সংবাদ শিরোনাম
দিরাইয়ে বজ্রপাতে দুইজন কৃষকের মৃত্যু  » «   পরিবেশ অধিদপ্তরের অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার আহবান  » «   সিলেট জেলা ট্রাক-পিকআপ-কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের ঈদ পুনর্মিলনী ও আলোচনা সভা  » «   ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি’র সভাপতি শেখ লুৎফুর  » «   পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসীর মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক ও সমন্বয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ-সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ  » «   মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি’র ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত  » «   সুনামগঞ্জে কালবৈশাখীর ঝড়ে ৭শতাধিক কাচা ঘরবাড়ি,২ শতাধিক দোকান লন্ডভন্ড  » «   হবিগঞ্জে চাল্যকর ছোবহান হত্যা মামলার ৫ জন আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৯  » «   নবীগঞ্জে ৬ বছরে শিশুকে চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ! ধর্ষনকারী আনহারকে আটক   » «   ফ্যাসিস্ট ডামি সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করা হবে :কাইয়ুম চৌধুরী  » «   বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন সিলেট জেলার উদ্যোগে ইফতার বিতরণ ও দোয়া মাহফিল  » «   সিলেটে পারিবারিক কলহের জেরে ছেলের হাতে বাবা খুন  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে ভুল অপারেশন করে শিশুর লিঙ্গ কর্তন-কেয়ার ডায়াগনস্টিক ঘেরাও  » «   সিলেটের উপশহরে মামার হাতে বাগিনা খুন  » «  

শাল্লার কাবিলা বিলের তলা শুকিয়ে মাছ ধরছে ইজারাদারগণ,পানি সেচ নিয়ে শংঙ্কা কৃষক সমাজ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::মৎস্য নীতিমালা অনুযায়ী যেকোন বিল ইজারা নিলে কৃষকদের স্বার্থ সংরক্ষণে বিলে ভাসমান অবস্থায় মৎস্য আহরণের কথা বলা হলেও কোন কোন বিলের ইজারাদারগণ আইন অমান্য করে বিলের তলা শুকিয়ে মৎস্য আহরণ করছেন ইজাদারগণ। তেমনি সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার আটগাও ইউনিয়নের কাবিলা জলমহালটিতে বিলের তলা শুকিয়ে মৎস্য আহরণ করে বাজারজাত করছে ইজারাদার পক্ষ। ফলে বিলের চতুরদিকে কৃষকদের হাজারো একর আবাদকৃত বোরো জমিতে পানি সেচ দেওয়া নিয়ে শংঙ্কায় আছেন কৃষকরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,শাল্লা উপজেলার আটগাও ইউপির ভাটি মাহমুদ নগর মৌজার, জেএল নং ১২ এবং ৭৩০/১১৫৯/২৫৫৭/১৬৮৪ ও ২৯৪২ নং দাগের ৩৩.৬০ একর এই কাবিলা জলমহালটি ২৬ বাংলা হতে ৩২ বাংলা স পর্যন্ত স্থানীয় বাহারা মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ এর সাধারন সম্পাদক সুব্রত কুমার দাস পাঁচ বছরের জন্য জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে প্রতিবছর সরকারকে ৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকা রাজস্ব দিয়ে মোট ৩৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকায় লীজ নেওয়া হয়। কিন্তু গত দুইবছর ধরে এই সমিতির সদস্যরা আটগাঁও ইউপির শসারকান্দা গ্রামের আব্দুল গণি মাষ্টারের ছেলে মোঃ জিল্লুর রহমান ও পাশর্^বর্তী ফরিদপুর গ্রামের নছর মিয়ার ছেলে মহিবুর রহমানকে দুইবছরের জন্য দুইলাখ টাকায় চুক্তিভিত্তিক বিলটি ইজারা দেয়া হয়। ফলে এই দুই ইজারাদার স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় তারা প্রশাসনের এবং মৎস্য নীতিমালা লংঘন করে বিলের চতুরদিকে কয়েকটি পাওয়ার পাম্প মেশিন লাগিয়ে বিলের তলা শুকিয়ে মৎস্য আহরণ ও বাজারজাত করে অধিক মুনাফা নিচ্ছেন। ফলে এই বোরো মৌসুমে ও বিলের চতুরদিকের কৃষকরা তাদের রোপনকৃত জমিতে পানি সেচ করতে না পারায় দুচিন্তায় দিন কাটাচ্ছেন। এই বিলের তলা শুকিয়ে মৎস্য আহরণ যেন ইজারাদারগণ করতে না পারেন সেই লক্ষ্যে স্থানীয় জাকির হোসেন গত ২১ ফেব্রæয়ারী শাল্লা উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার(এসিল্যান্ড) থানার অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দিলেও গত তিনদিনে বিলের তলা শুকিয়ে মৎস্য আহরণ বন্ধ করতে পারেনি স্থানীয় প্রশাসন। ফলে ইজারাদারগণ কৃষকদের বৃহত্তর স্বার্থকে জলাজ্ঞলী দিয়ে শনিবার বিল শুকিয়ে মাছ ধরা হচ্ছে। খবর পেয়ে শাল্লা থানার এসআই শাহীন মিয়ার নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে।

এ ব্যাপারে অভিযোগকারী জাকির হোসেন জানান,তিনদিন হলো অভিযোগ দেয়ার পর কৃষকদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়টিকে প্রশাসন গুরুত্ব দেয়নি। তিনি এই সমস্ত ইজারাদারদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি কামনা করছেন।

এ ব্যাপারে ইজারাদার জিল্লুর রহমান জানান বিলে মেশিন লাগানো হলেও বিলের তলা শুকিয়ে তারা মৎস্য আহরণ করছেন না।

এ ব্যাপারে শাল্লা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনজুর আহসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান যারা মৎস্য নীতিমালা লংঘন করে বিলের তলা শুকিয়ে মাছ ধরছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.