সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়  » «   তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে প্রধান শিক্ষকের টালবাহানা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি ভাতা দেওয়ার নামে প্রতারণা, প্রতারককে জরিমানা  » «   মৌলভীবাজারের জুড়িতে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ দুইজন গ্রেফতার  » «   দোয়ারাবাজারে বিদেশী মদের চালানসহ মাদক কারবারি আটক  » «   সুনামগঞ্জের তিন উপজেলার ১৫টি স্পটে চলছে সহশ্রাধিক অবৈধ ক্রাশার মেশিনের তান্ডব  » «   সুনামগঞ্জে পিতা ও কন্যার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   নবীগঞ্জে যুদ্বাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ মিয়া আমাদের মধ্যে আর নেই! রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন  » «   জুড়ীতে ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ আটক ১  » «   ছাতকে আবুল হোসেনকে পরিকল্পিত হত্যা নাকি অন্য কারণ?প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করার অপচেষ্টা   » «   দোয়ারাবাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরখাস্ত   » «   তাহিরপুরে রাতের আঁধারে কৃষকের জমির ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লাঠিয়াল বাহিনী   » «   ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৭, আশংখাজনক ভাবে ৫জনকে সিলেট প্রেরন  » «  

‘লড়াই’ চালিয়ে যেতে চান ধর্ষিত তরুণী

14_Hill+Women's+Federation+(HWF)_240515_0001সিলেট পোষ্ট রিপোর্ট : ধকল সামলে উঠে এখন অপরাধীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে লড়াই চালিয়ে যেতে চাইছেন রাজধানীতে কর্মক্ষেত্র থেকে ফেরার পথে ধর্ষিত গারো তরুণী।

রোববার ঢাকা মেডিকেল কলেজে তাকে দেখে এসে সাংবাদিকদের একথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী পরিচালক সালমা আলী।

ঢাকা মেডিকেলে রোববার ওই তরুণীকে দেখে এসে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, অপরাধীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করতে পুলিশ সচেষ্ট হবে বলে তিনি আশা করছেন।

পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই মামলাটির অগ্রগতি তদারক করতে তিন সদস্যের একটি কমিটি ইতোমধ্যে গঠন করা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার তরুণীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলেও এখন মানসিক চাপ রয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। চাইলে ঘরে ফিরতে অনুমতি দেবেন তারা।

যমুনা ফিউচার পার্কের একটি দোকানের বিক্রয়কর্মী ২১ বছর বয়সী এই তরুণী গত বৃহস্পতিবার রাতে কুড়িলে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তখন একদল যুবক তাকে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে দল বেঁধে ধর্ষণ করে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজে নেওয়ার পর ডাক্তারি পরীক্ষার ধর্ষণের প্রমাণ মেলার পর থেকে সেখানেই চিকিৎসাধীন তিনি।

রোববার তাকে দেখতে যান মেহের আফরোজ চুমকি, সালমা আলী ছাড়াও বিভিন্ন ব্যক্তি এবং সংস্থার প্রতিনিধিরা।

সালমা আলী বলেন, “সে সাহসী নারী, নিজের দুর্দশা কাটিয়ে উঠতে পারছে। অপরাধীদের শনাক্ত করার কাজেও সহযোগিতা করছে। প্রতিটি নারীর এভাবেই লড়াই চালিয়ে যাওয়ার মানসিকতা থাকা উচিত।”

এভাবে নারীদের নির্যাতিত হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করে প্রতিমন্ত্রী ‍চুমকি বলেন, “সরকার যখন নারীর ক্ষমতায়নে সোচ্চার, তখন এভাবে রাস্তায় নির্যাতিত হবে, সেটা আমরা আশা করি না।

“সুষ্ঠু তদন্ত করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মূল আসামিদের যেন শনাক্ত করার ব্যবস্থা করে সেই দাবি জানাই। পুলিশেরও এসব বিষয়ে আরও যত্নবান হওয়া উচিত। কারও গাফিলতি আছে কি না, তাও তদন্ত করে দেখা হবে।”

ওই তরুণীর স্বজনরা একটি মামলা করেছেন ভাটারা থানায়। ওই মামলার অগ্রগতি দেখতে তিন সদস্যের ‘তদারক কমিটি’ গঠন করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার শেখ মোহাম্মদ মারুফ হাসান।

গোয়েন্দা পুলিশের উপকমিশনার শেখ নাজমুল আলম, গুলশান জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার মাহবুব হাসান, গুলশান জোনের গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার ওবায়দুল হক এই কমিটির সদস্য।

ডিএমপির উপকমিশনার এসএম জাহাঙ্গীর আলম সরকার  সিলেট পোষ্টকে বলেন, তারা মামলার তদন্ত কাজে সহায়তা করবেন এবং অগ্রগতি খতিয়ে দেখবেন ।

হাসপাতালে ওই তরুণীকে দেখে এসে কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, “এ ধরনের ঘটনা তো ঘটেই চলেছে। রাষ্ট্র যদি নিয়ন্ত্রণ না করে, মানুষ যদি তাদের আচরণে পরিবর্তন না আনে, তবে এসব থামবে না। আমরা চাই না, সমাজে এভাবে অধঃপাতে যাক।”

আগের ঘটনাগুলোর বিচার না হওয়াতে নারীর ওপর আক্রমণের প্রবণতা বাড়ছে বলে মনে করেন সালমা আলী।

“পহেলা বৈশাখের যৌন হয়রানির ঘটনা থেকে এখন পর্যন্ত যত মামলা হচ্ছে, প্রতিটি মামলাই দ্রুত আদালতে বিচারের মাধ্যমে শেষ করা দরকার। বিচারহীনতার জন্যই আসামিরা পার পেয়ে যাচ্ছে। কোনোমতেই এটি হতে দেওয়া যাবে না।”

নারীর উপর সহিংসতার ঘটনাগুলোর বিচার ও শাস্তি কেন হচ্ছে না- সাংবাদিকদের এই প্রশ্নে প্রতিমন্ত্রী চুমকি বলেন, “এটা একা নারী ও শিশু মন্ত্রণালয়ের বিষয় নয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আছে, অন্য মন্ত্রণালয়গুলো আছে। বিচার ঝুলে থাকার দায়িত্ব তো বিচার বিভাগের। তাদের ওপর তো আমরা জোর খাটাতে পারি না।”

তিনিও স্বীকার করেন, দ্রুত বিচার হলে এই ধরনের ঘটনা ঘটার হার কমবে।

সালমা আলী বলেন, “পুলিশের সদিচ্ছা থাকলে ধর্ষকদের ধরতে পারবে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ধরার দাবি জানাচ্ছি আমরা। আসামি যে দলের বা যত প্রভাবশালীই হোক না কেন, যেন পার না পায়।”

এই ধরনের মামলায় বাদী ও সাক্ষীদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে সরকারকে আহ্বান জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসার পাশাপাশি ওই তরুণীকে আইনগতভাবেও সহযোগিতা দেবে তার মন্ত্রণালয়। নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হবে।

তরুণীর অবস্থার বিষয়ে জানতে চাইলে হাসপাতালের চিতকৎসক বিলকিস বেগম সিলেট পোষ্টকে বলেন, শারীরিক অবস্থা এখন ভাল। তবে মানসিকভাবে ‘ডিপ্রেশনে’ আছে।

“মানসিকভাবে বেশি বিপর্যস্ত। হয়ত কাউন্সিলরের কাছে আরও কয়েকটি সিটিং লাগবে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ হয়ে গেছে। সে যদি পরিবারের কাছে যেতে চায়, তবে এখন যেতে পারবে।”

ওই তরুণীর বড় বোন অপরাধীদের চিহ্নিত করতে সবার সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। সেই সঙ্গে কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বিব্রত বোধ করার কথাও জানান তিনি।

“কিছু কিছু মিডিয়ায় নাম, ঠিকানাসহ এসেছে। এতে আরও বিব্রত হচ্ছি।”

“যা হয়েছে, তার বিচার হোক, এটুকুই আমাদের চাওয়া,” বলেন তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.