সংবাদ শিরোনাম
এডিশন্যাল ডি আই জি কে জেলা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের বিদায় সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট প্রদান  » «   আউশকান্দি কলেজিয়েট স্কুলে বখাটেদের উৎপাত বেড়ে গেছে!ছাত্রী ও অভিভাবকরা আতংকিত  » «   সুনামগঞ্জ জেলা ও দিরাই উপজেলা শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে দুদকে ঘুষ-দূর্নীতি ও অর্থ কেলেংকারীর অভিযোগ   » «   মাস খানেক পরই বিদ্যুৎ ঘাটতিসহ সবকিছুই ঠিক হয়ে যাবে-পরিকল্পনা মন্ত্রী মান্নান  » «   ওসমানীনগরে পরিমাপে পেট্রোল কম দেয়ায় সুপ্রীম ও আবীর ফিলিং স্টেশনকে জরিমানা  » «   জগন্নাথপুরে এক কৃষক হত্যা মামলায় ১ জনের আমৃত্যু ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড  » «   সিলেটের ওসমানীনগরে মা-মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ  » «   জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির অযৌক্তিক সিদ্বান্ত-বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল  » «   দেশের সংকট নিরসনের জন্য আওয়ামীলীগকে বিতাড়িত করার বিকল্প নেই :খন্দকার মুক্তাদির  » «   চুনারুঘাটে ছেলের হাতে মা খুন,ছেলে আটক  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২  » «   দোয়ারাবাজারে ভারতীয় মালামালসহ আটক ২   » «   ওসমানীনগর থানার ওসি অথর্ব ও দুর্নীতিবাজ-মোকাব্বির খান এমপি  » «   ভোলায় পুলিশী ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   সিলেটে ঘুষ ছাড়া সহজে কারো পাসপোর্ট হয়না: ব্যবস্থা নিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি  » «  

ভেড়ামারায় বৃদ্ধা মাতা কে পেটালো কুলাঙ্গার সন্তান

37সিলেট পোষ্ট রিপোর্ট : কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় অসহায় বৃদ্ধ মাতা কে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করেছে তারই কুলাঙ্গার সন্তান মনিরুল ইসলাম ওরফে সাপু। বৃদ্ধ মাতা তহুরা বেগম (৬০) বর্তমানে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’র বেডে শুয়ে মৃত্যু যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। সে ভেড়ামারার ফারাকপুর গ্রামের আমির হোসেন’র স্ত্রী। এ বিষয়ে ভেড়ামারা থানায় লিখিত করা হয়েছে। তবে এখনো গ্রেফতার হয়নি ওই কুলাঙ্গার সন্তান মনিরুল। গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে ভেড়ামারার ফারাকপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

 

লিখিত অভিযোগে জানা গেছে,  বৃদ্ধ মাতা তহুরা বেগম পাশের একটি বাড়িতে এক রুগীকে ড্রেসিং করাতে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে তারই কুলাঙ্গার পুত্র মনিরুল ইসলাম সাপু এবং তার স্ত্রী নাজমা খাতুন পূর্ব শুত্রুতার জের ধরে তার গতিরোধ করে রাতের অন্ধকারে হত্যার উদ্দ্যেশে বেধড়ক মারপিট শুরু করে।

তাদের হাতে থাকা বাটাম দিয়ে বৃদ্ধ মাতার হাতের বাহু, কনুই’র নীচে মাজায়, হাটুতে বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত, ফোলা কালশীরা জখম করে। এসময় তার গলায় থাকা একটি সোনার চেইনও ছিনিয়ে নিয়ে যায় ওই কুলাঙ্গার। আচমকা আক্রমনের ফলে হতভম্ব হয়ে পড়ে বৃদ্ধ মাতা তহুরা বেগম। পরে তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

বর্তমানে বৃদ্ধ মাতা এখন হাসপাতালের বেডে মৃত্যু যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। এ বিষয়ে ভেড়ামারা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হলেও এখন গ্রেফতার হয়নি ওই কুলাঙ্গার পুত্র সাপু এবং তার স্ত্রী নাজমা খাতুন। বৃদ্ধ মাতা তহুরা বেগম উপর হামলাকারী ওই কুলাঙ্গারদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী করেছে স্থানীয়রা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.