সংবাদ শিরোনাম
সিলেটের ওসমানীনগরে মা-মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ  » «   জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির অযৌক্তিক সিদ্বান্ত-বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল  » «   দেশের সংকট নিরসনের জন্য আওয়ামীলীগকে বিতাড়িত করার বিকল্প নেই :খন্দকার মুক্তাদির  » «   চুনারুঘাটে ছেলের হাতে মা খুন,ছেলে আটক  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২  » «   দোয়ারাবাজারে ভারতীয় মালামালসহ আটক ২   » «   ওসমানীনগর থানার ওসি অথর্ব ও দুর্নীতিবাজ-মোকাব্বির খান এমপি  » «   ভোলায় পুলিশী ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   সিলেটে ঘুষ ছাড়া সহজে কারো পাসপোর্ট হয়না: ব্যবস্থা নিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি  » «   সুনামগঞ্জে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা  » «   জামালগঞ্জে জামায়াতের আমীর দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র জিহাদি বইসহ ২জন আটক-মামলা  » «   সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরে পুকুরে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু  » «   জৈন্তাপুর সীমান্তের ডিবির হাওর এলাকায় ৪৮ বিজিবি’র মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত  » «   ওসমানীনগরে সাংবাদিকের বাড়িতে কর্মরত যুবকের লাশ ডোবা থেকে উদ্ধার  » «   দোয়ারাবাজারে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু  » «  

বালাগঞ্জে আউশ আবাদ : লক্ষ্যমাত্রা ৪ হাজার হেক্টর জমি

3নিজস্ব প্রতিবেদক : বালাগঞ্জে চলতি মৌসুমে ৪ হাজার হেক্টর জমিতে আউশ আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে উপজেলা কৃষি অফিস ইতোমধ্যে বিনামূল্যে বীজ, রাসায়নিক সার বিতরণ এবং সেচ ও আগাছা দমনে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান শুরু করেছে। আউশের ভাল ফলন উৎপাদনের জন্য সংশ্লিষ্ট কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা দিতে স্থানীয় মাঠকর্মীদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. মো. হাসানুল কবির কামালী জানিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আউশ আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে তাজপুর ইউনিয়নে ৪শ’ ৫০ হেক্টর। অপরদিকে সবচেয়ে কম আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১শ’ ২০ হেক্টর করে পশ্চিম পৈলনপুর এবং পশ্চিম গৌরীপুর ইউনিয়নে। এছাড়া অন্যান্য ইউনিয়নের মধ্যে উমরপুর ইউনিয়নে ৩শ’ হেক্টর, সাদিপুর ইউনিয়নে ১শ’ ৮০, পূর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নে ১শ’ ৪০, বোয়ালজুড় ইউনিয়নে ৪শ’ ৩০, বুরুঙ্গাবাজার ইউনিয়নে ৩শ’ ৪০, গোয়ালাবাজার ইউনিয়নে ৩শ’ ৮০, দয়ামীর ইউনিয়নে ৪শ’, উছমানপুর ইউনিয়নে ৩শ’ ৭০, দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে ৩শ’ ৬০, বালাগঞ্জ ১শ’ ৮০ এবং পূর্ব গৌরীপুর ২শ’ ৩০ হেক্টর। সুনির্দিষ্ট তালিকা না থাকলেও উপজেলায় আউশ চাষাবাদের সাথে প্রায় ১৪/১৫ হাজার কৃষক জড়িত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. মো. হাসানুল কবির কামালী জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলার ৭শ’ ৮৫ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক আউশ চাষীকে বিনামূল্যে বীজ, রাসায়নিক সার প্রদান এবং সেচ ও আগাছা দমনের জন্য আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করা হবে। উফশী আউশ ও উন্নত নেরিকা জাতের এসব আউশ চাষীদের প্রতিজনকে ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি করে ডিএপি ও এমওপি মোট ৪০ কেজি সার প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া সেচ ও আগাছা দমনে সহায়তা হিসেবে উফশী জাতের ৭শ’ ৫০ জন আউশ চাষীর প্রতিজনকে সেচ বাবদ নগদ ৪শ’ টাকা এবং নেরিকা জাতের ৩৫ জন আউশ চাষীকে সেচ ও আগাছা দমন বাবদ নগদ ৮শ’ টাকা করে অর্থ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। উফশী চাষীদের প্রতিজনকে বীজ দেওয়া হচ্ছে ৫ কেজি এবং নেরিকা চাষীদের দেওয়া হচ্ছে ১০ কেজি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.