সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «   তাহিরপুরে রাতের আঁধারে কৃষকের জমির ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লাঠিয়াল বাহিনী   » «   ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৭, আশংখাজনক ভাবে ৫জনকে সিলেট প্রেরন  » «  

তার পছন্দের ব্যাক্তি রায় পায় : প্রধান বিচারপতি

49সিলেট পোস্ট রিপোর্ট : বাংলাদেশে কোনো নির্বাচনই নির্দলীয় হয় না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র্র কুমার সিনহা।‘নারীর প্রতি সহিংসতা যুগান্তকারী রায় : বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ২য় খণ্ড’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।মঙ্গলবার বিকেলে সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির অডিটোরিয়ামে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।প্রধান বিচারপতি বলেন, কয়েকদিন আগে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রতিনিধিদল আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল।

তারা সব সময়ই বিচার বিভাগকে সহায়তা করার জন্য কয়েক মিলিয়ন ডলার আর্থিক সহায়তা দিয়ে আসছে। কিন্তু এবার আমি তাদের অনুদান দিতে মানা করেছি। কেননা তারা মুলত গ্রাম্য সালিশ এবং গ্রাম্য আদালতের ক্ষেত্রে এ অনুদান দেয়। সেখানে স্থানীয় মাতব্বররা বিচার করেন। এতে করে ঐ সালিসের যে রায় তা সঠিক হয় না। কারণ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা কোন না কোনো দলকে সমর্থন করেন। যে কারণে তার পছন্দের ব্যক্তি রায় পায়, অপছন্দের ব্যক্তিরা রায় পায় না।

নারী নির্যাতন নিয়ে কাজ করা সংগঠনদের প্রতি প্রধান বিচারপতি বলেন, কিছু আইন আছে যেগুলো উপনিবেশিক ধ্যান ধারণায় তৈরি করা হয়েছে। যে গুলোর অনেকটাই কালো বিধান। এগুলো আপনারা তুলে ধরুন যাতে সংশোধন হয়। উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, সাক্ষ্য আইনে কারো চরিত্র নিয়ে কথা বলা যায় না। কিন্তু ধর্ষণের শিকার মহিলাকে তার চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন করা যাবে।

তিনি বলেন, জুনে আমি ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে যাবো। আমার কাছে তথ্য আছে যে, এখানে কিছু মহিলা আছে যারা নিরাপরাধ, কিন্তু মিথ্যা মামলায় আটক আছে। আমি মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানকে এ তথ্যগুলো দিয়েছিলাম কিন্তু তার কোনো ব্যবস্থা হয়নি।অনুষ্ঠানে সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনামের সভাপতিত্বে আপিল বিভাগের বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি ইমান আলী, সুপ্রীম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.