সংবাদ শিরোনাম
দক্ষিণ সুরমায় মেয়েকে ফিরে পেতে এক পিতার আকুতি  » «   বানারীপাড়ায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক দূর্দান্ত প্রতারক রঞ্জন গ্রেফতার  » «   দক্ষিন সুরমার সুলতানপুর-গহরপুর সড়কে দুর্ঘটনায় নিহত ৩  » «   সাংবাদিক অজয় পালের প্রতিকৃতিতে সিলেটের সর্বস্থরের নাগরিকদের শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’ শেরপুরে হাজারো মানুষের ঢল  » «   দক্ষিণ সুমরার বাইপাস এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত  » «   আমাদের দেশের শিক্ষার্থীরা আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন হয়ে গড়ে উঠছে: মন্ত্রী ইমরান  » «   আওয়ামীলীগের বিদায় নিশ্চিত করে দেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্টা করতে হবে :কাইয়ুম চৌধুরী  » «   অবকাঠামো উন্নয়ন এর মাধ্যমে দেশ গড়ার কাজ করতে হবে-প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ  » «   ছাতকে অধ্যক্ষ অপসারণের দাবীতে সড়ক অবরোধ করেছে ছাত্রলীগ  » «   দোয়ারাবাজারে বিজিবি’র অভিযানে চৌদ্দ লক্ষ টাকা উদ্ধার  » «   দোয়ারাবাজারে চিলাই নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন! ২টিড্রেজার মেশিনসহ বালু জব্দ  » «   কুলাউড়ায় ৩ কেজি গাঁজাসহ ১জনকে আটক করেছে পুলিশ  » «   প্রধানমন্ত্রীর নতুন স্বপ্ন স্মার্ট বাংলাদেশে কেউ পিছিয়ে থাকবেনা : জেলা প্রশাসক  » «   শীত বস্ত্র কম্বল বিতরণ করেছে মানবাধিকার ও অনুসন্ধান কল্যাণ সোসাইটি  » «  

‘গণপিটুনি’তে দুই যুবকের মৃত্যু : পুলিশের সম্পৃক্ততার অভিযোগ

67সিলেট পোস্ট রিপোর্ট:  যশোরে গণপিটুনিতে দুই যুবক নিহত হওয়ার ঘটনায় পুলিশের সম্পৃক্ততার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার যশোর প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে এ অভিযোগ উত্থাপিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহত ইসমাইল শেখের মামা ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির পাঠাগার সম্পাদক দেলোয়ার রহমান দীপু।

 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রোববার রাতে যশোর-মাগুরা সড়কের হুদার মোড় এলাকায় যশোর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের কম্পিউটার বিভাগের ৫ম পর্বের ছাত্র ইসমাইল ও ওয়েল্ডিং ব্যবসায়ী আল-আমিনকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। অথচ পুলিশ ওইদিন দাবি করে, বরুণ তরফদার নামে এক লোকের মোটরসাইকেল ছিনতাই করতে গিয়ে  গণপিটুনিতে ওই দুই যুবক নিহত হন।

সংবাদ সম্মেলনে দেলোয়ার বলেন, ‘ছিনতাইয়ের ঘটনাটি পুরোপুরি সাজানো। এ ব্যাপারে স্থানীয় লোকজন কিছুই জানে না।’

তিনি দাবি করেন, যার মোটরসাইকেল ছিনতাই করা হচ্ছিল বলে পুলিশ দাবি করছে, সেই বরুণ তরফদারের এক আত্মীয়ার সঙ্গে নিহত ইসমাইল অথবা আল-আমিনের  প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে তারা জানতে পেরেছেন। এরই জেরে তাদের দুজনকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তাদের শরীরে গণপিটুনির কোন চিহ্ন নেই এবং গলার ওপরের অংশে ধারালো অস্ত্রের অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলেও এ সময় জানান দেলোয়ার। তিনি এ হত্যাকান্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন।

 

সংবাদ সম্মেলনে নিহত ইসমাইলের বাবা বেলাল শেখ, মা রেহানা বেলাল, বড় মামা মঞ্জুরুল আলম, নিহত আল-আমিনের বড় ভাই রবিউল ইসলাম, চাচা ইনসার আলীসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.