সংবাদ শিরোনাম
তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «   তাহিরপুরে রাতের আঁধারে কৃষকের জমির ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লাঠিয়াল বাহিনী   » «   ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৭, আশংখাজনক ভাবে ৫জনকে সিলেট প্রেরন  » «   দিরাইয়ে আওয়ামীলীগের সম্মেলনে হামলার ঘটনায় ৭৭ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা  » «  

৪ বছর যাবৎ ৮’শ শিক্ষক এমপিও বঞ্চিত’

সিলেটপোস্টরিপোর্ট:৮’শ শিক্ষক প্রায় ৪ বছর যাবৎ এমপিও থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ এমপিও বঞ্চিত সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) কমিটির আহ্বায়ক আশিকুজ্জামান।সোমবার জতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এমপিও ভুক্তির দাবিতে  আয়েজিত এক মানববন্ধনে তিনি এই দাবি  করেন। আমাদের অন্যান্য শিক্ষকদের চেয়ে বেশি ক্লাস হচ্ছে কিন্তু আমরা সেভাবে আর্থিক সাপোর্ট পাচ্ছি না অভিযোগ করে আশিকুজ্জামান বলেন, কম্পিউটার শিক্ষা যেহেতু একটি আবশ্যিক বিষয়, সেহেতু কম্পিউটার শিক্ষাককেও অন্যান্য শিক্ষকদের ন্যায় এমপিওভুক্ত করা হোক।উল্লেখ্য, ২০১১ সালের আগ পর্যন্ত বেসরকারি কম্পিউটার শিক্ষক (সহকারী) পদকে এমপিওভুক্ত করা হয়। কিন্তু ২০১১ সালের ১৩ নভেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয় অর্থ বরাদ্ধ না থাকায় অতিরিক্ত শ্রেণি শাখা, বিভাগ খোলার বিপরীতে নিযুক্ত শিক্ষকদের  বেতন-ভাতা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান কর্তৃক বহন করতে হবে বলে বলা হয়। মানববন্ধনে আশিকুজ্জামান বলেন, একদিকে মন্ত্রণালয়ের বরাদ্ধ স্থগিত অন্যদিকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এ বিষয়ে শিক্ষক নিয়োগের জন্য তাগাদা দেয়া হয়। তাছাড়া কম্পিউটার শিক্ষক প্যাটার্নভুক্ত ১১ জন শিক্ষকদের একজন। কিন্তু অন্যান্য বিষয়ে ছাত্র সংখ্যা বেশি হলে প্রয়োজন অনুযায়ী একাধিক শিক্ষক নিয়োগের বিধান থাকলেও কম্পিউটার বিষয়ে সে বিধান না থাকায় একজন শিক্ষককে সারাক্ষণ ক্লাস নেয়ার মধ্যে থাকতে হচ্ছে। তিনি আরো, বলেন, প্রতিষ্ঠান থেকে যা দেয়া হয় তা নামে মাত্র, তাই বাধ্য হয়ে আমাদেরকে প্রতিষ্ঠান থেকে ফিরে পরিবারের হাল ধরতে অন্য কোনো কাজ করতে বাধ্য হতে হয়।

অনেক সময় সে কাজও পাওয়া যায় না, এখন আমাদের যাতে আর মানবেতর জীবন যাপন করতে না হয়, তার জন্য শিক্ষমন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি বলেও আবেদন জানান তিনি। ভুক্তভোগী শিক্ষক রফিকুল ইসলাম বলেন, অন্যান্য শিক্ষক যেখানে তিনের অধিক ক্লাস নেন না, সেখানে আমাকে প্রত্যেক শ্রেণিতে ৫-৬টি ক্লাস নিতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, যদি শিক্ষাই জাতির মেরুদ- হয়? তাহলে আমরা মনে করি ডিজিটাল বাংলাদেশের মেরুদ- কম্পিউটার শিক্ষা, তথা তথ্যও যোগাযোগ প্রযুক্তি শিক্ষা।

মানববন্ধনে সংগঠনের যুগ্ম-আহ্বায়ক এস এম শামীমুর রহমানসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা কম্পিউটার শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।
.

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.