সংবাদ শিরোনাম
সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে মায়ের সম্পত্তি নিয়ে ছোটভাইয়ের হাতে বড়ভাই নিহত,আটক-২  » «   দিরাইয়ে বজ্রপাতে দুইজন কৃষকের মৃত্যু  » «   পরিবেশ অধিদপ্তরের অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার আহবান  » «   সিলেট জেলা ট্রাক-পিকআপ-কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের ঈদ পুনর্মিলনী ও আলোচনা সভা  » «   ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি’র সভাপতি শেখ লুৎফুর  » «   পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসীর মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক ও সমন্বয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ-সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ  » «   মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি’র ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত  » «   সুনামগঞ্জে কালবৈশাখীর ঝড়ে ৭শতাধিক কাচা ঘরবাড়ি,২ শতাধিক দোকান লন্ডভন্ড  » «   হবিগঞ্জে চাল্যকর ছোবহান হত্যা মামলার ৫ জন আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৯  » «   নবীগঞ্জে ৬ বছরে শিশুকে চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ! ধর্ষনকারী আনহারকে আটক   » «   ফ্যাসিস্ট ডামি সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করা হবে :কাইয়ুম চৌধুরী  » «   বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন সিলেট জেলার উদ্যোগে ইফতার বিতরণ ও দোয়া মাহফিল  » «   সিলেটে পারিবারিক কলহের জেরে ছেলের হাতে বাবা খুন  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে ভুল অপারেশন করে শিশুর লিঙ্গ কর্তন-কেয়ার ডায়াগনস্টিক ঘেরাও  » «  

সিটি ইয়াবা সার্ভিস’চলছে দামী গাড়ি দিয়ে

carসিলেটপোষ্টরিপোর্ট:মাদক সেবীদের ‘ডোর টু ডোর’ সার্ভিস দিতে প্রতিনিয়ত নিত্যনতুন ‘বিজনেস প্ল্যান’ করতে হচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীদের। এবার তারই অংশ হিসেবে মাদক ব্যবসায়ীরা রাজধানীতে শুরু করেছেন ‘সিটি ইয়াবা সার্ভিস’। এজন্য তারা ব্যবহার করছেন বিলাস বহুল প্রাইভেট কার। নির্দিষ্ট নম্বরে শুধু একটি ফোন করলেই গাড়ি পৌঁছে যাবে ক্রেতার দোরগড়ায়। গাড়ির ভেতর এসির ঠান্ডা বাতাসে নগদ টাকায় হাতবদল হবে ইয়াবা।শুধু খুচরা নয় পাইকারীভাবেও ইয়াবা বেচাকেনা করছে চক্রটি। তবে রাজধানীতে এরকম কতগুলো ‘সিটি ইয়াবা সার্ভিস’ আছে তা জানতে পারেননি সংশ্লিষ্টরা।রাজধানীতে এই সার্ভিস শুরু করেন টেকনাফের ইয়াবা ব্যবসায়ী হাকিম মাঝি ও হোসেন। তাদের দেখাদেখি পরে অন্য অনেক মাদক ব্যবসায়ীও এভাবে মাদক বিক্রি শুর করেন। তারা এটির নাম দিয়েছেন ‘সিটি ইয়াবা সার্ভিস’।রাজধানীতে হাকিম মাঝি ও হোসেনের অন্যতম ‘এজেন্ট’ রুহুল আমিন। গত সোমবার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এক অভিযানে উত্তরা থেকে তাকে আটক করেন অধিদপ্তরের ডেমরা সার্কেলের পরিদর্শক ফজলু হক খান। এসময় তার সাথে সিটি সার্ভিসের গাড়ি চালক হাফিজ এবং মোক্তার নামে একজনকে আটক করে। তাদের কাছ থেকে টয়োটা এলিয়ন ব্রান্ডের একটি গাড়িও উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত গাড়িটি টেকনাফের জনৈক জাফরের নামে রেজিষ্ট্রেশনকৃত।আটকের পর রুহুল আমিন অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের জানান, টেকনাফ থেকে হাকিম মাঝি ও হোসেন নামে দুই ব্যক্তি তার কাছে ইয়াবা সরবরাহ করেন। রুহুল আরা জানান, শুধু ঢাকা নয়, রাজধানীর বাইরে থেকেও ‘পার্টি’ এসে তাদের কাছ থেকে ইয়াবা নিয়ে যায়। তবে তারা কখনো রাজধানীর বাইরে যান না। রাজধানীর ভেতরে প্রাইভেট কারে করে ইয়াবা সরবরাহ করেন। তবে ঢাকার বাইরে থেকে ‘পার্টি’ আসলে তাদের ‘লোক’ রাজধানীর প্রবেশ মুখ থেকে ‘পার্টি’কে রিসিভ করে উত্তরায় নিয়ে আসেন। পরে গাড়িতে বসেই ইয়াবা ও টাকার লেনদেন করেন। মাদক কর্মকর্তাদের মতে, এই চক্রটি মূলত উত্তরা পূর্ব থানার আশপাশেই বেশী তৎপর। এ ক্ষেত্রে থানা পুলিশের যোগসাজশ থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন তারা। এদিকে মাদক গায়েন্দা সুত্রে জানা যায়, ইয়াবা, ফেন্সিডিলসহ অন্যন্য মাদকও রাজধানীতে এভাবে মোটর সাইকেল, প্রাইভেট কার, মিনি ট্রাকে করে সরবরাহ করা হচ্ছে মাদকসেবীদের কাছে। মূলত পুলিশের চোখ ফাঁকি দিতেই মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক সরবরাহের কাজে এখন দামী গাড়ি ব্যবহার করছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.