্মানের হানি ঘটানোর জন্য এমন মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে বলে দাবী করেন। তিনি বলেন,এই জেলা পরিষদের তহবিলে জেলাবাসীর উন্নয়নের লক্ষ্যে
বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রচুর টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। এই বরাদ্দের টাকা দিয়ে তিনি পাচটি বছরে জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন মসজিদ,মন্দির রাস্তাঘাট,শিক্ষার প্রসারে ভবণ নিমার্ণসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নে ব্যয় করা হয়েছে যা আগের কোন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানগন করতে পারেননি। তিনি অসহায়,দুস্থ,পঙ্গু ব্যক্তিসহ এস এস সি, এইচ এস সি ও দাখিল পরীক্ষায় উত্তর্ীণ শিক্ষাথর্ীদের মধ্যে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।

এই পরিষদের মাধ্যমে জেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সকল জেলা পরিষদের সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে এই উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডগুলো পরিচালিত হলেও কেন পরিষদের সদস্যরা হঠাৎ করে, কি উদ্দেশ্যে কার স্বার্থসিদ্বি হাসিলের উদ্দেশ্যে আমার বিরুদ্ধে এমন মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করলেন তা বোধগম্য নহে বলে তিনি দাবী করেন। তিনি আরো বলেন,যেকোন সমস্যা এই পরিষদে হয়ে
থাকলে পরিষদের সদস্যরা আমি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে আমার সাথে বসে আলাপ আলোচনা করে কোথাও কোনপ্রকার ক্রুটি বিচ্যুতি থাকলে তা সমাধানের সুযোগ ছিল। কিন্তু তারা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে তার সাথে কোন আলাপ আলোচনা না করেই একটি চক্রধারা প্রভাবিত হয়ে আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে য়ড়যন্ত্র করে আমাকে আগামী সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে সভাপতি পদে এবং জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে পূণরায় আমার প্রাথর্ী হওয়ার সম্ভাবনাকে ভুলুন্ঠিত করতেই আমার নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করতেই
এমন মিথ্যা অভিযোগ দেয়া হয়েছে। আর মাত্র দুই মাস পরে কাউন্সিল ও জেলা পরিষদের নিবার্চন তাই নিবার্চনে যাতে করে আমি প্রাথর্ী হতে না পারি সেই লক্ষ্যেই একটি বিরাট যড়যন্ত্রের অংশ এটি। এমন অভিযোগটিকে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবী করে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন এই জেলা পরিষদের সদস্য যারাই তার বিরুদ্ধে অভিযোগটি করেছেন তারা তাদের ভূল বুঝতে পেরে সবাই আবারো একত্রিত হয়ে বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাকে এগিয়ে নিতে জেলা পরিষদের মাধ্যমে একসাথে কাজ করার আহবান
জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা ও ফেনারবাক ইউপি চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু তালুকদার,সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর চন্দ্র দাস,শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এড. আজাদুল ইসলাম রতন,বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন চৌধুরী,তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অমল কান্তি কর,জেলা পরিষদের সদস্য জুবায়ের পাশা হিমু ও হোসেন আলী প্রমুখ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.