সংবাদ শিরোনাম
সিলেটের ওসমানীনগরে মা-মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ  » «   জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির অযৌক্তিক সিদ্বান্ত-বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল  » «   দেশের সংকট নিরসনের জন্য আওয়ামীলীগকে বিতাড়িত করার বিকল্প নেই :খন্দকার মুক্তাদির  » «   চুনারুঘাটে ছেলের হাতে মা খুন,ছেলে আটক  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২  » «   দোয়ারাবাজারে ভারতীয় মালামালসহ আটক ২   » «   ওসমানীনগর থানার ওসি অথর্ব ও দুর্নীতিবাজ-মোকাব্বির খান এমপি  » «   ভোলায় পুলিশী ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   সিলেটে ঘুষ ছাড়া সহজে কারো পাসপোর্ট হয়না: ব্যবস্থা নিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি  » «   সুনামগঞ্জে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা  » «   জামালগঞ্জে জামায়াতের আমীর দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র জিহাদি বইসহ ২জন আটক-মামলা  » «   সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরে পুকুরে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু  » «   জৈন্তাপুর সীমান্তের ডিবির হাওর এলাকায় ৪৮ বিজিবি’র মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত  » «   ওসমানীনগরে সাংবাদিকের বাড়িতে কর্মরত যুবকের লাশ ডোবা থেকে উদ্ধার  » «   দোয়ারাবাজারে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু  » «  

পানি নামছে ধীরে : বালাগঞ্জে সড়কে বন্যার ক্ষতচিহ্ন

হেলাল আহমদ,বালাগঞ্জ (সিলেট) থেকে::বালাগঞ্জে কচ্ছপ গতিতে কমছে বন্যার পানি। ভেসে উঠেছে সড়কের কঙ্কাল রূপ। উপজেলার কাঁচা-পাকা ও আধা পাকা সড়ক, সেতু, কালভার্ট বন্যায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ভেঙে পড়েছে অধিকাংশ বাড়িঘর। গ্রামীণ, অভ্যন্তরীণ রাস্তাঘাট ধসে পড়েছে, ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় শতভাগ উপজেলা প্লাবিত হয়। চোখের পলকে বন্যার পানিতে ডুবে যায় বাড়িঘর, রাস্তাঘাট। অভ্যন্তরীণ সব সড়ক পানিতে তলিয়ে বানভাসি মানুষ আটকা পড়েন। উপজেলা সদর থেকে জেলা শহরের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ভয়াবহ ক্ষত নিয়ে আবার জেগে উঠছে সড়ক ও বাড়িঘর।

দৃশ্যমান হচ্ছে ভয়াল বন্যার ক্ষতচিহ্ন। সরজমিন দেখা যায়, পানির তোড়ে কাঁচা সড়কগুলোর মাটি ধসে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। পাকা সড়কগুলোতে বিশাল এলাকাজুড়ে দেখা দিয়েছে ভয়াবহ ভাঙন। বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বালাগঞ্জ-তাজপুর সড়ক। সিলেট-ঢাকা মহাসড়ক থেকে বালাগঞ্জ উপজেলা সদর পর্যন্ত এই সড়কটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১৫ কিলোমিটার। এই সড়ক দিয়ে বালাগঞ্জ ও ওসমানীনগর উপজেলার প্রায় তিন লক্ষাধিক মানুষ চলাচল করেন। ১৭ই জুন থেকে দুই উপজেলা বন্যা আক্রান্ত হওয়ার পর এই সড়কে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। কয়েকটি স্থানে সড়কের ওপরে অর্ধেকের চেয়ে বেশি অংশ ভেঙে পড়েছে। আরও কয়েকটি স্থানে হয়েছে বিশাল আকৃতির গর্ত।
বালাগঞ্জ অংশে কাশিপুর, জগৎপুর, নবীনগর, উপজেলা সদর ও ওসমানীনগর অংশে আলীপুর, লামাপাড়া ও পাঁচপাড়া এলাকায় বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী অফিসের কর্মকর্তরা বলেন কয়েক মাস আগে সড়কটির বালাগঞ্জ অংশ প্রায় তিন কোটি টাকা ব্যয়ে সংস্কার করা হয়েছিল। বন্যায় সড়কটির খুবই ক্ষতি হয়ে গেল। বন্যার পানি বৃদ্ধির সঙ্গে-সঙ্গেই বালাগঞ্জ-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের একাধিক স্থানে ভেঙে গর্ত হয়েছে। বালাগঞ্জ স্লুইস গেট এলাকায় সড়কের বিশাল অংশ ধসে পড়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন পানি কমার পরে এই সড়কে স্বাভাবিক যান চলাচল সম্ভব হবে না। দুই প্রজেক্টে বিশ কোটি টাকা ব্যয়ে বালাগঞ্জ-খসরুপুর সড়ক নির্মাণ কাজ শুরু করেছিল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। প্রায় ২২ কিলোমিটার দৈর্ঘের এই সড়কে কাজ শুরুর পর ভয়াবহ বন্যায় একাধিক স্থানে মাটি ধসে খালে পরিণত হয়েছে। প্রায় শত কোটি ব্যয়ে সিলেট-সুলতানপুর-বালাগঞ্জ সড়কের উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। একাধিক স্থানে এ সড়কের পাশের মাটি ধসে পড়েছে।
বালাগঞ্জ ইউনিয়নের আদিত্যপুর-রিফাতপুর-গহরমলি সড়কের সংস্কার কাজ চলমান থাকাবস্থায় হানা দেয় বন্যা। এখন এ সড়কটির অস্তিত্ব বিলীন হয়ে গেছে। রিফাতপুর গ্রামের আবুল হাছান বলেন, সাড়ে চার কিলোমিটার দৈর্ঘের সড়কের মধ্যে কাঁচা দেড় কিলোমিটার অংশ পানির তোড়ে বিলীন হয়ে গেছে। সড়ক আর সড়ক নেই। বন্যা পরবর্তী সময়ে যোগাযোগের ক্ষেত্রে এ অঞ্চলের মানুষ চরম সমস্যার সম্মুখীন হবেন। বালাগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী মোস্তাকিম শরিফ সাইদ বলেন, দীর্ঘদিনে গড়ে ওঠা গ্রামীণ অবকাঠামোর অধিকাংশই বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপজেলার সব রাস্তাঘাট ব্রিজ-কালভার্ট এখনো পানির নিচে। পানি কমলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করা যাবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.