সংবাদ শিরোনাম
বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষার গুনগত মান উন্নয়নে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী : প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী  » «   রমজান উপলক্ষে জুলকার নায়েন ফাউন্ডেশন দোয়ার বই ও খেজুর বিতরণ  » «   ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়েছেন মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি  » «   মাদানী ইস্যুকে কেন্দ্র করে সুনামগঞ্জের পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে হামলা ভাংচুর, আটক ৫; পুলিশের ২৭ রাউন্ড ফাঁকা গুলি  » «   সুনামগঞ্জে ইয়াকুবিয়া দাখিল মাদ্রাসার পুস্তক পাচারের সময় পিকআ্পভ্যান বোঝাই পুস্তক আটক  » «   ভাষার মর্যাদাপূর্ণ ব্যবহার সমাজে শান্তি-শৃংঙ্খলা বজায় রাখে -ইমরান আহমদ এমপি  » «   সুনামগঞ্জে ইয়াকুবিয়া দাখিল মাদ্রাসার পুস্তক পাচারের সময় পিকআ্পভ্যান বোঝাই পুস্তক আটক  » «   পাথর কোয়ারী সচলের বিষয়ে সরকারের বিশেষ বিবেচনাধীন রয়েছে-প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ  » «   জৈন্তাপুরে পৃথক ৩ টি সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ৭ জন আহত হয়েছেন  » «   জৈন্তাপুরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে অভিযান  » «   বালাগঞ্জে অবৈধভাবে বিল সেচ, ধ্বংস হচ্ছে দেশীয় মাছ, কৃষকেরা সংকিত  » «   সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মধ্যে পোশাক বিতরণ করল মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি  » «   নিউইয়র্কে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি প্রবাসী দম্পতি নিহত  » «   মিথ্যা অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হয়ে সহযোগিতার আহবান -ওসি তাজুল ইসলাম (পিপিএম)  » «   ওসমানীনগরে যুবক হত্যাকান্ডের ঘটনায় আটক-৩  » «  

মায়ের চোখ কখনও ভুল করতে পারে না।আমি একবার দেখেই চিনতে পেরেছি এটাই আমার হারিয়ে যাওয়া ছেলে

1432742932সিলেট পোষ্ট রিপোর্ট : ২০১৪ সালের ১০ই এপ্রিল,সেন্টমার্টিনে বেড়াতে গিয়ে হারিয়ে গিয়েছিল সাব্বির।
সেই হারিয়ে যাওয়া সাব্বির হাসানকে খুঁজে পাওয়ার দাবি করেছে তার পরিবার। তবে তা নিয়ে চলছে তোলপাড়।
আসলেই কি সেই সাব্বির এই সাব্বির?

পরিবারের অভিযোগ,ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশে উদ্ধার হওয়া বাংলাদেশীদের মধ্যে তাদের সন্তানও রয়েছে। উদ্ধার হওয়া বাংলাদেশিদের দ্রুত ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছে ওই পরিবার।

প্রসঙ্গত,১৩ মাস আগে সেন্ট মার্টিনে বেড়াতে গিয়ে হারিয়ে যায় সাব্বির।সাব্বির ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা করা তাঁর শখ ছিলো ফটোগ্রাফি। সাব্বিরসহ ৬ বন্ধু মিলে সেন্টমার্টিনে বেড়াতে গিয়ে নিখোঁজ। পরে সমুদ্র থেকে ৪ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা গেলেও খোঁজ মেলেনি সাব্বির ও তার বন্ধু উদয়ের।
তখন থেকে তাঁর পরিবার আশায় বুক বেধেছেন। সময় গড়িয়েছে অনেক। ছেলের খোঁজে কোস্ট গার্ড,স্থানীয় প্রশাসনে যোগাযোগ করেও কিছুতেই কোনো ফল হয়নি।

সাব্বিরের মা ছেলে ফিরে পাওয়ার আশায় আল্লাহর কাছে দোয়া করে বলেন,আমি আল্লাহর কাছে আঁচল পেতে সব সময় দোয়া করেছি, আমার ছেলেকে আমার বুকে ফিরিয়ে দাও। আমার বিশ্বাস আল্লাহ যে ছেলেকে আমাকে দিয়েছেন তাকে এভাবে আমার কাছ থেকে কেড়ে নিতে পারেন না। ছেলেকে ফিরে পেলে, তাকে নিয়ে ওমরাহ হজ্জ্ব করার কথাও জানান তিনি।

হঠাৎ এক সকালে পত্রিকা দেখে চমকে ওঠেন তারা। ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশের সমূদ্র উপকূলে উদ্ধার হওয়া যে বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গাদের ছবি ছাপা হয়েছে তাদের মধ্যে সাব্বিরের দেখা মিলে। নির্যাতন-নিপীড়ন-অবহেলায় চেহারা অনেকটাই বিকৃত হয়ে গেলেও মায়ের চোখ এড়িয়ে যেতে পারে না ছেলের মুখ।

এ প্রসঙ্গে সাব্বিরের মা বলেন, মায়ের চোখ কখনও ভুল করতে পারে না। আমি একবার দেখেই চিনতে পেরেছি এটাই আমার হারিয়ে যাওয়া ছেলে। এরপর ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসসহ বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ করেছেন তারা। কিন্তু তেমন কোনো ইতিবাচক সাড়া পাননি এখনও।

সাব্বিরকে ফিরিয়ে আনার দ্বায়িত্ব এখন সরকারের উল্লেখ করে সাব্বিরের বাবা বলেন, আল্লাহ যখন ১৩ মাস পরে আমার ছেলেকে ফিরিয়ে দিয়েছে। তখন কেউ আমাদের থেকে তাকে দূরে রাখতে পারবে না। এখন দ্বায়িত্ব সরকারের আমার ছেলের মতো যারা উদ্ধার হয়েছে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। সাব্বিরের বাবা-মার ধারণা, সমুদ্র সৈকত থেকে অপহরণ করা হয়েছে তাদের সন্তানকে।

তিনি আরো বলেন,বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী চাইলেই আমার ছেলেকে আমার কাছে ফিরিয়ে দিতে পারেন।তাঁরা প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য সহযোগিতা কামনা করেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.