সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «   তাহিরপুরে রাতের আঁধারে কৃষকের জমির ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লাঠিয়াল বাহিনী   » «   ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৭, আশংখাজনক ভাবে ৫জনকে সিলেট প্রেরন  » «  

বর মাতাল, বিয়ে ভাঙ্গলেন কনে

198811সিলেটপোস্ট ডেস্ক : লাল টুকটুকে বউ সেজে বসে আছেন নেহা (ছদ্মনাম)। চলছে ডিজে মিউজিক। মিউজিকের তালে নাচছে উপস্থিত অতিথিরা, এমনকি বরও। নিজের বিয়ে তাই অতিথিদের চেয়ে বরের উচ্ছ্বাসটা বোধ হয় একটু বেশিই ছিল! নাচের পাশাপাশি তাই মদও পান করছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত এই মদপানের কারণেই ভেঙ্গে যায় বিয়ে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার বৃহস্পতিবারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত মঙ্গলবার রাতে ভারতের কানপুর জেলার আজনার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গ্রামের শ্রীপদ অহিরারের মেয়ে নেহা বিয়ের অনুষ্ঠান চলাকালে রাগুলি গ্রামের অরবিন্দকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিয়ে পড়াতে আসা পুরোহিত ডিজে মিউজিক বন্ধ করতে বলেন। মিউজিক বন্ধ হওয়ার পর পরই এক আত্মীয়ের সঙ্গে ঝগড়া শুরু করে দেন মাতাল বর। ওই আত্মীয়ও মাতাল ছিলেন। এই ঘটনা দেখার সঙ্গে সঙ্গেই উঠে দাঁড়ান নেহা। স্পষ্টভাবে বলে দেন, তিনি এই মদ্যপকে বিয়ে করবেন না।

এ সময় নেহার বাবা সামাজিকভাবে কথা উঠার বিষয়টি ভাবলেও তাদের আত্মীয় ও গ্রামবাসী নেহার পক্ষ নেন। বিয়ের ক্ষেত্রে কনের মতকেই গুরুত্ব দেওয়া উচিত বলে সিদ্ধান্ত দেন তারা।

এদিকে কনের অনড় অবস্থানের কারণে বিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ায় অসন্তুষ্ট হয় বরের পরিবার। বিষয়টি নিয়ে তারা ওই রাতেই মধ্যপ্রদেশের হরপালপুর পুলিশ স্টেশনে যায়। কিন্তু পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, কনে বিয়েতে রাজি না থাকায় এ বিষয়ে তাদের কিছু করার নেই।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.