সংবাদ শিরোনাম
সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি’র সভাপতি শেখ লুৎফুর  » «   ওসমানীনগরে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে ২শতাধিক বাসিন্দা উপজেলা প্রশাসনের তালিকায় মাত্র ৪৩জন  » «   ওসমানীনগরে কুশিয়ারা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ঝুঁকিতে ড্রাইক ও গ্রাম  » «   সিলেটের বিভিন্ন স্থান থেকে চোরাই মোবাইল সিন্ডিকেটের ৬ জন সদস্য র‌্যাব-৯ এর হাতে গ্রেফতার  » «   করিম উল্লাহ মার্কেট থেকে বিপুল পরিমাণ মোবাইলসহ ৬ জন গ্রেফতার  » «   ঈদকে সামনে রেখে নবীগঞ্জে জমে উঠেছে জমজমাট পশুর হাট!  » «   শিশুদের সুপ্ত মেধা বিকাশে প্রতিযোগিতা আয়োজনের বিকল্প নেই: শেখ রাসেল হাসান  » «   মেজরটিলায় টিলা ধসে হতাহতের ঘটনায় সিলেট মহানগর বিএনপির শোক  » «   দেশের স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে শহীদ জিয়া দূরদর্শী অবদান রেখেছিলেন-অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ  » «   ডামি সরকারের ডামি বাজেট জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে-বিএনপি  » «   গোয়ালাবাজার থেকে খাদিম পুর রোডের রাস্তার দুই পাশে গাছ হেলে পড়ায় দুর্ঘটনার আশঙ্কা  » «   আলোকিত দেশ গড়তে শিক্ষার্থীদেরকে আদর্শবান হতে হবে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী  » «   মরহুম প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর বিএনপির খাদ্য বিতরণ  » «   ইতিহাস বিকৃত করে মানুষের হৃদয় থেকে শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলা যাবে না  » «   নবীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে নাশকতা ও হয়রানির শেষ কোথায়? সচেতন মহলের প্রশ্ন  » «  

পবিত্র শবে মেরাজ 

unnam-660x330সিলেটপোস্ট রিপোর্ট  ‘শব’ ফারসি শব্দ অর্থাৎ রাত্র বা রজনী। ‘মেরাজ‘ আরবী শব্দটির বাংলা অর্থ সাক্ষাৎ। কিন্তু “উর্ধ্বগমন” উল্লেখ করা অধিকাংশ কিতাবে। যেহেতু আল্লার অবস্থান সপ্তম আসমানের উপর এই জন্য সাক্ষাৎ শব্দের অর্থ উর্ধ্বগমনই বুঝানো হয়েছে। সাক্ষাৎ হলে তো উপরেই হবে। তাই হবে হয়তো। যেমন ইয়াকীন শব্দের অর্থ দৃঢ়বিশ্বাস হলেও অধিকাংশ কোরআনের তরজমায় নিশ্চিত মৃত্যু বুঝানো হয়েছে। কিন্তু মেরাজ শব্দের প্রকৃত অর্থ যে সাক্ষাত সেটা রাছুল সা. এর হাদিস থেকে স্পষ্টই বুঝা যায়। একটি হাদিস আছে সেটা অধিকাংশ নামাযিগনদের জানাই আছে। নবী সা. মেরাজ থেকে ফেরার পর সাহাবাদের মধ্যে অনেকেই জিজ্ঞাসা করেছিলেন হুজুর আমাদের সাক্ষাৎ হবে না। আমরা কি আল্লাহকে দেখবো না? তখন নবী সা. বলেছিলেন মুমিনের সাথে আল্লার মেরাজ (সাক্ষাৎ) হবে দিনে পাঁচবার। এই হাদিস আবার অনেকে মানতেও চায় না। “আসসালাতুল মেরাজুল মুমিনীন । এটা যারা না মানবে আল্লার সাক্ষাৎ তারা পাবেন বলে মনে করি না। যেহেতু সালাতের চেয়ে উত্তম কিছু নাই।

আরবী ২৬ই রজব দিবাগত রাত্রে রাছুল সা. আল্লার অতি নিকটবর্তী হয়েছিলেন।

আদম তো আল্লার নগন্য দাস সে সাথে আল্লার প্রিয় দাস মুহাম্মদ সা. এর দাস। অর্থাৎ আদম জন্ম লগ্ন থেকেই দাসানু দাস। কিছু মনগড়া হাদিস আছে যাহাতে দেখা যায় রাছুল সা. এর উম্মতদের জন্য অন্যের মহানুববতেই বেশি। যাহাতে মায়ের চেয়ে মাসির দরদ বেশী প্রকাশ। সাক্ষাতের ব্যপারে কোরআনে কি বলা আছে সেটা আমি তুলে ধরছি।

সূরা বনিইস্রাইল ১৭:১# পরম পবিত্র ও মহিমাময় সত্তা তিনি, যিনি স্বীয় বান্দাকে রাত্রি বেলায় ভ্রমণ করিয়েছিলেন মসজিদে হারাম থেকে মসজিদে আকসা পর্যান্ত-যার চার দিকে আমি পর্যাপ্ত বরকত দান করেছি যাতে আমি তাঁকে কুদরতের কিছু নিদর্শন দেখিয়ে দেই। নিশ্চয়ই তিনি পরম শ্রবণকারী ও দর্শনশীল।

সূরা নাযম ৫৩:১-১৮# নক্ষত্রের কসম, যখন অস্তমিত হয়।

৫৩:২# তোমাদের সংগী পথভ্রষ্ট হননি এবং বিপথগামীও হননি।

৫৩:৩# এবং প্রবৃত্তির তাড়নায় কথা বলেন না।

৫৩:৪# কোরআন ওহী, যা প্রত্যাদেশ হয়।

৫৩:৫# তাঁকে শিক্ষা দান করে এক শক্তিশালী ফেরেশতা,

৫৩:৬# সহজাত শক্তিসম্পন্ন, সে নিজ আকৃতিতে প্রকাশ পেল।

৫৩:৭# উর্ধ্ব দিগন্তে,

৫৩:৮# অতঃপর নিকটবর্তী হল ও ঝুলে গেল।

৫৩:৯# তখন দুই ধনুকের ব্যবধান ছিল অথবা আরও কম।

৫৩:১০# তখন আল্লাহ তাঁর দাসের প্রতি যা প্রত্যাদেশ করবার, তা প্রত্যাদেশ করলেন।

৫৩:১১# রসূলের অন্তর মিথ্যা বলেনি যা সে দেখেছে।

৫৩:১২# তোমরা কি বিষয়ে বিতর্ক করবে যা সে দেখেছে?

৫৩:১৩# নিশ্চয় সে তাকে আরেকবার দেখেছিল,

৫৩:১৪# সিদরাতুলমুন্তাহার নিকটে,

৫৩:১৫# যার কাছে অবস্থিত বসবাসের জান্নাত।

৫৩:১৬# যখন বৃক্ষটি দ্বারা আচ্ছন্ন হওয়ার, তদ্দ্বারা আচ্ছন্ন ছিল।

৫৩:১৭# তাঁর দৃষ্টিবিভ্রম হয় নি এবং সীমালংঘনও করেনি।

৫৩:১৮# নিশ্চয় সে তার পালনকর্তার মহান নিদর্শনাবলী অবলোকন করেছে।

৫৩:৫# তাঁকে শিক্ষা দান করে এক শক্তিশালী ফেরেশতা,

He was taught by one Mighty in Power,

উক্ত আয়াতে ফেরেস্তা দিয়ে আমাদের রাছুল সা. শিক্ষা দেওয়া হয়েছে জিব্রাইল ফেরেস্তা দিয়ে। এটা কোন ইমানদার ব্যক্তি বিশ্বাস করতে পারেনা। কারণ আল্লার প্রিয় হাবীবকে অন্যের দ্বারা শিক্ষা দিয়ে ছোট করতে পারেন তা মেনে নিতে পারি না। যদি আল্লাহ অন্যকে দিয়ে শিক্ষা দেওয়াতেন তবে কেন রাছুল সা. উম্মি নবী বানিয়ে রাখতেন না।

৫৩:৯# তখন দুই ধনুকের ব্যবধান ছিল অথবা আরও কম।

And was at a distance of but two bow-lengths or (even) nearer;

এই আয়াতটিতে খুবই স্পষ্ট যে আল্লা তাঁর প্রিয় হাবীবের সাথে খুব নিটক থেকেই উভয়ের সাক্ষাৎ ঘটেছিল। মাত্র দুই ধনুকের ব্যবধানে। আলোচ্য বিষয় ধনুকের আকৃতি ছোট বড় এই ব্যপারেও কোন কথা বলা নাই। বুঝা যায় আল্লার প্রিয় হাবিব খুব তৃপ্তি নিয়েই দেখেছেন এই তামাম জাহানের মালিক প্রভু সৃষ্টি কর্তাকে। এই মেরাজ অর্থাৎ সাক্ষাতের ব্যপারে বহু বছর থেকেই প্রচলিত আছে আল্লা ৭০ হাজার পর্দার আড়াল থেকে রাছুল সা. এর সাথে দেখা করেছেন। কোন কিছুর আড়াল থেকে যে দেখা হয়। আর এটা যে আলেম সাহেবগন বিশ্বাস করতে চান না আমার বুঝে আসে না। আল্লা পবিত্র কোরআনে সাক্ষাতের প্রসঙ্গে এত আয়াতে বলেছেন তাতেও কোথাও পর্দার কথা বলেন নাই। এমনকি আল্লা আমাদের সাধারন গোলামদের সাথেই সাক্ষাত দিবেন এবং তাঁর সাক্ষাৎ থেকে বিমুখ থাকলে কাফের হতে হয়। কাজেই অনুরোধ রইল আল্লার সাক্ষাত সম্পর্কে জ্ঞান গাফেল হলে কাফেরী মউতই প্রাপ্য হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.