সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে একে একে ডুবছে ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাট,পুকুর  » «   সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি’র সভাপতি শেখ লুৎফুর  » «   ওসমানীনগরে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে ২শতাধিক বাসিন্দা উপজেলা প্রশাসনের তালিকায় মাত্র ৪৩জন  » «   ওসমানীনগরে কুশিয়ারা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ঝুঁকিতে ড্রাইক ও গ্রাম  » «   সিলেটের বিভিন্ন স্থান থেকে চোরাই মোবাইল সিন্ডিকেটের ৬ জন সদস্য র‌্যাব-৯ এর হাতে গ্রেফতার  » «   করিম উল্লাহ মার্কেট থেকে বিপুল পরিমাণ মোবাইলসহ ৬ জন গ্রেফতার  » «   ঈদকে সামনে রেখে নবীগঞ্জে জমে উঠেছে জমজমাট পশুর হাট!  » «   শিশুদের সুপ্ত মেধা বিকাশে প্রতিযোগিতা আয়োজনের বিকল্প নেই: শেখ রাসেল হাসান  » «   মেজরটিলায় টিলা ধসে হতাহতের ঘটনায় সিলেট মহানগর বিএনপির শোক  » «   দেশের স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে শহীদ জিয়া দূরদর্শী অবদান রেখেছিলেন-অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ  » «   ডামি সরকারের ডামি বাজেট জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে-বিএনপি  » «   গোয়ালাবাজার থেকে খাদিম পুর রোডের রাস্তার দুই পাশে গাছ হেলে পড়ায় দুর্ঘটনার আশঙ্কা  » «   আলোকিত দেশ গড়তে শিক্ষার্থীদেরকে আদর্শবান হতে হবে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী  » «   মরহুম প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর বিএনপির খাদ্য বিতরণ  » «   ইতিহাস বিকৃত করে মানুষের হৃদয় থেকে শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলা যাবে না  » «  

বানারীপাড়ায় কাউন্সিলরের বাড়ী থেকে চোরাই মালামাল উদ্ধার করেছে পুলিশ

বানারীাড়া প্রতিনিধি::বরিশালের বানারীপাড়া পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুমন খানের বাড়ী থেকে শনিবার ১ সেপ্টেম্বর বিকেলে চোরাই ইট, রড ও শাটার এসআই মামুনের নেতৃত্বে উদ্ধার করে বানারীপাড়া থানায় নিয়ে আসা হয়। এব্যাপারে জানা যায়, বন্দর
বাজারে শহর রক্ষা বাধের পাশে অধৈধ স্থাপনা প্রশাসন উচ্ছেদ করে। উচ্ছেদের পর গত ১৭ আগস্ট তিনটি সেমিপাকা স্থাপনার মালামাল কাউন্সিলর সুমন খান চুরি করে তার বাড়ীতে নিয়ে যায়। যার আনুমানিক মূল্য ১৪ লাখ টাকা।

এ অভিযোগ করেন স্থাপনার মালিক দাবীকারী কাজী এনায়েত করিম। তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগকারী এবং আর একজন মালিক দাবিদার মোঃ কবীর সরদার পুলিশের সহযোগিতায় পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুমন খানের বাড়ী থেকে ওই চোরাই ইট, রড ও শাটার পুলিশ উদ্ধার করে। কবির সরদার জানান, এ ব্যাপারে থানা পুলিশ মামলা নেয়নি। কোন এক প্রভাবশালী নেতার হস্তক্ষেপে। ওসি মাসুদ চৌধুরী মামলা করা থেকে নিরুৎসাহিত করেন । পরে কাউন্সিলর সুমন খান, অভিযোগকারীগণ এবং থানা কর্তৃপক্ষ মিলে চুরির বিষয়টি তিন লাখ টাকায় দফারফা হয়। যার লেন দেন ১২ সেপ্টেম্বর অভিযোগকারীদের দেয়া হবে সিন্ধান্ত হয়।

এ সময় কাউন্সিলর মনির হোসেন, ব্যবসায়ী ও ঠিকাদার ত্রিনাথ পোদ্দার, সুমন খানের ভাই সজীব খান এবং বাজারের আড়তদার রিপন উপস্থিত ছিলেন।

কাউন্সিলর সুমন খান জানান, উচ্ছেদের সময় লেবার ও ভেকু ভাড়া দেয়ার জন্য মালামাল জিম্মায় দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির জানান, আমরা
কাউন্সিলর সুমন খানের জিম্মায় দেইনি। যারযার মালামাল তারা নিবে। সে এর ঠিকাদার ও না।

বানারীপাড়া থানার ওসি এসএম মাসুদ চৌধুরীর কাছে বিষয়টি
জানতে চাইলে তিনি এবং এস আই মামুনকে বারবার মোবাইল করলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.