সংবাদ শিরোনাম
ওসমানীনগরে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে ২শতাধিক বাসিন্দা উপজেলা প্রশাসনের তালিকায় মাত্র ৪৩জন  » «   ওসমানীনগরে কুশিয়ারা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ঝুঁকিতে ড্রাইক ও গ্রাম  » «   সিলেটের বিভিন্ন স্থান থেকে চোরাই মোবাইল সিন্ডিকেটের ৬ জন সদস্য র‌্যাব-৯ এর হাতে গ্রেফতার  » «   করিম উল্লাহ মার্কেট থেকে বিপুল পরিমাণ মোবাইলসহ ৬ জন গ্রেফতার  » «   ঈদকে সামনে রেখে নবীগঞ্জে জমে উঠেছে জমজমাট পশুর হাট!  » «   শিশুদের সুপ্ত মেধা বিকাশে প্রতিযোগিতা আয়োজনের বিকল্প নেই: শেখ রাসেল হাসান  » «   মেজরটিলায় টিলা ধসে হতাহতের ঘটনায় সিলেট মহানগর বিএনপির শোক  » «   দেশের স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে শহীদ জিয়া দূরদর্শী অবদান রেখেছিলেন-অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ  » «   ডামি সরকারের ডামি বাজেট জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে-বিএনপি  » «   গোয়ালাবাজার থেকে খাদিম পুর রোডের রাস্তার দুই পাশে গাছ হেলে পড়ায় দুর্ঘটনার আশঙ্কা  » «   আলোকিত দেশ গড়তে শিক্ষার্থীদেরকে আদর্শবান হতে হবে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী  » «   মরহুম প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর বিএনপির খাদ্য বিতরণ  » «   ইতিহাস বিকৃত করে মানুষের হৃদয় থেকে শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলা যাবে না  » «   নবীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে নাশকতা ও হয়রানির শেষ কোথায়? সচেতন মহলের প্রশ্ন  » «   উচ্চহারের হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিল ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে সিলেটের নাগরিক বৃন্দের আনুষ্টানিক বক্তব্যঃ  » «  

সাকা চৌধুরী ও মুজাহিদের ফাঁসি বহাল

সিলেটপোস্ট ডেস্ক মৃত্যুদণ্ডের চূড়ান্ত রায় পুনর্বিবেচনা (রিভিউ) চেয়ে মানবতাবিরোধী অপরাধী জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরীর আবেদনের রায় খারিজ করে দিয়েছে আপিল বিভাগ। এ রায়ের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এই দুই শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীর মামলার আইনি লড়াই। তাদের ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রায় কার্যকরের বিষয়টিও চূড়ান্ত ধাপে পৌঁছাল। সর্বশেষ ধাপে এখন কেবলমাত্র রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাইতে পারবেন তারা। প্রাণভিক্ষা না চাইলে বা চাওয়ার পর আবেদন নাকচ হলে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে আর কোনো বাধা থাকবে না।
আদালত শুধু বলেছেন, রায় নিয়ে বিস্তারিত আর কিছু বলার নেই। যেহেতু রিভিউ নাকচ করা হয়েছে তাই এ নিয়ে বিস্তারিত আর কিছু বলছি না।
কারাবিধি অনুযায়ী, একজন আসামির রিভিউ আবেদন খারিজ হওয়ার পর তিনি প্রাণভিক্ষা চাওয়ার জন্য সাত দিন সময় পেয়ে থাকেন। এরপর তাঁকে ২১ দিনের আগে নয় এবং ২৭ দিনের বেশি নয়—এমন সময়ের মধ্যে ফাঁসি কার্যকর করতে হবে।
রিভিউ আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পর সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে দুই অপরাধীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাহবুব হোসেন বলেন, আদালত আমাদের বক্তব্য গ্রহণ করেননি। কাজেই আইনজীবী হিসেবে আমার আর কিছু করার বা বলারও নেই। এখন তারা রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইবেন কি না তা আসামিদের নিজস্ব ব্যাপার। এটা তাদের সিদ্ধান্তের বিষয়।
প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগে মঙ্গলবার মুজাহিদের রিভিউয়ের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। পরে রায়ের জন্য মঙ্গলবার দিন ধার্য করেন আপিল বিভাগ।
অপরদিকে সাকা চৌধুরীর রিভিউ আবেদনের শুনানি আজ বুধবার সকালে অনুষ্ঠিত হয়। শুরুতে সাকা চৌধুরীর পক্ষে শুনানি করেন খন্দকার মাহবুব হোসেন। পরে রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম তার যুক্তি তুলে ধরেন। দেড় ঘণ্টা শুনানির পর আদালত বিষয়টি রায়ের জন্য রাখেমুজাহিদ ও সাকা চৌধুরী। বেলা সাড়ে ১১টায় তার রিভিউ আবেদনের রায়ও ঘোষণা হয়।
গত ৩০ সেপ্টেম্বর এ দুজনের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করেন আপিল বিভাগ। পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পর নিয়ম অনুযায়ী ১৫ দিনের মধ্যে রিভিউ আবেদন করতে হয়। সে অনুযায়ী সময় শেষ হয়ে যাওয়ার একদিন আগেই রায় পুনর্বিবেচনার জন্য আবেদন করেন সাকা চৌধুরী ও মুজাহিদ।
গত ২৯ জুলাই মানবতাবিরোধী অপরাধে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ফাঁসির আদেশ বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। এ ছাড়া ১৬ জুন একই অপরাধে মুজাহিদের ফাঁসির রায় বহাল রাখেন দেশের সর্বোচ্চ আদালত।
এর আগে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ, লুটপাটসহ বিভিন্ন অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

এদিকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের সঙ্গে সাক্ষাতের পর প্রাণভিক্ষার সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন তার ছেলে আলী আহম্মদ মাবরুর।

বুধবার রায়ের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মুজাহিদের ছেলে সাংবাদিকদের বলেন, ‘পরিবারের পক্ষ থেকে বাবার (মুজাহিদ) সঙ্গে দেখার করার চেষ্টা করা হবে। তার ইচ্ছার কথা জানালেই কেবল এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’
মুজাহিদের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি চেয়ে আবেদন:

জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের সঙ্গে দেখা করতে কারা কর্তৃপক্ষের কাছে অনুমতি চেয়েছে তার পরিবার।

বুধবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার জাহাঙ্গীর কবিরের কাছে এ আবেদন করা হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.