সংবাদ শিরোনাম
আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ চলাকালে সিয়াম নামে এক তরুণ নিহত  » «   কোটা বৈষম্য বিরোধী আন্দোলনকারীদের পক্ষে বিক্ষোভের ঘোষণা হেফাজতে ইসলামের  » «   আগামীকাল সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’কর্মসূচি ঘোষণা  » «   দোয়ারাবাজারে প্রকাশ্যে চলছে টিলা কাটার মহোৎসব! নিরব প্রশাসন  » «   মাদকের ভয়ালগ্রাস থেকে আমাদের সন্তানদের বাচাতে হবে- বিভাগীয় কমিশনার আহমদ ছিদ্দীকী  » «   আরিফ হত্যা মামলায় ৩৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিপু কারাগারে  » «   ধর্মপাশার মুগরাইন হাওরে গোসল করতে নেমে ডুবে শাশুড়ি ও তার অন্তঃসত্ত্বা পুত্রবধূর মৃত্য  » «   তৃতীয় দফা বন্যার মুখোমুখি সুনামগঞ্জের হাওরপাড়ের লাখ লাখ মানুষজন  » «   বন্যায়ও থেমে নেই ভারত থেকে অবৈধভাবে আসা চিনির চোরাচালান  » «   সিলেটে নতুন পুলিশ সুপার এর যোগদান  » «   র‌্যাব সদস্যরা দেশের যেকোন সংকটময় মূহুূর্তে সব সময়ই জনগনের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছে -র‌্যাব মহাপরিচালক  » «   সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার জন্য একজন গানম্যান নিয়োগ পেলেন ব্যারিস্টার সুমন  » «   গুজব আতঙ্কে গোলাপগঞ্জে ছেলে ধরা সন্দেহে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ  » «   সুনামগঞ্জে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উৎসব উপলক্ষে শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত  » «   কৃষকরা এ দেশের প্রাণ: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী  » «  

নিয়ম ভঙ্গকরে ফ্ল্যাট ব্যবহার করছে ৪ মন্ত্রী

81সিলেট পোষ্ট রিপোর্ট : সংসদ সদস্য ভবনের (ন্যাম ফ্ল্যাট) ফ্ল্যাট ছাড়তে বারবার তাগাদা দেয়া সত্ত্বেও তা আমলে নেননি চার মন্ত্রী। তারা হলেন- তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী ছায়েদুল হক এবং ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ। তাদের ফ্ল্যাট ছাড়ার জন্য আবারও চিঠি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংসদ কমিটি। এ চার মন্ত্রীকে সর্বশেষ ৬ মে ফ্ল্যাট ছাড়ার চিঠি দেয়া হয়েছিল।

কমিটির দাবি, মন্ত্রী হওয়ার পরও সরকারি নিয়ম ভঙ্গ করে হাসানুল হক ইনু নাখালপাড়া ১ নম্বর ভবনের ১০৪ নম্বর ফ্ল্যাট, শাজাহান খান মানিক মিয়া এভিনিউয়ের ৪ নম্বর ভবনের ৪০৪ নম্বর ফ্ল্যাট, ছায়েদুল হক একই ভবনের ১০২ নম্বর ফ্ল্যাট এবং শামসুর রহমান শরীফ ৪০৩ নম্বর ফ্ল্যাট এখনও তাদের দখলে রেখেছেন। খবর দৈনিক যুগান্তর।গত বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি মানিক মিয়া এভিনিউ ও নাখালপাড়ার সংসদ সদস্য ভবনে মন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়া সংসদ সদস্যদের ফ্ল্যাট বরাদ্দ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সংসদ কমিটি।

সে অনুযায়ী নবম সংসদে ফ্ল্যাট বরাদ্দ পাওয়া সাতজনকে (যারা দশম সংসদ নির্বাচনের পরে মন্ত্রীর দায়িত্ব পান) ছেড়ে দিতে একাধিকবার তাগাদা দেয় তারা। ওই বছরের ১৬ ফেব্র“য়ারি সিদ্ধান্ত নেয়া হয়- মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রীর মর্যাদাসম্পন্ন কোনো সংসদ সদস্য যদি ন্যামফ্ল্যাটে থাকতে আগ্রহ প্রকাশ করেন তবে তাকে সরকার থেকে পাওয়া বাড়িভাড়া ও সার্ভিস চার্জ ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে সংসদ সচিবালয়ে জমা দিতে হবে।

সংসদ কমিটির এ সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে ফ্ল্যাট ছাড়েননি চার মন্ত্রী। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদ কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর তাদের আবারও ফ্ল্যাট ছাড়তে চিঠি দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

কমিটির সভাপতি চিফ হুইপ আসম ফিরোজ বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। কমিটির সদস্য তাজুল ইসলাম চৌধুরী, উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদ, মাহবুব আরা বেগম গিনি, পঞ্চানন বিশ্বাস, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আসলামুল হক এবং নাজমুল হক প্রধান এ সময় উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে আসম ফিরোজ বলেন, আমরা আবারও চিঠি দিতে বলেছি। প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু সমস্যা আছে। কারও এখনও বাসায় মালপত্র আছে। কারও ফ্যামিলি মেম্বার বেশি। কমিটি আবারও তাগিদ দিয়েছে। তিনি আরও বলেন, যদি কারও আসলেই ফ্ল্যাট প্রয়োজন হয় তবে তারা স্পিকারের স্পেশাল পারমিশন নিতে পারেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.