সংবাদ শিরোনাম
এডিশন্যাল ডি আই জি কে জেলা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের বিদায় সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট প্রদান  » «   আউশকান্দি কলেজিয়েট স্কুলে বখাটেদের উৎপাত বেড়ে গেছে!ছাত্রী ও অভিভাবকরা আতংকিত  » «   সুনামগঞ্জ জেলা ও দিরাই উপজেলা শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে দুদকে ঘুষ-দূর্নীতি ও অর্থ কেলেংকারীর অভিযোগ   » «   মাস খানেক পরই বিদ্যুৎ ঘাটতিসহ সবকিছুই ঠিক হয়ে যাবে-পরিকল্পনা মন্ত্রী মান্নান  » «   ওসমানীনগরে পরিমাপে পেট্রোল কম দেয়ায় সুপ্রীম ও আবীর ফিলিং স্টেশনকে জরিমানা  » «   জগন্নাথপুরে এক কৃষক হত্যা মামলায় ১ জনের আমৃত্যু ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড  » «   সিলেটের ওসমানীনগরে মা-মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ  » «   জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির অযৌক্তিক সিদ্বান্ত-বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল  » «   দেশের সংকট নিরসনের জন্য আওয়ামীলীগকে বিতাড়িত করার বিকল্প নেই :খন্দকার মুক্তাদির  » «   চুনারুঘাটে ছেলের হাতে মা খুন,ছেলে আটক  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২  » «   দোয়ারাবাজারে ভারতীয় মালামালসহ আটক ২   » «   ওসমানীনগর থানার ওসি অথর্ব ও দুর্নীতিবাজ-মোকাব্বির খান এমপি  » «   ভোলায় পুলিশী ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   সিলেটে ঘুষ ছাড়া সহজে কারো পাসপোর্ট হয়না: ব্যবস্থা নিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি  » «  

বরগুনায় সেই শিক্ষকের আত্মসমর্পণ: কোচিং সেন্টার বন্ধের নির্দেশ

9সিলেটপোস্ট রিপোর্ট :বরগুনা তৃতীয় শ্রেণীর শিশু শিক্ষার্থীকে নির্যাতনকারী সেই শিক্ষক থানায় আত্মসমর্পণ করেছে। একই সঙ্গে তার পরিচালনাধানী কোচিং সেন্টারটি বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন।  বরগুনার বিজয় বৃত্তি কোচিং সেন্টারে ইসরাত জাহান মালিহা (৯) নামে তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে বেত দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে ওই কোচিং সেন্টারের পরিচালক জহিরুল ইসলাম বাদল।বৃহস্পতিবার রাতে বরগুনা পৌর শহরের কলেজ রোড এলাকায় বিজয় বৃত্তি কোচিং সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। শিশু মালিহাকে অসুস্থ অবস্থায় বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। মালিহা ক্যালিক্স একাডেমির তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী।এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত ও কোচিং সেন্টারটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।মালিহার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ওই প্রতিষ্ঠানের পরিচালক এবং বরগুনা সদর উপজেলার রোডপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জহিরুল ইসলাম বাদলকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে শিক্ষা বিভাগ। এছাড়া শহরের কলেজ রোডে পরিচালিত কোচিং সেন্টারটিও বন্ধ করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত শিক্ষক বাদল আত্মগোপনে থাকলেও পরে তিনি থানা আত্মসমর্পণ করেন। এর আগে তাকে না পেয়ে শিক্ষক বাদলের স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ।শিশু মালিহা বলে, স্যার আমাকে একটি অংক করতে দিয়েছিলো, আমি পারিনি, সেজন্য আমাকে বেত দিয়া পিটিয়েছে।শিক্ষার্থী মালিহার বাবা মো. জামাল শিকদার বলেন, সামান্য অপরাধের জন্য আমার মেয়েকে ৩৫ থেকে ৪০টি বেত্রাঘাত করা হয়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আব্দুল মজিদ বলেন, এ ঘটনায় শিক্ষক জহিরুল ইসলাম বাদলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।বরগুনার জেলা প্রশাসক মীর জহুরুল ইসলাম শুক্রবার সকালে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিক্ষার্থী মালিহাকে দেখতে যান। এ সময় তিনি বলেন, অভিযুক্ত শিক্ষকের পরিচালিত কোচিং সেন্টারটি বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।এদিকে শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে অভিযুক্ত শিক্ষক জহিরুল ইসলাম বাদল থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেছে। বরগুনা সদর থানার ওসি মো. রিয়াজ হোসেন পিপিএম জানান, ছাত্রী নির্যাতনকারী শিক্ষক থানায় আত্মসমর্পণ করলে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.