সংবাদ শিরোনাম
ওসমানীনগরে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে ২শতাধিক বাসিন্দা উপজেলা প্রশাসনের তালিকায় মাত্র ৪৩জন  » «   ওসমানীনগরে কুশিয়ারা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ঝুঁকিতে ড্রাইক ও গ্রাম  » «   সিলেটের বিভিন্ন স্থান থেকে চোরাই মোবাইল সিন্ডিকেটের ৬ জন সদস্য র‌্যাব-৯ এর হাতে গ্রেফতার  » «   করিম উল্লাহ মার্কেট থেকে বিপুল পরিমাণ মোবাইলসহ ৬ জন গ্রেফতার  » «   ঈদকে সামনে রেখে নবীগঞ্জে জমে উঠেছে জমজমাট পশুর হাট!  » «   শিশুদের সুপ্ত মেধা বিকাশে প্রতিযোগিতা আয়োজনের বিকল্প নেই: শেখ রাসেল হাসান  » «   মেজরটিলায় টিলা ধসে হতাহতের ঘটনায় সিলেট মহানগর বিএনপির শোক  » «   দেশের স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে শহীদ জিয়া দূরদর্শী অবদান রেখেছিলেন-অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ  » «   ডামি সরকারের ডামি বাজেট জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে-বিএনপি  » «   গোয়ালাবাজার থেকে খাদিম পুর রোডের রাস্তার দুই পাশে গাছ হেলে পড়ায় দুর্ঘটনার আশঙ্কা  » «   আলোকিত দেশ গড়তে শিক্ষার্থীদেরকে আদর্শবান হতে হবে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী  » «   মরহুম প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর বিএনপির খাদ্য বিতরণ  » «   ইতিহাস বিকৃত করে মানুষের হৃদয় থেকে শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলা যাবে না  » «   নবীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে নাশকতা ও হয়রানির শেষ কোথায়? সচেতন মহলের প্রশ্ন  » «   উচ্চহারের হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিল ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে সিলেটের নাগরিক বৃন্দের আনুষ্টানিক বক্তব্যঃ  » «  

ইতিহাস বিকৃত করে মানুষের হৃদয় থেকে শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলা যাবে না

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সিসিকের সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, আজ থেকে ৪৩ বছর পূর্বে শহীদ জিয়া চলে গেছে। সিলেটের সাথে শহীদ জিয়ার অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে। স্বাধীনতার ঘোষনা দেয়ার পর তাঁর নেতৃত্বেই সম্মূখ সমরে সিলেটকে মুক্ত করেছিলেন। তিনি সিলেটে কেবিনেট সভা করেছিলেন। তিনি হেঁটে হেঁটে বালাগঞ্জে ঘুরে ছিলেন। একজন চৌকস রাষ্ট্রনায়ক হওয়ার পরও তিনি অত্যন্ত সাধারণ জীবনযাপন করতেন।

শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ঘোষনার মধ্য দিয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছিল, তিনি রাষ্ট্রের দায়িত্ব নিয়ে বাকশালে দেশের হারানো গণতন্ত্র তিনি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন, তাঁর নেতৃত্বেই স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়ার কাজ শুরু হয়েছিল। আজ ইতিহাস বিকৃত করা হচ্ছে, শহীদ জিয়ার অর্জনকে মুছে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে। যতই চেষ্টা করা হউক না কেন বাংলাদেশ মানুষের হৃদয় থেকে শহীদ জিয়ার নামকে মুছে ফেলা যাবে না।

মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তক, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)’র প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় সাহিত্য সংসদের শহীদ সোলেমান হলে সিলেট মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক মেয়র উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

সভাপতির বক্তব্যে সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন বলেন, ১৯৭১ সালে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষনার মধ্যদিয়ে দেশের মুক্তিকামী মানুষ প্রতিরোধ যুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছিলেন। পরবর্তীতে দেশ ও জাতীয় এক ক্রান্তিলগ্নে তিনি দেশের হাল ধরেন। রাষ্ট্রপরিচালনার দায়িত্ব নিয়ে তিনি দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তন করেছিলেন। দেশ গঠনে ১৯ দফা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে তিনি একটি সুখি, সমৃদ্ধ ও স্বনির্ভর বাংলাদের গড়ার কাজ শুরু করেছিলেন। কিন্তু ১৯৮১ সালের ৩০ শে মে কিছু বিপথগামী সেনা সদস্যরা বাংলাদেশের এই অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে দেয়। বাংলাদেশ প্রতিটি ইঞ্চি ইঞ্চি মাটিতে শহীদ জিয়া স্মৃতি জড়িয়ে আছে। তাই শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। ১৯৭১ সালে দিশেহারা জাতিকে স্বাধীনতার ঘোষনা দিয়ে মুক্তির পথ দেখিয়েছিলেন শহীদ জিয়া। বেগম খালেদা জিয়া দেশকে স্বৈরাচার মুক্ত করেছিলেন। এখন সময় এসেছে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে রক্ষা করা। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশকে রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে।

সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ হোসেন চৌধুরী পরিচালনায় আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন মিফতাহ সিদ্দিকী, রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী, সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, নজিবুর রহমান নজিব, নিগার সুলতানা ডেইজি, সৈয়দ সাফেক মাহবুব, আমির হোসেন, ডা. নাজমুল ইসলাম, মুর্শেদ আহমদ মুকুল, শামীম মজুমদার, আফজল হোসেন, হুমায়ুন আহমদ মাসুক, আক্তার রশিদ চৌধুরী, মতিউল বারী খোরশেদ, মাহবুবুল হক চৌধুরী, ডা. আশরাফ আলী, ফাতেমা জামান রুজি, আব্দুল হাকিম, জিয়া স্মৃতি পাঠাগার মহানগর শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুফতি নেহাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুকিত অপি, ওয়ার্ড সভাপতির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, খায়রুল ইসলাম খায়ের, জাকির হোসেন মজুমদার, সবুর আহমদ, আব্দুল মুনিম, তারেক আহমদ খান, আব্দুর রহিম মল্লিক, বাচ্চু মিয়া, নাজিম উদ্দিন, সেলিম আহমদ সেলু, আমিনুল ইসলাম, ফখর উদ্দিন পংকি, চাঁন মিয়া বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রফিকুল ইসলাম রফিক, সাব্বির আহমদ, ফয়েজ আহমদ মুরাদ, রহিম আলী রাসু, লোকমানুজ্জামান, আব্দুল্লাহ শাফি সাহেদ, জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জুবের আহমদ, সাধারণ সম্পাদক দেলওয়ার হোসেন দিনার, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী আহসান, এসএম সায়েম, সুলেমান হোসেন, মিনহাজ পাঠান, আবু সাঈদ মো. তায়েফ, আব্দুস সবুর রাসেল, আব্দুল মালিক সেকু, জমজম বাদশা, সুহেল মাহমুদ, আলী হায়দার মজনু, ইকবাল কামাল, দেওয়ান আরাফাত জাকি, কবির আহমদ, মির্জা জাহেদ, আলমগীর হোসেন, ওয়ার্ড সাংগঠনিক সম্পাদক এম মখলিছ খান, সাইয়ুমল ইসলাম, মালেক আহমদ, ইফতেখার আহমদ পাবেল, ফরহাদ আহমদ, আকবর হোসেন কায়েসার, নাসির উদ্দীন রব, মইনুল ইসলাম, আব্দুর রহিম, দিদারুল ইসলাম দিদার, মতিউর রহমান শিমুল, মহানগর শ্রমিক দলের সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম জীবন, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজার আলী অনিক, সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল ইসলামসহ সিলেট মহানগর বিএনপি, অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর আত্নার মাগফেরাত কামনা, বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের সুস্থতা ও দেশ-জাতির মঙ্গল কামনা করে অনুষ্ঠানে দোয়া করেন মাওলানা আব্দুল্লাহ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.