সংবাদ শিরোনাম
এডিশন্যাল ডি আই জি কে জেলা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের বিদায় সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট প্রদান  » «   আউশকান্দি কলেজিয়েট স্কুলে বখাটেদের উৎপাত বেড়ে গেছে!ছাত্রী ও অভিভাবকরা আতংকিত  » «   সুনামগঞ্জ জেলা ও দিরাই উপজেলা শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে দুদকে ঘুষ-দূর্নীতি ও অর্থ কেলেংকারীর অভিযোগ   » «   মাস খানেক পরই বিদ্যুৎ ঘাটতিসহ সবকিছুই ঠিক হয়ে যাবে-পরিকল্পনা মন্ত্রী মান্নান  » «   ওসমানীনগরে পরিমাপে পেট্রোল কম দেয়ায় সুপ্রীম ও আবীর ফিলিং স্টেশনকে জরিমানা  » «   জগন্নাথপুরে এক কৃষক হত্যা মামলায় ১ জনের আমৃত্যু ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড  » «   সিলেটের ওসমানীনগরে মা-মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ  » «   জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির অযৌক্তিক সিদ্বান্ত-বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল  » «   দেশের সংকট নিরসনের জন্য আওয়ামীলীগকে বিতাড়িত করার বিকল্প নেই :খন্দকার মুক্তাদির  » «   চুনারুঘাটে ছেলের হাতে মা খুন,ছেলে আটক  » «   জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২  » «   দোয়ারাবাজারে ভারতীয় মালামালসহ আটক ২   » «   ওসমানীনগর থানার ওসি অথর্ব ও দুর্নীতিবাজ-মোকাব্বির খান এমপি  » «   ভোলায় পুলিশী ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সিলেটে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল  » «   সিলেটে ঘুষ ছাড়া সহজে কারো পাসপোর্ট হয়না: ব্যবস্থা নিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি  » «  

সুনামগঞ্জে রাতের আঁধারে সড়কের পাশের গাছ কেটে নেয়

8সিলেটপোস্টরিপোর্ট:সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর-পাগলা সড়কের পাশ থেকে রাতের আঁধারে গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে স্থানীয় লোকজন। গত দুই মাসে শতাধিক গাছ কেটে নেওয়া হয়েছে। তবে গাছ কাটার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্ত করতে পারেনি প্রশাসন। তদারকি না থাকায় গাছগুলো অবাধে কেটে নেওয়া হচ্ছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছেন।স্থানীয় কয়েক ব্যক্তি বলেন, জগন্নাথপুর-পাগলা সড়কের দৈর্ঘ্য ২১ কিলোমিটার। সড়ক ও জনপথ বিভাগের সুনামগঞ্জ কার্যালয় ২০০০ সালে জগন্নাথপুর-পাগলা সড়কের দুই পাশে মেহগনি, রেইনট্রি, আম, বরইসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা লাগিয়েছিল। এখন গাছগুলো বেশ বড় হয়েছে। কিছুদিন ধরে সড়কের গয়াসপুর, ধারাখাই, কোনাখালী, মজিদপুর এলাকা থেকে গাছ কেটে নেওয়া হচ্ছে।সরেজমিনে দেখা গেছে, সড়কের গয়াসপুর এলাকার দুই পাশ থেকেই বেশ কিছু গাছ কেটে নেওয়া হয়েছে। এখানে কাটা গাছের ৩১টি গোড়া দেখা গেছে। জ্বালানির জন্য এসব গাছের গোড়া কাটছিলেন গ্রামের বৃদ্ধ আজিজুর রহমান ও সুফিয়া খাতুন। তাঁরা বলেন, এসব গাছ কারা কেটে নিয়েছে তাঁরা তা জানেন না। কাউকে গাছ কাটতেও দেখেননি। গোড়া পড়ে আছে তাই লাকড়ির জন্য এসব তুলে নিচ্ছেন।আজিজুর রহমান আরও বলেন, রাতে এসব গাছ কাটা হয়। শুধু গয়াসপুর নয়, সড়কের আরও কয়েকটি এলাকা থেকে এভাবে গাছ কেটে নেওয়া হয়েছে। মজিদপুর গ্রামের গোপী বৈদ্য বলেন, ‘রাস্তার পাশ থেকে গাছ না কাটার লাগি একবার অফিসাররা আইয়া কইয়া গেছইন। মানুষে তখন কইছ লা কেউ গাছ কাটলে তারারে খবর দিবা। এরপরও দেখছি গাছ কাটা অর।’গয়াসপুর গ্রামের কলেজছাত্র সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘যেভাবে গাছ কাটা হচ্ছে তাতে একসময় দেখা যাবে সড়কের পাশে আর গাছ নেই। গাছ কাটা বন্ধে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের এখনই উদ্যোগ নেওয়া উচিত।’ ধারাখাই, কোনাখালী, মজিদপুর, দরগা পাশা এলাকায় গিয়েও একইভাবে সড়কের দুই পাশ থেকে কেটে নেওয়া গাছের বেশ কিছু গোড়া দেখা যায়।গয়াসপুর এলাকায় দেখা হয় সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মচারী ফরিদ আহমদের সঙ্গে। তিনি বলেন, রাতের আঁধারে এসব গাছ কেটে নেওয়া হচ্ছে। স্থানীয় লোকজন এসব গাছ কাটার সঙ্গে জড়িত। কিন্তু কাউকে হাতেনাতে না ধরতে পারলে তো আর কিছু বলা যায় না।জগন্নাথপুর উপজেলা নাগরিক ফোরামের সভাপতি নুরুল হক বলেন, ‘গত দুই মাসে এই সড়কের পাশ থেকে শতাধিক গাছ কেটে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু গাছ কাটা বন্ধে সওজ বিভাগের কোনো উদ্যোগ দেখছি না।’সওজের সুনামগঞ্জ কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারুল আমিন বলেছেন, তিনি বিষয়টি জানেন না। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.