সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «   তাহিরপুরে রাতের আঁধারে কৃষকের জমির ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লাঠিয়াল বাহিনী   » «   ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৭, আশংখাজনক ভাবে ৫জনকে সিলেট প্রেরন  » «  

বালাগঞ্জে আউশ আবাদ : লক্ষ্যমাত্রা ৪ হাজার হেক্টর জমি

3নিজস্ব প্রতিবেদক : বালাগঞ্জে চলতি মৌসুমে ৪ হাজার হেক্টর জমিতে আউশ আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে উপজেলা কৃষি অফিস ইতোমধ্যে বিনামূল্যে বীজ, রাসায়নিক সার বিতরণ এবং সেচ ও আগাছা দমনে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান শুরু করেছে। আউশের ভাল ফলন উৎপাদনের জন্য সংশ্লিষ্ট কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা দিতে স্থানীয় মাঠকর্মীদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. মো. হাসানুল কবির কামালী জানিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আউশ আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে তাজপুর ইউনিয়নে ৪শ’ ৫০ হেক্টর। অপরদিকে সবচেয়ে কম আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১শ’ ২০ হেক্টর করে পশ্চিম পৈলনপুর এবং পশ্চিম গৌরীপুর ইউনিয়নে। এছাড়া অন্যান্য ইউনিয়নের মধ্যে উমরপুর ইউনিয়নে ৩শ’ হেক্টর, সাদিপুর ইউনিয়নে ১শ’ ৮০, পূর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নে ১শ’ ৪০, বোয়ালজুড় ইউনিয়নে ৪শ’ ৩০, বুরুঙ্গাবাজার ইউনিয়নে ৩শ’ ৪০, গোয়ালাবাজার ইউনিয়নে ৩শ’ ৮০, দয়ামীর ইউনিয়নে ৪শ’, উছমানপুর ইউনিয়নে ৩শ’ ৭০, দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে ৩শ’ ৬০, বালাগঞ্জ ১শ’ ৮০ এবং পূর্ব গৌরীপুর ২শ’ ৩০ হেক্টর। সুনির্দিষ্ট তালিকা না থাকলেও উপজেলায় আউশ চাষাবাদের সাথে প্রায় ১৪/১৫ হাজার কৃষক জড়িত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. মো. হাসানুল কবির কামালী জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলার ৭শ’ ৮৫ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক আউশ চাষীকে বিনামূল্যে বীজ, রাসায়নিক সার প্রদান এবং সেচ ও আগাছা দমনের জন্য আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করা হবে। উফশী আউশ ও উন্নত নেরিকা জাতের এসব আউশ চাষীদের প্রতিজনকে ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি করে ডিএপি ও এমওপি মোট ৪০ কেজি সার প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া সেচ ও আগাছা দমনে সহায়তা হিসেবে উফশী জাতের ৭শ’ ৫০ জন আউশ চাষীর প্রতিজনকে সেচ বাবদ নগদ ৪শ’ টাকা এবং নেরিকা জাতের ৩৫ জন আউশ চাষীকে সেচ ও আগাছা দমন বাবদ নগদ ৮শ’ টাকা করে অর্থ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। উফশী চাষীদের প্রতিজনকে বীজ দেওয়া হচ্ছে ৫ কেজি এবং নেরিকা চাষীদের দেওয়া হচ্ছে ১০ কেজি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.